1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

বিন লাদেনের হাতে-লেখা ‘নোটবুকে’ কী ছিল?

এ্যাবটাবাদের বাড়িতে এই প্রামাণ্য দলিলটি খুঁজে পাওয়া গেছে৷ মার্কিন কর্মকর্তারা এটিকে ডাইরি বলতে নারাজ৷ তবে এটা নাকি বিন লাদেনের চিন্তাভাবনার একটা ‘দিনপঞ্জী’৷

default

এ্যাবটাবাদের সেই বাড়ি

মার্কিন সীল কম্যান্ডোরা বিন লাদেনের বাড়িতে বহু কম্প্যুটার, হার্ড ড্রাইভ, ডিভিডি ইত্যাদি পেয়েছে৷ সব ছেড়ে কৌতূহল কিন্তু বিন লাদেনের এই জার্নালটাকে নিয়ে৷ কেননা ও'তে বিন লাদেন আল-কায়েদার কৌশল এবং ভবিষ্যৎ আক্রমণের লক্ষ্য ইত্যাদি নিয়ে সোচ্চার চিন্তা করেছেন৷ নয়তো ব্যক্তিগত বলতে তা'তে বিশেষ কিছু নেই৷

ওদিকে এ্যাবটাবাদ থেকে সব মিলিয়ে যে তথ্য সংগৃহীত হয়েছে, তার কিছু কিছু অংশ নাকি পশ্চিমের অপরাপর সরকারকে পাঠানো হয়েছে৷ কোনো বাস্তব আক্রমণের পরিকল্পনা কিছু পাওয়া যায়নি৷ মার্কিন কর্মকর্তারা এযাবৎ যেটুকু বলেছেন, তা হল এই যে, ২০১০ সালের ফেব্রুয়ারিতে পরিকল্পনা করা হচ্ছিল, নাইন ইলেভেনের দশম বার্ষিকীতে যুক্তরাষ্ট্রে কোনো বড় রেল দুর্ঘটনা ঘটানো যায় কিনা৷

In this undated image taken from video provided by the U.S. Department of Defense, a man who the American government says is Osama bin Laden watches television in a video released on Saturday, May 7, 2011. The videos show bin Laden watching himself on television and rehearsing for terrorist videos. (Foto:Department of Defense/AP/dapd)

নোটবুকে চিন্তাভাবনা লিখে রাখতেন বিন লাদেন

এবং অবশ্যই রয়েছে বিন লাদেনের নিজের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন, আল-কায়েদার প্রেক্ষাপটে, বিশেষ করে বিগত কয়েক বছরে৷ এ্যাবটাবাদে পাওয়া তথ্য থেকে স্পষ্ট বোঝা গেছে যে, বিন লাদেনের গুপ্ত ঘাঁটি ছিল আল কায়েদার একটি মুখ্য ‘কমান্ড পোস্ট' এবং বিন লাদেন শেষ পর্যন্ত সন্ত্রাসী সংগঠনটির কার্যকলাপে গভীরভাবে লিপ্ত ছিলেন৷

মার্কিনিদের বিন লাদেন অভিযানে সবচেয়ে বিপাকে পড়েছে তাদের মিত্র পাকিস্তান৷ বিশেষ করে পাকিস্তানি মিলিটারি এবং আইএসআই'কে নিয়ে বিশ্বজোড়া নানা সন্দেহ, নানা প্রশ্ন৷ ভারত এবার সরাসরি পাঁচজন পাকিস্তানি সামরিক কর্মকর্তার নাম তাদের ৫০ জন ‘মোস্ট ওয়ান্টেড' অপরাধীদের নামের তালিকায় চড়িয়েছে৷ পাকিস্তানের রাজনীতিকরা কিন্তু এ্যাবটাবাদে মার্কিন কমান্ডো অভিযানটা ইসলামাবাদের অজ্ঞাতসারে কীভাবে সম্ভব হল, সেটাই জানতে আগ্রহী৷

আসল প্রশ্ন হল এই যে, এ্যাবটাবাদে বিন লাদেনের উপস্থিতির কথা পাকিস্তানে কে জানতো অথবা জানতো না৷ প্রাক্তন প্রেসিডেন্ট পারভেজ মুশাররফ লন্ডনে তাঁর নির্বাসন থেকে একটি নতুন ধারণা দিয়েছেন: আইএসআই এবং আর্মির কিছু ‘দুষ্ট' জুনিয়র অফিসাররা জেনেও থাকতে পারে যে, বিন লাদেন বছরের পর বছর ধরে পাকিস্তানে বসবাস করছেন৷ এবং এই ‘দুষ্ট' জুনিয়র অফিসাররা ওপরমহলের নীতি লঙ্ঘন করে তাদের নিজেদের মর্জি মতো কাজ করেছে৷

প্রতিবেদন: অরুণ শঙ্কর চৌধুরী

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন

নির্বাচিত প্রতিবেদন