1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

বিশ্বকাপের বাজিকরদের ঠেকাতে বদ্ধপরিকর বাংলাদেশ

বিশ্বকাপ ক্রিকেটের সঙ্গে সম্পৃক্ত কারো সঙ্গে যাতে বাজিকররা কোনোভাবেই মুখোমুখি হওয়ার সুযোগ না পায়, তার জন্য বিশেষ নজরদারি শুরু করেছে বাংলাদেশ৷

default

স্থানীয় এবং আন্তর্জাতিক বাজিকররা বিশ্বকাপের সঙ্গে সম্পৃক্ত কর্মকর্তা এবং খেলোয়াড়দের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করছে – গোয়েন্দাদের কাছ থেকে এমন ইঙ্গিত পাওয়ার পর এই বিষয়টির উপর যথেষ্ট সজাগ দৃষ্টি রাখা হচ্ছে৷ বার্তা সংস্থা রয়টার্সকে বুধবার একথা জানিয়েছে বাংলাদেশ পুলিশ৷

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পুলিশের একজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা বলেছেন, আন্তর্জাতিক বাজিকরদের প্রতিনিধি হিসেবে কাজ করতে পারে, দেশের মধ্যে এমন কয়েকজনকে সন্দেহ করা হচ্ছে৷ এবং তাদের উপর বিশেষ নজরদারির পাশাপাশি তারা যাতে কোনোভাবেই খেলোয়াড় এবং ক্রীড়া কর্মকর্তাদের সংস্পর্শে আসতে না পারে সেজন্য ব্যবস্থা গ্রহণ করা হচ্ছে৷

গত কয়েক বছর ধরে দেখা যাচ্ছে, ক্রিকেটের সঙ্গে বাজিকররা আলাদাভাবে একটা সম্পর্ক গড়ার চেষ্টা করছে৷ যার ফলে পাতানো ম্যাচের মতো বিষয়গুলি ঘটছে৷ সম্প্রতি ইংল্যান্ডের সঙ্গে একটি পাতানো ম্যাচের অভিযোগে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল বা আইসিসি পাকিস্তানের খেলোয়াড় মোহাম্মদ আসিফ, মোহাম্মদ আমির আলী এবং সালমান বাটকে পাঁচ বছরের জন্য নিষিদ্ধ করেছে৷

খেলা নিয়ে জুয়া এবং বাজি ধরা বাংলাদেশে নিষিদ্ধ৷ স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী শামসুল হক টুকু গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, বিশ্বকাপে যাতে পাতানো ম্যাচ খেলার মতো কোনো বিষয় না ঘটে, সেজন্য ইতোমধ্যেই সন্দেহের তালিকায় রয়েছে, এমন বাজিকরদের বাংলাদেশে প্রবেশ করার অনুমতি দেওয়া হবেনা৷

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড বা বিসিবি'র সঙ্গে বৈঠকের পর প্রতিমন্ত্রী একথা জানান৷ তিনি বলেন, আন্তর্জাতিক ক্রিকেট কাউন্সিল ইতোমধ্যে ২৫ জন বাজিকরের ছবি এবং পাসপোর্ট নম্বর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠিয়েছে৷

প্রতিবেদন: জান্নাতুল ফেরদৌস

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন