1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

বিমানবন্দরে আটকে পড়া যাত্রীদের দুর্বিষহ জীবন

বিমান ছাড়া ভ্রমণ৷ উপমহাদেশের মানুষের কাছে ব্যাপারটা খুব একটা সমস্যার নয় মনে হলেও, ইউরোপ সহ উন্নত বিশ্বের দেশগুলোর সাধারণ জনগণের জীবনে মারাত্মক প্রভাব ফেলছে বিষয়টি৷ কবে এই অচলাবস্থা থেকে মুক্তি মিলবে, জানা যাচ্ছেনা তাও৷

default

বিমানবন্দরে যাত্রীদের অবস্থান

ব্রিটিশ নাগরিক এমিলি ম্যাথি৷ ছুটি কাটাতে গিয়েছিলেন ব্যাংকক৷ কিন্তু আর ফিরতে পারছেন না দেশে৷ এদিকে তাঁর নতুন চাকরিতে যোগদানের সময় পেরিয়ে গেছে৷ তিনি জানেন না, কবে ফিরতে পারবেন৷ কারণ তিনি এখন বন্দি দুবাই বিমানবন্দরে৷ আর ফিরলেও চাকরিটা ঠিক আছে কিনা কে জানে? এদিকে ঘোরাঘুরির জন্য যে টাকাপয়সা নিয়ে বেরিয়েছিলেন, তাও প্রায় শেষ হয়ে যাচ্ছে৷ এমিলির মত এমনই অনিশ্চিত জীবন এখন প্রায় ৮ হাজার যাত্রীর, যারা দুবাই বিমানবন্দরে আটকা পড়েছেন৷

এতো গেলো মধ্যপ্রাচ্যের কথা৷ আর মূল সমস্যাটা যেখানে, সেই ইউরোপে আটকে পড়া যাত্রীরা বিকল্প হিসেবে রেল ও বাসের দিকে ছুটছেন৷ তাই চাপ পড়েছে

Eurotunnel Panne

ইউরোস্টার রেলের জন্য যাত্রীদের অপেক্ষা (ফাইল ছবি)

এ'দুটি বাহনের উপর৷ টিকিট নেই কোথাও৷ কোনো কোনো জায়গায় অতিরিক্ত পরিবহনের ব্যবস্থা করা হচ্ছে৷ যেমন প্যারিস ও লন্ডনের মধ্যে চলাচলকারী রেল ‘ইউরোস্টার'-এর কর্তৃপক্ষ ৮০ হাজার অতিরিক্ত আসনের ব্যবস্থা করেছে৷ এছাড়া ২৪৫ ইউরোর ভাড়া কমিয়ে ১০০ ইউরো নির্ধারণ করা হয়েছে৷ এদিকে ব্রিটিশ সরকার উত্তর আমেরিকায় আটকে পড়া প্রায় ৭০ হাজার ব্রিটিশ নাগরিককে দেশে ফিরিয়ে আনতে উদ্যোগ নিয়েছে৷ ইতিমধ্যে তাঁরা স্পেনের সঙ্গে আলোচনা শুরু করেছেন৷ ব্রিটিশ সরকার চাইছে, যাত্রীদের বিমানে করে স্পেনে নিয়ে গিয়ে তারপর বাস বা জাহাজে করে দেশে ফিরিয়ে নিয়ে যেতে৷ জার্মানি ও ফ্রান্স সরকার চাইলে তাঁরাও এই পদ্ধতিতে তাঁদের নাগরিকদের দেশে ফিরিয়ে নেয়ার ব্যবস্থা করতে পারেন বলে স্পেন বলেছে৷

এদিকে আটকে পড়া ট্রানজিট যাত্রীদের বিমানবন্দর থেকে বের হওয়ার জন্য সাময়িক ভিসা দিচ্ছে জার্মানি৷ এখন পর্যন্ত এধরণের প্রায় ১৬ হাজার ভিসা ইস্যু করা হয়েছে বলে জানা গেছে৷ এছাড়া জার্মানিতে একটি মেলায় অংশ নিতে আসা কয়েকশ চীনা নাগরিকের ভিসার মেয়াদ শেষ হয়ে যাওয়ায় এপ্রিলের শেষ পর্যন্ত তাঁদের ভিসার মেয়াদ বাড়ানো হচ্ছে৷ কোলন শহর থেকে ট্যাক্সি ভাড়া করে তুরস্কের ইস্তানবুল, অথবা বার্সেলোনা থেকে ট্যাক্সি করে লন্ডন যাওয়ার ঘটনার কথাও শোনা যাচ্ছে৷

এবার চলুন শুনি কি সমস্যায় পড়েছেন খেলোয়াড়রা৷ মঙ্গলবার ইটালির মিলানে চ্যাম্পিয়নস লিগের সেমিফাইনাল খেলা হওয়ার কথা৷ তাই লিওনেল মেসির দল বার্সেলোনাকে এক হাজার মাইল পাড়ি দিয়ে মিলান যেতে হচ্ছে বাসে করে৷ এজন্য তাঁরা যাত্রা শুরু করেন রবিবার৷ অর্থাৎ দুদিন আগে৷ প্রথমদিন যাত্রা শেষ হয় ফ্রান্সের কান শহরে৷ সেখানে রাতটা কাটিয়ে সোমবার আবার মিলানের উদ্দেশে রওয়ানা হয়েছে মেসির দল৷

প্রতিবেদক: জাহিদুল হক

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন

সংশ্লিষ্ট বিষয়