1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

বৃষ্টিতে ভিজেছেন জাফর ইকবাল, নিন্দার ঝড়

অধ্যাপক জাফর ইকবাল সিলেট শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ক্যাম্পাসে বসে বৃষ্টিতে ভিজছেন৷ না, উপভোগ নয়৷ শিক্ষকদের উপর ছাত্রলীগের হামলার প্রতিবাদে বসে ছিলেন তিনি৷ ছবিটি হয়ে উঠেছে প্রতিবাদের প্রতীক৷

Muhammed Zafar Iqbal Buchautor aus Bangladesch mit seiner Frau Yasmeen Haque

অধ্যাপক জাফর ইকবাল ও তাঁর স্ত্রী অধ্যাপক ইয়াসমিন হক (ফাইল ফটো)

শাহজালালের ভিসি আমিনুল হকের পদত্যাগের দাবিতে তাঁর কার্যালয় ঘেরাও করতে গিয়েছিলেন একদল শিক্ষক৷ তাদের শান্তিপূর্ণ সেই কর্মসূচির উপর হামলা চালায় বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগের কর্মীরা৷ অভিযোগ উঠেছে, ভিসিই তাদের উসকানি দিয়েছেন৷

রবিবারের সেই ঘটনার পর বিশ্ববিদ্যালয়টির অন্যতম জনপ্রিয় অধ্যাপক জাফর ইকবাল বৃষ্টির মাঝে বসে পড়েন ক্যাম্পাসে৷ ঘটনার আকস্মিকতায় হতবিহ্বল এই অধ্যাপক বলেন, ‘‘এখন আমার গলায় দড়ি দেয়া উচিত৷''

অধ্যাপক ইকবালের বৃষ্টিতে ভেজার ছবি দ্রুতই ছড়িয়ে পড়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে৷ ডয়চে ভেলের দ্য বব্স অ্যাওয়ার্ডজয়ী ব্লগার আরিফ জেবতিক ছবিটি ফেসবুকে শেয়ার করে লিখেছেন, ‘‘ছাত্রলীগের হাতে শাবি শিক্ষকরা লাঞ্ছিত হওয়ার দুঃখে স্তব্ধ হয়ে বসে আছেন মুহম্মদ জাফর ইকবাল স্যার৷ অঝোর বৃষ্টিতে কি স্যারের চোখের জল মিশে যাচ্ছে?''

সাংবাদিক গোলাম মোর্তোজা এই বিষয়ে লিখেছেন, ‘‘একজন শিক্ষক, সম্ভবত বাংলাদেশের সবচেয়ে জনপ্রিয় শিক্ষক ড.জাফর ইকবাল গলায় দড়ি দিয়ে মরতে চাইছেন! ছাত্রলীগ সাধারণ ছাত্র পরিচয়ে অধ্যাপক ইয়াসমিন হকদের লাঞ্ছিত করে বলছে, শিক্ষকরাই ধাক্কাধাক্কি করেছে!! কেউ কেউ ইতিমধ্যে বলছেন, আরও কেউ কেউ বলবেন, শিবির ‘জয় বাংলা' স্লোগান দিয়ে আক্রমণ করে ছাত্রলীগের ওপর দায় চাপাতে চাইছে৷''

তিনি লিখেছেন, ‘‘যারা আক্রমণ করেছে তারা তো প্রায় সবাই পরিচিত, জানা তাদের রাজনৈতিক পরিচয়৷ তারপরও কেন এই কূ-তর্ক?''

শাহবাগ গণজাগরণ মঞ্চের মুখপাত্র ইমরান এইচ সরকার প্রকাশ করেছেন শিক্ষকদের উপর আক্রমণের একটি ছবি ৷ ফেসবুকে রবিবার তিনি লিখেছেন, ‘‘শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয়ে শিক্ষকদের উপর গুণ্ডা লেলিয়ে দেয়া ভিসিকে এখনি অপসারণ করুন৷ যারা শিক্ষকদের গায়ে হাত তোলে তারা কীসের ছাত্র, কীসের ছাত্রলীগ? এই সন্ত্রাসীদের গ্রেফতার করে উপযুক্ত শাস্তি দিন৷ মায়ের পেটের শিশু থেকে শিক্ষক; আপনারা আমাদের আর লজ্জা দিবেন না প্লিজ!''

উল্লেখ্য, বাংলাদেশের বর্তমান শাসকদলের ছাত্র সংগঠন ছাত্রলীগের বিভিন্ন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ড সম্প্রতি ব্যাপক বিতর্কের সৃষ্টি করেছে৷ চলতি মাসে ব়্যাবের সঙ্গে কথিত বন্দুকযুদ্ধে কমপক্ষে দু'জন ছাত্রলীগ নেতা প্রাণ হারিয়েছেন৷

সংকলন: আরাফাতুল ইসলাম

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন

নির্বাচিত প্রতিবেদন