1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

বিদেশিনী পর্যটকদের ধর্ষণ, চিন্তা বাড়িয়েছে ভারতের

একের পর এক বিদেশিনীর শ্লীলতাহানি, ধর্ষণের ঘটনা ঘটছে ভারতে৷ যার প্রভাবে কমে যাচ্ছে বিদেশি মহিলা পর্যটকের সংখ্যা৷

আয়ারল্যান্ড থেকে কলকাতায় এসেছিলেন ওই তরুণী, একটি এনজিও-র স্বেচ্ছাসেবী হয়ে কাজ করতে৷ কাজের সূত্রে দার্জিলিং এবং আরও নানা জায়গায় ঘোরাঘুরি করতে হতো তাঁকে৷ কখনও কোনও বিপত্তি হয়নি৷ এক পরিচিতের মাধ্যমে কলকাতার এক যুবকের সঙ্গে আলাপ এবং বন্ধুত্ব হয়ে যায় ওই তরুণীর৷ সেদিন আবার ছিল মেয়েটির জন্মদিন৷ শহরেরই এক হোটেলে নিজের জন্মদিনের পার্টিতে পুরনো বন্ধুদের পাশাপাশি সদ্য আলাপ হওয়া ওই যুবকটিকেও আমন্ত্রণ জানান ওই তরুণী৷ অভিযোগ, সেই রাতে ওই জন্মদিনের পার্টি থেকে সারপ্রাইজ দেওয়ার নাম করে নিজের বাড়িতে নিয়ে গিয়ে, বা মতান্তরে মাঝরাস্তায় একটি গাড়ির ভিতরে ওই তরুণীকে ধর্ষণ করে ওই যুবক৷ পর দিন সকালে বন্ধুদের সঙ্গে নিয়ে পুলিশের কাছে গিয়ে ওই যুবকের নামে ধর্ষণের নালিশ জানান ওই তরুণী৷ যুবককে গ্রেপ্তার করা হয়৷

Symbolbild Missbrauch Opfer

একের পর এক বিদেশিনীর শ্লীলতাহানি, ধর্ষণের ঘটনা ঘটছে ভারতে

মাত্র কিছুদিন আগে ঘটে যাওয়া এই ঘটনার পর, সম্প্রতি তার দুটি বিস্তারের কথা জানা গেছে৷ এক, তদন্তে নেমে পুলিশের সন্দেহ, ওই আইরিশ তরুণী শহরের মাদক মোচ্ছব, চলতি কথায় যাকে রেভ পার্টি বলা হয়, তার সঙ্গে সম্ভবত যুক্ত ছিলেন৷ এতে যদিও ওই বিদেশিনীকে ধর্ষণের অধিকার প্রমাণিত হয় না, কিন্তু নিষিদ্ধ মাদক ব্যবহারের পাল্টা আইনি চাপ মানসিকভাবে কিছুটা হলেও দুর্বল করতে পারে ইতিমধ্যেই নিগৃহীত ওই তরুণীকে৷ সেই কারণেই কিনা জানা নেই, ওই আইরিশ তরুণী তাঁর হোটেলের ঘরে অতিরিক্ত ঘুমের ওষুধ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করলেন সম্প্রতি৷

