1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

বিমানবন্দরে বডিস্ক্যানিং

সন্ত্রাসীদের হামলা প্রতিরোধ করতে ইউরোপীয় ইউনিয়নের সদস্যদেশগুলো হাতে নিয়েছে বিমানবন্দরগুলোতে কঠোর নিরাপত্তার ব্যবস্থা৷ বডিস্ক্যানিং তারই অংশ৷

default

বডি স্ক্যানারে এভাবেই দেখা হবে সবাইকে

ইউরোপীয় ইউনিয়নের সন্ত্রাস দমন বিষয় নিয়ে কাজ করছেন জ়িল দো ক্যারশভ৷ তিনি জানালেন, শুধু যান্ত্রিক কলাকৌশল নয় বিমানবন্দরের নিরাপত্তার সঙ্গে আরো অনেক কিছু জড়িত৷ আমাদের আরো কিছু পদক্ষেপ গ্রহণ করতে হবে যার মধ্যে রয়েছে বিভিন্ন ধরণের ডেটা সংগ্রহ, পি এন আর ডেটা৷ আরো রয়েছে পুলিশ ইনফরমেশন, ইন্টেলিজেন্স বিষয়ক তথ্য৷ যেমন ধরা যাক, কারো পাসপোর্ট হারিয়ে গেল বা চুরি হয়ে গেল, কে ভিসা পেয়েছে বা কার ভিসা প্রত্যাখান করা হয়েছে সেসব৷

জার্মানিতে পুলিশ ইউনিয়ন নিরাপত্তার এসব কলাকৌশল প্রসঙ্গে সমালোচনা করেছে৷ পুলিশ ইউনিয়নের প্রধান ইয়োজেফ শয়রিং জানান, ১১ই সেপ্টেম্বর সন্ত্রাসী হামলার পর নিরাপত্তার পুরো ব্যবস্থাকে কয়েক ধাপ এগিয়ে নিয়ে যাওয়া হয়েছে৷ বিশেষ করে বিমানবন্দর, বিমানযাত্রী, প্লেন - সবকিছুই৷ বেশ বড় ধরণের পার্থক্য চোখে পড়বে৷ এয়ার সিকিউরিটির পুরো বিষয়টি হচ্ছে সবচেয়ে স্পর্শকাতর জায়গা৷ এর সঙ্গে জড়িত সামাজিক পদক্ষেপগুলির স্তর নেমে গেছে অনেকাংশে৷ কাজের যে ধরণের মান দাবি করা হয় সে তুলনায় পারিশ্রমিক খুবই কম৷ পুরো ব্যবস্থাই গোলমেলে৷ কাজের সঙ্গে মানুষের বা তার লক্ষ্যের কোন মিল এখানে নেই৷

Newark - Sicherheitspanne Flughafen

নিরাপত্তার বেড়াজালে আটকে পড়া যাত্রী

পুলিশ ইউনিয়ন জোর দিচ্ছে দক্ষ এবং যোগ্য কর্মীর৷ যাদের ট্রেনিং দিয়ে নিরাপত্তার বিষয়ে আরো দক্ষ করা যেতে পারে, যাদের বিমানবন্দরে নিয়োগ করা যেতে পারে৷ জার্মান সংসদ সদস্য আলেকজান্ডার আলভারোর মতে নিরাপত্তা নিশ্চিত করার বিষয়ে ইউরোপীয় ইউনিয়ন বেশ ধীর গতিতে এগিয়ে যাচ্ছে৷ তিনি বললেন, ২০০১ সালের সন্ত্রাসী হামলার পর থেকেই আমরা এ নিয়ে কাজ করছি কিন্তু কোন এক জায়গায় এসে আটকে যাচ্ছি৷ সমস্যা সেখানেই৷ এর অর্থ হল ১০ বছর ধরে যে কাজ করা হচ্ছে তাতে কোন না কোন ঝামেলা হচ্ছে৷ ডেটা সংগ্রহ এবং তা নিরাপত্তা ব্যবস্থায় পাঠানো, সে অনুযায়ী কাজ করা হয়নি৷ এই কাজটি অনেক সমস্যার সমাধান করে৷ অবশ্যই এর সঙ্গে আমলাতান্ত্রিকতার প্রশ্ন জড়িত৷

