1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

বিয়ে নিয়ে যত আয়োজন

বিয়ে নিয়ে চালু রয়েছে নানারকম রীতিনীতি এবং প্রথা৷ যদিও যুগের সঙ্গে সঙ্গে কিছু কিছু প্রথায় এসেছে পরিবর্তন, তারপরও বিয়ে নিয়ে এখনও রয়ে গেছে ঐতিহ্যগত বিভিন্ন আচার-অনুষ্ঠান৷

default

কোথাওবা চাল ছিটিয়ে আবার কোথাওবা দু'জন মিলে কেক কেটে নবদম্পতি প্রবেশ করে নতুন জীবনে৷ কিন্তু কোথা থেকে এলো এইসব রীতিনীতি? আর কেনইবা এতোসব আয়োজন?

প্রথাগত এইসব আচার-অনুষ্ঠানের বেশিরভাগেরই কিন্তু রয়েছে কোন না কোন অর্থ৷ যেমন যে নারী কনের ছোঁড়া ফুলের তোড়াটি ধরতে পারবেন বলা হয়, অচিরেই তাঁর বিয়ে হবে৷ এই প্রসঙ্গে বার্লিনের ‘ওয়েডিং প্ল্যানার' বা বিয়ে পরিকল্পনাবিদ আলেক্সান্ড্রা ডিওনিসিও বলেন, আজকাল এইসব অনেক রীতিনীতির প্রকৃত অর্থ হারিয়ে যাচ্ছে৷

আলেক্সান্ড্রা আজ জানেন, কেন বিয়ের বেদিতে কনে সবসময় বাম দিকে থাকেন৷ তিনি বলেন, এটা সেই যুগ থেকে এসেছে, যখন পুরুষরা সঙ্গে তলোয়ার রাখতো৷ স্ত্রীকে রক্ষা করার দায়িত্ব ছিলো তাদের উপর৷ এবং সেই কাজটি ডান হাতেই তাদেরকে করতে হতো৷ এমনকি যে সময়ে স্বামীর সঙ্গে

Flash-Galerie Duisburg Marxloh

জার্মানির ডুইসবুর্গে একটি তুর্কি বিয়ের পোশাকের দোকান

তলোয়ার থাকতোনা, তখনও স্ত্রীর জায়গা স্বামীর বাম পাশেই মনে করা হতো৷

পৃথিবীর অনেক দেশে এখনও বিশ্বাস করা হয়, বিয়ের অনুষ্ঠানের আগেই যদি বর বিয়ের পোশাক পরা অবস্থায় কনেকে দেখতে পান, তাহলে সেটা তাদের জন্য দুর্ভাগ্য ডেকে আনবে৷ কোথাও আবার বিয়ের অনুষ্ঠানের পর আমন্ত্রিত অতিথিরা চাল ছিটিয়ে নব-দম্পতিকে আশীর্বাদ করেন৷ ভবিষ্যতে তাঁদের সন্তান কামনা করে এই কাজটি করা হয়৷

বিয়ে নিয়ে বই লিখেছেন লেখক বিরগিট আডাম৷ বিয়ের অনুষ্ঠানে শিশুদের ফুল ছিটানোও অনেকটা একই অর্থ বহন করে বলে মন্তব্য আডামের৷ ভবিষ্যতে নব-দম্পতির আর্থিক অবস্থারও ইঙ্গিত দেওয়া হয় বিয়ের বিভিন্ন প্রথার মধ্য দিয়ে৷ আডাম বলেন, কনে তাঁর ডান পায়ের জুতার মধ্যে যদি এক পেনি বা পয়সা রাখেন, তা সারা জীবনের আর্থিক সমৃদ্ধি নিয়ে আসে – প্রচলিত এমন একটি ধারণাও রয়েছে৷

প্রতিবেদন: জান্নাতুল ফেরদৌস

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন