1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

বিশ্বকাপের উদ্বোধনী আগামিকাল

আগামীকাল বৃহস্পতিবার উদ্বোধন হচ্ছে আইসিসি বিশ্বকাপ ২০১১৷ একে ঘিরে মোটামুটি সব প্রস্তুতি শেষ৷ বাংলাদেশের ইতিহাসে এই বড় আয়োজন নিয়ে তাই সরকার এবং বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের পাশাপাশি সাধারণ মানুষের আগ্রহের কমতি নেই৷

default

এবারের বিশ্বকাপ বাংলাদেশের জন্য একেবকারেই অন্যরকমের৷ ভারত ও শ্রীলংকার পাশাপাশি বাংলাদেশ এই প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপের আয়োজক দেশ৷ তার উপর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান হতে যাচ্ছে বাংলাদেশে৷ তাই ১৭ ফেব্রুয়ারি বিকেলে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে সেই উদ্বোধনের অপেক্ষায় রয়েছে বাংলাদেশ৷

কেবল আন্তর্জাতিক মানের উদ্বোধনীঅনুষ্ঠানের প্রস্তুতিই নেওয়া হয়নি, বিশ্বকাপকে ঘিরে রাজধানী ঢাকা এবং বন্দরনগরী চট্টগ্রামে পড়ে গেছে সাজ সাজ রব৷ বেশ কিছুদিন আগে থেকেই ঢাকা শহরে শুরু হয়েছে পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান৷ খেলোয়াড় এবং আগত দর্শকদের মশার হাত থেতে রক্ষা করতে চালানো হয়েছে মশা নিধন অভিযান৷ পর্যটকদের কাছে যাতে দেশের ভাবমূর্তি নষ্ট না হয় সেজন্য ঢাকা ও চট্টগ্রামের রাজপথ থেকে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে ভিক্ষুকদের৷

বিশ্বকাপের জন্য অতিরিক্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা থাকলেও তা যথেষ্ট নয় মনে করছেন অনেকেই৷ তবে কর্তৃপক্ষ বলছেন, প্রস্তুতি ম্যাচ উপলক্ষ্যে তেমন একটা নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া না হলেও মূল ম্যাচে নিরাপত্তা নিয়ে কোনো সমস্যা হবেনা৷

কাল উদ্বোধন হলেও ১৯ ফেব্রুয়ারি মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে বিশ্বকাপের প্রথম ম্যাচে মুখোমুখি হবে ভারত এবং বাংলাদেশ৷ একটি কোয়ার্টার ফাইনালসহ মোট আটটি খেলা অনুষ্ঠিত হবে বাংলাদেশে৷ আগামীকাল উদ্বোধনের দিন এবং ১৯ ফেব্রুয়ারি ও ১৯ মার্চ বাংলাদেশের খেলার এই দুই দিনে ঢাকা শহরের সব স্কুল বন্ধ ঘোষণা করা হয়েছে৷ ১৯ মার্চ বাংলাদেশ খেলবে দক্ষিণ আফ্রিকার সঙ্গে৷

প্রতিবেদন: জান্নাতুল ফেরদৌস

সম্পাদনা: সুপ্রিয় বন্দোপাধ্যায়

সংশ্লিষ্ট বিষয়