1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

বুড়া বানরের কষ্টে হৃদয় ভাঙলো পামেলার

সাবেক ‘বেওয়াচ’ তারকা পামেলা এন্ডারসন৷ এবার অন্য ধরনের এক আর্জি নিয়ে হাজির হলেন৷ আর্জি জানিয়েছেন, ভারতের শীর্ষ চিকিৎসা সংস্থার বিজ্ঞান গবেষণাগারে আর যেনো বুড়ো বানরদের ব্যবহার করা না হয়৷

default

পামেলা এন্ডারসন

পশু অধিকার রক্ষায় কাজ করে ‘পেটা ইন্ডিয়া'৷ আর এই সংস্থাটি জানিয়েছে পামেলার এই কথা৷ হলিউডের এই অভিনেত্রী বলেছেন, তিনি ‘অল ইন্ডিয়া ইন্সটিটিউট অফ মেডিকেল সায়েন্স' বা এআইআইএমএস এর একটি ভিডিও চিত্র দেখেছেন৷ যেখানে দেখতে পেয়েছেন অসুস্থ বানর এবং খরগোশদের খাঁচায় বন্দি করে রাখা হয়েছে৷ তিনি বলেন, এদের মধ্যে এমনও বানর রয়েছে যেসব বানর ২০ বছর ধরে এভাবে বন্দি রয়েছে৷

Flash-Galerie Rhesusaffe Nahaufnahme

এরপর ‘পিপল ফর এথিকল ট্রিটমেন্ট অফ এনিমেলস' বা পেটা'র পক্ষ থেকে এআইআইএমএস এর পরিচালক আর সি ডেকা কে একটি চিঠি লিখেছেন পামেলা৷ যেখানে বলেছেন, ‘‘এদের কষ্ট দেখে আমার বুক ভেঙে গেছে৷''

পামেলা বলেন, বছরের পর বছর ধরে বন্দি থাকার কারণে এইসব প্রাণীদের প্রতিটি দিন দুঃসহ হয়ে উঠছে৷ অন্তত, যেসব বানর বুড়ো হয়ে গেছে তাদেরকে মুক্তি দেওয়ার জন্য ডেকাকে অনুরোধ করেছেন পামেলা৷ তবে এআইআইএমএস এর মুখপাত্র ওয়াই কে গুপ্ত ভারতের পত্রিকা ‘দ্য টাইমস অফ ইন্ডিয়া'কে বলেছেন, তাদের সংস্থা পামেলা এন্ডারসনের কাছ থেকে কোনো চিঠি পাননি৷ এবং ভারতের আইন অনুসারেই তাদের গবেষণা কাজ পরিচালনা হয়ে আসছে৷ তাছাড়া গবেষণা কাজে কোনো প্রাণীকে ৩ বছর ব্যবহার করা হলেই সংস্থাটি তাদের পুনর্বাসনের ব্যবস্থাও করে থাকে৷

প্রতিবেদন: জান্নাতুল ফেরদৌস

সম্পাদনা: আরাফাতুল ইসলাম

সংশ্লিষ্ট বিষয়