জার্মানির ল্যুবেক শহরে রয়েছে ফেডারেল পুলিশ একাডেমি৷ বিমানবন্দরে যে সব বডিস্ক্যানার বসানো হবে সেগুলো পরীক্ষা করে দেখা হচ্ছে ল্যুবেকে৷ ফ্রাঙ্কফুর্ট, বার্লিন, মিউনিখের বিমানবন্দরগুলোতে বসানো হবে এসব স্ক্যানার৷ এসব স্ক্যানার যেন কোন অবস্থাতেই মানব দেহের ক্ষতি না করে, ব্যক্তি অধিকারে হস্তক্ষেপ না করে সেদিকে সতর্ক দৃষ্টি রাখার ওপর জোড় দিচ্ছে ফেডারেল পুলিশ ইউনিয়ন৷ জার্মান স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী থোমাস দেমেজিয়ের এ প্রসঙ্গে জানান, আমরা পরীক্ষা করে দেখছি, স্ক্যানারটিকে কৌশলগতভাবে আরো একধাপ এগিয়ে নিয়ে যাওয়া যায় কিনা৷ অর্থাৎ ব্যবস্থাটা পরবর্তী প্রজন্মের স্ক্যানারে উন্নীত করার চেষ্টা করা হচ্ছে৷ এর ফলে স্ক্যানারটি মানব শরীরের সঙ্গে থাকা সবকিছু নিঁখুতবাবে স্ক্যান করতে সক্ষম হবে৷ যদি কাউকে সন্দেহ করা হয় শুধুমাত্র তখনই বিশেষভাবে তাঁকে স্ক্যান করা হবে৷ অর্থাৎ স্পষ্টভাবে শরীরের কিছু অঙ্গকে দেখা যাবে না, কোন মানুষ যেন শারীরিকভাবে কোন ধরণের ক্ষতির সম্মুখীন না হয়৷ এছাড়া অত্যন্ত দক্ষ এবং বিশেষভাবে ট্রেনিং প্রাপ্ত মানুষদেরই এই দায়িত্ব দেয়া হবে৷

Israel Sicherheit Flughafen

ইসরায়েলের বিমানবন্দরে এভাবেই চেক করা হচ্ছে যাত্রীদের

তবে এর সঙ্গে একমত নন ফেডারেল পুলিশ ইউনিয়নের প্রধান ইয়োজেফ শয়রিং৷ পুরো ব্যবস্থা, স্ক্যানিং এর বিভিন্ন বিষয় আরো নিখুঁতভাবে, আরো বেশি খতিয়ে দেখার পক্ষে তিনি৷ ইয়োসেফ শয়রিং বলেন, এখন পর্যন্ত এমন কোন প্রযুক্তি বা মেশিন আবিস্কৃত হয়নি, হলে আমরা অনেক আগেই তা দেখতাম৷ আস্থা বাড়াবার জন্য প্রযুক্তির ওপর নির্ভর করা যেতে পারে৷ প্রযুক্তি বা মেশিন বেশি ব্যবহারের ফলে মানুষের কর্মক্ষমতার ওপর আস্থা কমে যায়৷ এবং এ ধরণের ঘটনাই মিউনিখে ঘটেছে৷ নিরাপত্তার সবচেয়ে বড় বর্ম হল মানুষের প্রতি দায়িত্বশীল হওয়া৷ সেখানে প্রয়োজন নির্ভিক মানুষের, যারা নিজের অস্তিত্ব নিয়ে চিন্তিত, ভীত - তাদের কাজ এবং দায়িত্ব নিয়ে উদ্বিগ্ন আমি৷

সম্প্রতি মিউনিখের বিমানবন্দরে বোমা হামলার সতর্ক সংকেত বেজে উঠলে কয়েক ঘন্টার জন্য বিমানবন্দরের বেশ কিছু এলাকা পুরোপুরি বন্ধ করে দেয়া হয়৷ এক যাত্রীর ল্যাপটপ নিয়েই এই বিপত্তি৷ কিন্তু সতর্ক সংকেত সত্ত্বেও সেই যাত্রীর খোঁজ মেলেনি তাৎক্ষণিকভাবে৷ পরে অবশ্য বোঝা যায় যে সেটা ছিল ভুয়া অ্যালার্ম৷ কিন্তু প্রশ্ন ওঠে ওই যাত্রী নিরাপত্তার বেড়া পার হলেন কীভাবে? ফলে নিরাপত্তার ফাঁকগুলো পূরণ করার বিষয়টি নিয়ে চলেছে তুমুল আলোচনা৷

Flughafen München nach Hinweis auf Sprengstoff abgeriegelt

মিউনিখ বিমানবন্দরে ভুয়া অ্যালার্মে আটকে পড়া যাত্রী

প্রতিবেদক: মারিনা জোয়ারদার

সম্পাদক: আবদুল্লাহ আল-ফারূক

সংশ্লিষ্ট বিষয়