1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

ব্রিটিশদের ভরসা রুনি, শঙ্কাও

৪৪ বছর পর আবার বিশ্বকাপ এনে দেবেন ওয়েন রুনি - এমনটাই আশা করছেন ব্রিটিশরা৷ কিন্তু যার ওপর এতো আস্থা, ভয়টা আবার তাঁকে নিয়েই৷ কারণ মেজাজ হারিয়ে কখন কী করে বসেন এ তারকা খেলোয়াড়৷

default

ওয়েন রুনি

বিশ্বকাপ শুরুর আর তিন দিন বাকি৷ দক্ষিণ আফ্রিকায় সোমবার একটি প্রীতি ম্যাচে নেমেছিলো ইংল্যান্ড দল৷ খেলায় রুনি গোল করেছেন, দলও জয় পেয়েছে৷ কিন্তু রেফারির সঙ্গে তিনি যেভাবে বাক-বিতণ্ডায় জড়ালেন, ব্রিটিশদের শঙ্কা সেখানেই৷

রেফারি জেফ সেলোগিলবি তো বলছেন, রুনি তাকে অশ্লীল গালি দিয়েছেন৷ আর এমনটা বিশ্বকাপের খেলায় করলে এ তারকাকে যে বাক্স পেঁটরা গুছিয়ে বাড়ি ফিরতে হবে, তা আগে থেকেই বলে রেখেছেন তিনি৷ রুনি অবশ্য ক্ষমা চেয়ে এ দফা পার পেয়েছেন৷ সাদা পতাকা দেখিয়ে নিজের জার্সিটাও উপহার দিয়েছেন রেফারিকে৷

তবুও ২৪ বছর বয়সি রুনির প্রতি জেফের সতর্কবার্তা, ‘মেজাজটাকে নিয়ন্ত্রণে রেখো বাবা'৷ একইসঙ্গে জানাতে ভুললেন না, রুনির খেলার তিনিও একজন ভক্ত৷ তবে ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড তারকার আচরণ তাঁকে হতাশ করেছে৷ অথচ এ খেলার কিছু আগেই ইংলিশ সহঅধিনায়ক ফ্রাঙ্ক ল্যাম্পার্ড শৃঙ্খলা নিয়ে সতীর্থদের বিভিন্ন উপদেশ দিয়েছেন৷ তবে সে সব কথা রুনি যে কানেই তোলেননি, মাঠের ঘটনায় তা স্পষ্ট৷

Flash-Galerie WM-Stars Wayne Rooney

‘‘রুনির মেজাজ যতক্ষণ ঠিক আছে, ততক্ষণই ইংল্যান্ডের আশা থাকবে’’ : ফিল ম্যাকনালটি

এ ধরনের ঘটনা রুনির জন্য অবশ্য নতুন নয়, গত বিশ্বকাপেও পর্তুগালের রিকার্দো কারভালহোকে লাথি মেরে লাল কার্ড দেখেছিলেন তিনি৷ শুধু তাই নয়, সমালোচকরা বলেন, ইংলিশ প্রিমিয়ার লিগে রেফারির সঙ্গে অসদাচরণ করেও রুনি পার পেয়ে যান শুধু তারকা খ্যাতির কল্যাণে৷

তবে বিশ্বকাপে যে তা হবে না, সেটা ল্যাম্পার্ডও ভালোভাবে জানেন৷ তিনি আশা করছেন, মাঠে অন্তত এ ধরনের ঘটনা আর ঘটবে না৷ আগামী শুক্রবারই বিশ্বকাপ ফুটবল মাঠে গড়াচ্ছে৷ ইংল্যান্ডের প্রথম খেলা পরদিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে৷ সি গ্রুপে তাদের সঙ্গে আরও রয়েছে আলজেরিয়া ও স্লোভেনিয়া৷

ইংল্যান্ডের ইতালীয় কোচ ফ্যাবিও কাপেলোর বাজির ঘোড়া হলেন রুনি৷ রুনির আচরণ যে তাঁর কপালের ভাঁজ যে আরও বাড়িয়ে তুলছে, তা ভাবা ভুল হবে না৷ কারণটা জানালেন ব্রিটিশ ক্রীড়ালেখক ফিল ম্যাকনালটি৷ তাঁর ভাষায়, ‘রুনির মেজাজ যতক্ষণ ঠিক আছে, ততক্ষণই ইংল্যান্ডের আশা থাকবে৷ তার এদিক-সেদিক হলে রুনি ডুববে, ডোবাবে দলকেও৷'

প্রতিবেদন: মনিরুল ইসলাম

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

সংশ্লিষ্ট বিষয়