1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

বিমান রহস্য সমাধানে আশার আলো

নিখোঁজ মালয়েশীয় বিমানের খোঁজে চীন ও অস্ট্রেলিয়ার তল্লাশি জাহাজ ভারত মহাসাগরের দুটি ভিন্ন জায়গা থেকে শব্দ সংকেত পেয়েছে৷ এগুলোর কোনো একটি হারিয়ে যাওয়া বিমানটির ব্ল্যাক বক্স থেকে এসেছে কিনা তা নির্ধারণের চেষ্টা চলছে৷

default

হারিয়ে যাওয়া বিমানের সন্ধান চলছে

সোমবার পার্থ শহরে এক সংবাদ সম্মেলনে তল্লাশি অভিযান সমন্বয়কারী অস্ট্রেলীয় কর্তৃপক্ষের প্রধান অবসরপ্রাপ্ত এয়ার চিফ মার্শাল অ্যানগাস হিউস্টন বলেছেন, ‘‘অস্ট্রেলিয়ার নৌবাহিনীর একটি জাহাজ সমুদ্রের তলদেশে নতুন সংকেত পেয়েছে৷ পার্থের ১,৬৮০ কিলোমিটার উত্তর-পশ্চিমে এই সংকেত পাওয়া গেছে৷ গত ২৪ ঘণ্টায় যে সব তথ্য পাওয়া গেছে তা চাঞ্চল্যকর৷ এক সপ্তাহ আগে যে পরিস্থিতি ছিল, এখন আমি তার চেয়ে অনেক আশাবাদী৷ এখন আমরা জানি ঠিক কোন স্থানটিতে অনুসন্ধান চালাতে হবে৷''

MH370 Suche Ocean Shield

এই সেই জাহাজ যেটি নতুন সংকেত পেয়েছে

নিখোঁজ বিমানটির ব্ল্যাক বক্সটি খুঁজে পাওয়া গেলে বিমান রহস্যের অনেকটা কিনারা হবে বলে মনে করছেন তদন্তকারীরা৷ হারিয়ে যাওয়া বিমানটি তল্লাশির ক্ষেত্রে এটাকে সবচেয়ে বড় সূত্র বলে মনে করছেন তারা৷

হিউস্টন জানান, সংকেত ধরে যেতে যেতে যখন দেখা যাবে এমন একটা স্থান থেকে সংকেত আসছে যেখানে জাহাজ যেতে পারে না, সেখানে ব্লুফিন ২১ নামে একটি যান সমুদ্রের তলদেশে পাঠানো হবে, যেটি বক্সটি ঠিক কোথায় আছে সে সম্পর্কে স্পষ্ট তথ্য দেবে৷ তিনি আরো জানান, এখন পর্যন্ত যেসব তথ্য পেয়েছেন তাতে জানা গেছে তল্লাশি এলাকাটি ৪.৫ কিলোমিটার গভীর, যা ব্লুফিনের আওতার মধ্যে৷

হিউস্টন বলেন যেহেতু বিমানটি হারিয়ে যাওয়ার এক মাস পূর্ণ হতে চলেছে৷ তাই ব্ল্যাক বক্সের চার্জ যে কোনো মুহূর্তে চলে যাওয়ার আশঙ্কা আছে৷ এ কারণে তল্লাশিতে তড়িঘড়ি করছেন দায়িত্বরত কর্মকর্তারা৷ তবে হিউস্টন এটাও বলেন, ব্ল্যাক বক্সটা খুঁজে পাওয়ার সাথে সাথে যে তল্লাশিতে বিরতি দেয়া হবে এমনটা নয়৷ তারা বিমানটির সন্ধানে তল্লাশি অব্যাহত রাখবেন৷

সমুদ্র তলদেশের ধ্বনি বিশেষজ্ঞ অ্যালেক ডানকান বলেছেন, ‘‘এই সংকেত তল্লাশির ক্ষেত্রে একটা গুরুত্বপূর্ণ সূত্র, কিন্তু ব্ল্যাক বক্সটি পাওয়া গেলেই যে আশপাশে বিমানটির ধ্বংসাবশেষ পাওয়া যাবে তা নিশ্চিত করে বলার উপায় নেই৷''

এর আগে, শুক্রবার ও শনিবার ভারত মহাসাগরে টহল দেয়ার সময় হাইসুন ০১ নামের চীনের একটি জাহাজ পার্থের পশ্চিমের মহাসাগর থেকে দুইবার ক্ষীণ ‘পিং' শব্দ সংকেত পায়৷ ঐ এলাকায় এরই মধ্যে আরো বিমান ও জাহাজ পাঠানো হয়েছে৷ অন্যদিকে, অস্ট্রেলিয়ার এইচএমএএস ওশেন শিল্ড জাহাজ থেকে যে সংকেত পাওয়া গেছে, তা চীনা জাহাজ থেকে পাওয়া সংকেতের ৩শ' নটিক্যাল মাইল দূরের একটি জায়গা৷ হাইসুন ০১-র ব্ল্যাক বক্স শনাক্তকারী যন্ত্র প্রতি সেকেন্ডে ৩৭ দশমিক ৫ কিলোহারৎস যে সঙ্কেত পেয়েছে তা একটি বিমানের রেকর্ডার থেকে নিঃসরিত সংকেতের সমান মাপের৷ অস্ট্রেলীয় তল্লাশি কর্তৃপক্ষ বলছে, ব্ল্যাক বক্সের সংকেতের সঙ্গে এই সংকেতের মিল রয়েছে৷

৯টি সামরিক বিমান, তিনটি বেসামরিক বিমান এবং ১৪টি জাহাজ পার্থ-এর উত্তর-পশ্চিমাঞ্চলের প্রায় ২০০০ কিলোমিটার এলাকায় তল্লাশি চালাচ্ছে৷ ঠিক এক মাস আগে ২৩৯ জন আরোহী নিয়ে কুয়ালালামপুর থেকে বেইজিং যাওয়ার পথে নিখোঁজ হয় ফ্লাইট এমএইচ৩৭০৷ ধারণা করা হচ্ছে, বিমানটি ভারত মহাসাগরের দক্ষিণ অংশে বিধ্বস্ত হয়েছে৷

এপিবি/এসবি (এপি, এএফপি, ডিপিএ, রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন