1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

বুন্ডেসলিগায় ১৩৪তম গোলের রেকর্ড ভিনদেশি তারকা পিজারোর

শালকের দুঃখ ঘুঁচলনা এখনও৷ বুন্ডেসলিগার চলতি মৌসুমটা বেশ খারাপভাবেই শুরু করেছে শালকে৷ আর সেই টানাপোড়েনের মধ্যেই গোলশূন্য ড্র হলো শালকে এবং আইনট্রাক্ট ফ্রাঙ্কফুর্টের মধ্যকার শনিবারের খেলা৷

বোরুসিয়া, ম্যোনশেনগ্লাডবাখ, ভের্ডা ব্রেমেন, বুন্ডেসলিগা, পিজারো, Bundesliga, Pizzaro, Bremen, Werder,

গত মৌসুমের রানার্স-আপ শালকে এপর্যন্ত মাত্র ছয় পয়েন্ট নিয়ে জার্মান লিগের ১৫তম অবস্থানে রয়েছে৷ গত চারটি খেলার তিনটিতেই ড্র করেছে তারা৷ আর একটিতে হার৷ তবুও হাসি দেখা গেছে কোচ ফেলিক্স মাগাথের মুখে৷ কারণটা আর কিছু নয়, কমপক্ষে আজ আরেকটি পয়েন্ট হারাতে হয়নি সেদিক থেকেই আমরা ভাগ্যবান, বললেন মাগাথ৷ তিনি বলেন, ‘‘আমরা আসলে বেশ দীর্ঘদিন ধরেই খুঁড়িয়ে চলছি৷ এই খেলায় আমি কখনই সন্তুষ্ট নই৷''

এদিকে, বোরুসিয়া ম্যোনশেনগ্লাডবাখকে ৪-১ গোলে ধরাশায়ী করল ভের্ডা ব্রেমেন৷ মাত্র পাঁচ মিনিটেই এগিয়ে যায় ভের্ডা ব্রেমেন, সাবেক গ্লাডবাখ তারকা মার্কো মারিনের গোলে৷ সাত মিনিট পরে ব্যবধান বাড়ান ব্রাজিলীয় তারকা ওয়েজলি৷ ৫১ মিনিটে তৃতীয় গোল করেন জার্মান জাতীয় দলের খেলোয়াড় আরন হুন্ট৷ ৬৭ মিনিটে জার্মান রক্ষণভাগের খেলোয়াড় পের মের্টেজাকেরের পায়ে লেগে নিজেদের নেটে জড়িয়ে যায় বল৷ ফলে ব্যবধান একটু কমে আসে৷ তবে পেরু স্ট্রাইকার ক্লডিও পিজারোর ৭৫ মিনিটের গোল তিন গোলের ব্যবধানে বিজয় এনে দেয় ব্রেমেনকে৷

আর শনিবার শেষ মুহূর্তের গোলের মধ্য দিয়ে একটি রেকর্ড গড়েন পিজারো৷ জার্মান ফুটবল লিগে এটি ছিল পিজারোর ১৩৪তম গোল৷ ফলে এই লিগের ইতিহাসে পিজারোই একমাত্র বিদেশি খেলোয়াড় যিনি এতো বেশি গোল করার কৃতিত্ব অর্জন করলেন৷ ৩২ বছর বয়সি পিজারো সমধিক পরিচিত ‘আন্ডেয়ান বোমারু' হিসেবে৷ পিজারোর আগে ১৯৯৪ থেকে ২০০৩ পর্যন্ত সময়ে বায়ার্ন মিউনিখ এবং স্টুটগার্টের হয়ে ১৩৩টি গোল করেছিলেন ব্রাজিলীয় তারকা জিওভানি এলবার৷ শনিবার এলবারের সেই রেকর্ড ছাড়িয়ে গেলেন পিজারো৷ উল্লেখ্য, ১৯৯৯ সালে প্রথম ব্রেমেনের হয়ে বুন্ডেসলিগার মাঠে নেমেছিলেন পিজারো৷ ২০০১ থেকে টানা ছয়টি মৌসুম খেলেছেন বায়ার্ন মিউনিখের পক্ষে৷ ২০০৮ সাল থেকে আবারও ব্রেমেনের ঘরে রয়েছেন তিনি৷

দিনের অপর খেলাগুলোতে ফ্রাইবুর্গ ২-১ গোলে হারিয়েছে কাইজারলাউটার্নকে৷ কোলনকে ২-১ গোলে হারালো হানোফার৷ এছাড়া ভোল্ফসবুর্গ ২-১ গোলে হেরেছে ন্যুরেমব্যার্গের কাছে৷

প্রতিবেদন: হোসাইন আব্দুল হাই

সম্পাদনা: আরাফাতুল ইসলাম

নির্বাচিত প্রতিবেদন