1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

বোলোনিয়ার পাস্তা প্রতিযোগিতা

পোশাক-পরিচ্ছদের সঙ্গে খাবার-দাবারের ক্ষেত্রেও রয়েছে একটি দেশ বা অঞ্চলের নিজস্ব ঐতিহ্য, রীতি৷ ইউরোপের দেশ ইটালিও এর ব্যতিক্রম নয়৷ পিৎসা, পাস্তা, তর্তেলিনি ইটালির জনপ্রিয় এবং ঐতিহ্যবাহী খাবার৷

default

স্প্যাগেটি

ইটালির নানা শহরে ঐতিহ্যবাহী সব খাবার তৈরির প্রতিযোগিতা আয়োজিত হয়৷ ইটালির মানুষরা ভোজন রসিক - সেকথা সবাই জানে৷ খাবার-দাবারের বেলায় তারা বেশ মনোযোগী৷ বিশেষ করে তা যদি হয় পাস্তা, তালিয়াতেলে অথবা তর্তেলিনি তাহলে তো কথাই নেই৷ বোলনিয়া শহর নিজস্ব পাস্তা এবং পাস্তা সসের জন্য জনপ্রিয়৷ এবং সেকারণেই প্রতি বছর বোলোনিয়ায় আয়োজন করা হয় বার্ষিক পাস্তা প্রতিযোগিতার৷ প্রতিযোগিতার নাম গোল্ডেন রোলিং পিন৷ প্রতিযোগীরা আসে সবচেয়ে সুস্বাদু পাস্তা তৈরি করার জন্য৷

Pasta - Tripoline

ত্রিপোলিনে

প্রতিযোগীরা তাদের নির্দিষ্ট পোশাকে অপেক্ষা করছে৷ মাথায় টুপি, টি-সার্ট, অ্যাপ্রন৷ যে যার বাড়ি থেকে বেলুন-পিঁড়ি নিয়ে এসেছে৷ সবাই অপেক্ষা করছে প্রতিযোগিতা শুরু হওয়ার জন্য৷ উচ্ছ্বসিত একজন প্রতিযোগী বললেন, ‘‘আমি গত দশ বছর ধরে নিয়মিত এই প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করছি৷ একবার আমি দ্বিতীয় হয়েছিলাম৷ আমার যখন বিয়ে হয় তখন আমি একটি ডিম-ও সিদ্ধ করতে পারতাম না৷ তবে আমার মনে হয় না আমি এ বছর জিততে পারবো৷ প্রতিযোগীদের সংখ্যা অনেক বেশি এবং তাঁরা বেশ ভাল৷ আমি এই প্রতিযোগিতায় আসি কারণ আমার দারুণ ভাল লাগে৷ আমি ভীষণ আনন্দ পাই৷''

Pasta - Tortellini

তর্তেলিনি

আরেক প্রতিযোগী বললেন, ‘‘আমি গত ১৪ বছর ধরে নিয়মিত অংশগ্রহণ করছি৷ আমার বয়স যখন ১০ তখন থেকেই আমি বাড়িতে নিয়মিত পাস্তা তৈরি করতাম৷ আমার দারুণ লাগে পাস্তা তৈরি করতে৷ এখানে কেউ জিততে আসে না, সবাই বিশেষ কিছু করে দেখাতে চায়৷ কিন্তু কেউ যদি জিতেই যায়, তাহলে আনন্দের মাত্রা হয় দ্বিগুন !''

Pasta - Rotelle

রোতেলে

ইটালীয় ভাষায় প্রতিযোগিতার নাম মাত্তেরেও দোরো - গোল্ডেন রোলিং পিন অথবা সোনালি বেলুন পিঁড়ি৷ গত ২৪ বছর ধরে নিয়মিত এই প্রতিযোগিতার আয়োজন করা হচ্ছে৷ প্রতিযোগিতার মূল লক্ষ্য হল বোলোনিয়ার ঐতিহ্যবাহী পাস্তা খাওয়ার রীতিকে টিকিয়ে রাখা আরো জনপ্রিয় করা৷ বিশেষভাবে তৈরি এই পাস্তার স্থানীয় নাম ‘লা স্ফোগলিয়া'৷ যেসব মহিলা পেশাগতভাবে এই পাস্তা তৈরি করেন তাদের ডাকা হয় ‘স্ফোগলিন' নামে৷

