1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

বিশ্বকাপে জার্মানির প্রাথমিক দল ঘোষণা করলেন ল্যোভ

প্রথম ৩০ জনের এই দলে অভিজ্ঞ স্ট্রাইকার মারিও গোমেজ নেই; নেই রেনে আডলারের মতো অভিজ্ঞ গোলকিপার৷ অপরদিকে শালকের লিওন গোরেটৎস্কা বা হফেনহাইমের কেভিন ফোলান্ডকে দলে রেখেছেন জার্মান কোচ ইওয়াখিম ল্যোভ৷

এই ‘প্রভিশনাল স্কোয়াড' থেকেও কমে ২৫ অথবা ২৬ জন প্লেয়ার বাকি থাকবে আগামী সপ্তাহে পোল্যান্ডের বিরুদ্ধে ফ্রেন্ডলির পর৷ চূড়ান্ত ২৩ জন প্লেয়ারের দল পেশ করার শেষ তারিখ হলো ২রা জুন৷

বৃহস্পতিবার ল্যোভ যে দলের নামকরণ করলেন, তা দেখলে প্রথমেই চোখে পড়ে: ল্যোভ একাধিক অভিজ্ঞ, বাঁধা খেলোয়াড়কে বাদ দিয়ে অপেক্ষাকৃত অপরিচিত প্লেয়ারদের দলে এনেছেন, যেমন জেনোয়ার ডিফেন্ডার স্কোদ্রান মুস্তাফি, ফ্রাইবুর্গের মিডফিল্ডার মাথিয়াস গিন্টার ও ডর্টমুন্ডের ডিফেন্ডার এরিক ডুর্ম৷

ল্যোভ কাকে বাদ দিলেন, তা বলতে হলে প্রথমেই ফিওরেন্তিনার স্ট্রাইকার মারিও গোমেজের নাম করতে হয়৷ ওদিকে ল্যোভ যে দু'জন নামি-দামি গোলরক্ষককে সঙ্গে নিচ্ছেন না, তারা হলেন মোয়েনশেনগ্লাডবাখের মার্ক-অন্দ্রে টের স্টেগেন ও সাবেক জার্মান গোলকিপার রেনে আডলার৷ বৃহস্পতিবার ল্যোভ নিজেই বলেন যে, তিনি মিডফিল্ডার সামি খেদিরার ক্ষেত্রে একটি ব্যতিক্রম করছেন, যদিও খেদিরা গত নভেম্বর মাসে হাঁটুর অস্ত্রোপচারের পর আর রেয়াল মাদ্রিদের হয়ে মাঠে নামেননি৷

সামি খেদিরার মতো লাৎসিও রোমের মিরোস্লাভ ক্লোজে-ও ইনজুরির পর আর টপ ফর্মে নেই৷ কিন্তু তা সত্ত্বেও ক্লোজেকে দলে রেখেছেন ল্যোভ৷ এটা হবে ক্লোজের চতুর্থ বিশ্বকাপ৷ ক্লোজেকে দলে রাখার কারণ আর খেদিরাকে বাদ না দেওয়ার কারণ সম্ভবত এক: মনোনয়নের মুখ্য শর্ত ছিল ‘‘ফর্ম এবং ফিটনেস'', বলেছেন ল্যোভ৷ কিন্তু খেদিরাকে চোট সত্ত্বেও রাখা হয়েছে তাঁর ‘‘ব্যক্তিত্ব ও অভিজ্ঞতার'' কারণে৷

FIFA 2014 WM Maskottchen

ব্রাজিল বিশ্বকাপের মাস্কট ফুলেকো

অপরদিকে শালকের গোরেটৎস্কা ও ম্যাক্স মায়ারের বয়স যথাক্রমে ১৯ এবং ১৮৷ এভাবেই দলে তরতাজা তারুণ্য মিশিয়েছেন ল্যোভ, ২০১০ সালে দক্ষিণ আফ্রিকার বিশ্বকাপেও তিনি যেটা করেছিলেন৷ সেটা ছিল ৭৬ বছর পরে জার্মানির তরুণতম বিশ্বকাপ দল৷ তবে এবার ল্যোভের প্রথম দুশ্চিন্তা হয় ইনজুরি নিয়ে, যেমন প্লে-মেকার বাস্টিয়ান শোয়াইনস্টাইগারের ইনজুরি৷