Pasta - Fusilli Con Spinaci

ফুসিলি কন স্পিনাচি

‘‘স্ফোগলিনা এবং পাস্তা খাওয়ার প্রচলন ইতালির অন্যান্য জায়গা থেকে উঠে গেছে৷ শুধু এই এমিলিয়া রোমানিয়া অঞ্চলেই পাস্তা খাওয়ার ঐতিহ্যকে ধরে রাখা হয়েছে,'' কথাগুলো জানালেন আন্দ্রেয়া তেদেশি৷ তিনি ৯০ বছর বয়স্ক ইভো গালেত্তির নাতি৷ ইভো গালেত্তি-ই এই সোনালি বেলুন পিঁড়ি প্রতিযোগিতার প্রথম আয়োজক৷ এখন পর্যন্ত এই প্রতিযোগিতা টিকে রয়েছে৷ প্রতি বছর প্রায় তিনশ' প্রতিযোগী যোগ দেয়৷ আন্দ্রেয়া জানান, ইদানিং কালের জীবনযাত্রা এবং সুপারমার্কেটে তৈরি খাবারের কারণে ঘরে পাস্তা তৈরি করে খাওয়ার প্রবণতা অনেক কমে গেছে৷ তেদেশি আরো জানালেন, ‘‘আমি আশা করছি পাস্তা খাওয়ার এই প্রচলন এবং ঐতিহ্য হারিয়ে যাবে না৷ তবে আশঙ্কার কথা হল প্রতিবছরই প্রতিযোগীদের মধ্যে তরুণ-তরুণীর সংখ্যা ক্রমেই কমে আসছে৷ ''

Pasta - Tagliatelle

তালিয়াতেলে

তবে তার পরেও প্রতিযোগিতায় অংশগ্রহণ করেছিল বেশ কয়েকজন অল্প বয়সি মেয়ে৷ ১৬ বছরের মিনার্দি জানালো, ‘‘আমি এই প্রথমবার প্রতিযোগিতায় এলাম৷ অবশ্য গত কয়েক বছর ধরে আমি বাড়িতেই নিয়মিত পাস্তা বানানো শিখছি৷ আমার কাছে রান্না শেখা অত্যন্ত জরুরি৷ আমি ক্যাটারিং কলেজে পড়াশোনা করছি৷ আর স্ফোগলিয়ার মত সুন্দর জিনিস আর নেই৷ সেজন্যই আমি তা শিখতে চাই৷ ''

Pasta - Gobboni

গোব্বোনি

তবে একটা কথা সত্যি তা হল ইদানিং ঘরে পাস্তা তৈরি করতে শুধুমাত্র বয়স্কদেরই দেখা যায়৷ তরুণ-তরুণীদের মধ্যে আগ্রহ অনেক কম৷ তারা ব্যস্ত অন্য কিছু নিয়ে৷ তাদের সময় কাটে আধুনিক যুগের অত্যাধুনিক প্রযুক্তিকে ঘিরে৷

Pasta - Penne

পেনে

এই প্রতিযোগিতার প্রথম পুরস্কার একটি সোনালি ব্রোচ দেখতে স্ফোগলিয়ার মত এবং একটি নতুন বেলুন পিঁড়ি৷ তবে অংশগ্রহণের জন্য প্রতিটি প্রতিযোগীই পায় একটি ডিপ্লোমা সার্টিফিকেট৷ আর যে সব পাস্তা প্রতিযোগিতার সময় তৈরি হল সেগুলো দিয়ে কি করা হয় ? সেগুলে সোজা চলে যায় স্থানীয় একটি রেস্টুরেন্টে - সুপ তৈরির জন্য৷

প্রতিবেদক : মারিনা জোয়ারদার

সম্পাদক : আবদুল্লাহ আল-ফারূক

সংশ্লিষ্ট বিষয়