বুধবার ল্যোভ ‘স্ট্যার্ন' পত্রিকাকে বলেন: ‘‘আপাতত আমাদের মাত্র সাত বা আটজন প্লেয়ার আছে, যারা টপ ফর্মে রয়েছে৷'' ল্যোভ নিজেই ফিরিস্তি দিয়েছেন: ‘‘ক্লোজে, খেদিরা, গোমেজ, গুইন্ডোয়ান, শোয়াইনস্টাইগার, এরা সবাই আমাদের দলের খুঁটি বলা চলে, কিন্তু সকলেরই ম্যাচ প্র্যাকটিসের অভাব৷''

কথাটা সত্যি৷ খেদিরা গতবছর একটি লিগামেন্ট ছেঁড়েন; গুইন্ডোয়ান পিঠে চোট পেয়ে গতবছরের অগাস্ট মাস যাবৎ খেলেননি – শোয়াইনস্টাইগার আর গোমেজের কথা তো আগেই বলা হয়েছে৷ ডর্টমুন্ডের সোয়েন বেন্ডার এবং শালকের বেনেডিক্ট হোয়ভেডেজ বেশ কয়েক সপ্তাহ ধরে ইনজিওর্ড থাকার পর হয়ত এই শনিবার মাঠে ফিরবেন৷ সেই সঙ্গে হামবুর্গের মার্সেল ইয়ানসেনকে যোগ করলে ল্যোভের প্রায় ট্যাঁক খালি! খোদ মেসুত ওয়েজিল আর্সেনালে এ মরশুমে বিশেষ ঝলসে উঠতে পারেননি – সদ্য পিঠের চোট থেকে সেরে উঠছেন ওয়েজিল৷ বায়ার্ন মিউনিখের টোনি ক্রোস আর জেরোম বোয়াটেংর ফর্মও বিশেষ ভালো যাচ্ছে না৷ সব মিলিয়ে ল্যোভ আপাতত যে টিম করেছেন, তা হলো:

গোলে (৩ জন মনোনীত): মানুয়েল নয়ার (বায়ার্ন মিউনিখ); রোমান ভাইডেনফেলার (ডর্টমুন্ড); রন-রবার্ট জিলার (হ্যানোভার)৷

ডিফেন্সে (১০ জন মনোনীত): জেরোম বোয়াটেং (বায়ার্ন); এরিক ডুর্ম (ডর্টমুন্ড); কেভিন গ্রোসক্রয়েৎস (ডর্টমুন্ড); বেনেডিক্ট হোয়ভেডেজ (শালকে); মাট্স হুমেল্স (ডর্টমুন্ড); মার্সেল ইয়ানসেন (হামবুর্গ); ফিলিপ লাম (বায়ার্ন); পের মের্টেসাকার (আর্সেনাল); শ্ক্রোদান মুস্তাফি (সাম্পদোরিয়া জেনোয়া); মার্সেল স্মেলৎসার (ডর্টমুন্ড)৷

মিডফিল্ডে (১৫ জন মনোনীত): লার্স বেন্ডার (লেভারকুজেন); ইউলিয়ান ড্রাক্সলার (শালকে); মাথিয়াস গিন্টার (ফ্রাইবুর্গ); লেওন গোরেটৎস্কা (শালকে); মারিও গোয়েটৎসে (বায়ার্ন); আন্ড্রো হান (আউগ্সবুর্গ); সামি খেদিরা (রেয়াল মাদ্রিদ); টোনি ক্রোস (বায়ার্ন); মাক্স মায়ার (শালকে); টোমাস ম্যুলার (বায়ার্ন); মেসুত ওয়েজিল (আর্সেনাল); লুকাস পোডোলস্কি (আর্সেনাল); মার্কো রয়েস (ডর্টমুন্ড); আন্ড্রে শুর্লে (চেলসি); বাস্টিয়ান শোয়াইনস্টাইগার (বায়ার্ন)৷

ফরোয়ার্ডে (২ জন মনোনীত): মিরোস্লাভ ক্লোজে (লাৎসিও রোম); কেভিন ফোলান্ড (হফেনহাইম)৷

এসি/ডিজি (এএফপি, এপি, ডিপিএ, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়