এর একেবারে বিপরীত মেরুর একটি ঘটনার দিকে এবার চোখ ফেরানো যাক৷ কিছুদিন আগে হিমাচল প্রদেশের মানালিতে গণ ধর্ষিতা হন এক অ্যামেরিকান মহিলা৷ ঘটনার দিন ইনি মানালি শহর থেকে কিছু দূরে বশিষ্ঠ বলে একটি জায়গায় বন্ধুদের সঙ্গে দেখা করতে গিয়েছিলেন৷ ফেরার পথে, হাইওয়েতে একটি ট্রাক তাঁকে লিফট দিতে চায় এবং মহিলা রাজি হয়ে যান৷ মাঝরাস্তায় ওই ট্রাকের চালক এবং তার সঙ্গী দুই খালাসি মহিলাকে রাস্তার ধারের জঙ্গলে টেনে নিয়ে গিয়ে ধর্ষণ করে৷ এই ঘটনা সংবাদমাধ্যমে আসতেই বিস্তর হইচই শুরু হয়৷ কারণ, ভারতের যে কটি অঞ্চলে বিদেশি পর্যটকদের যাতায়াতের সুবাদে প্রচুর বিদেশি মুদ্রা উপার্জন হয় পর্যটন শিল্পে, হিমাচল প্রদেশ তাদের অন্যতম৷ যদিও সেখানেও মাদক চক্রের পাল্লায় পড়ে সর্বস্বান্ত হওয়া, এমনকি প্রাণহানির ঘটনা ঘটেছে, কিন্তু মহিলা পর্যটকদের জন্য হিমাচলকে আপাত নিরাপদ মনে করা হয়৷

ফলে তৎপর হয়ে ওঠে হিমাচল প্রশাসন৷ মহিলাকে প্রস্তাব দেওয়া হয়, এর পর যে কদিন তিনি মানালি বা হিমাচলের অন্যত্র থাকতে চান, সরকারি অতিথি হয়ে থাকতে পারেন৷ অর্থাৎ তাঁর থাকা-খাওয়া-ঘোরার সমস্ত খরচ সরকারের হবে৷

Symbolbild sexuelle Gewalt Prostitution Menschenhandel Zwangsprostitution

ধর্ষণের কারণে ভারতে বিদেশিনী পর্যটকদের যাওয়া প্রায় ২৫ শতাংশ কমে গিয়েছে

মহিলা রাজি হয়ে যান এবং যে গেস্ট হাউসে তিনি ছিলেন, সেখান থেকে তাঁকে সরিয়ে নিয়ে যাওয়া হয় একটি বিলাসবহুল হোটেলে৷ অন্যদিকে কেন্দ্রীয় সরকারও বার্তা পাঠায়, মহিলা যদি অ্যামেরিকা ফেরত যেতে চান, তাহলে যে কোনও আন্তর্জাতিক বিমান সংস্থার বিজনেস ক্লাসে তাঁর টিকিট কেটে দেবে সরকার৷ কিন্তু যেহেতু ওই মহিলা এখন আরও কিছুদিন মানালিতেই, তাঁর বন্ধুদের সঙ্গে থাকতে চান, এখনও সেই সাহায্য নেওয়ার দরকার পড়েনি৷

কিন্তু দুটি ধর্ষণের ঘটনায় প্রশাসন-পুলিশের দুধরনের প্রতিক্রিয়া এটাই প্রমাণ করে যে, একজন বিদেশি মহিলার সম্মান নষ্ট হলে কী করতে হবে, তার সুস্পষ্ট কোনও নির্দেশিকা ভারতে নেই৷ কোথাও তাঁকে আইনি অস্বাচ্ছন্দ্যের মধ্যে ফেলে নিজেদের দায়মুক্ত হওয়ার চেষ্টা নজরে আসে, আবার কোথাও আক্রান্তের নানাবিধ সুখ-স্বাচ্ছন্দ্যের ব্যবস্থা করে দিয়ে অপরাধ প্রবণতাকে লঘু করার চেষ্টা হয়৷ মানালি এবং কলকাতা, দুটি ঘটনাই কিন্তু আরও একটা বিষয় প্রমাণ করে৷ শিক্ষিত, সপ্রতিভ যুবক অথবা ট্রাক ড্রাইভার, দুই শ্রেণির মধ্যে চরিত্রগত ফারাক বিশেষ নেই ভারতে, অন্তত মহিলাদের সম্মানরক্ষার প্রশ্নে৷ কাজেই বিদেশি পর্যটকদের জন্য লেখা বিভিন্ন গাইডবুকে, ভারতীয় পুরুষদের লালসা আর অশ্লীল আচরণ এড়িয়ে থাকার পরামর্শ যে মহিলাদের দেওয়া হবে, তাতে আর আশ্চর্য কী৷

ফলে ভারতে বিদেশি মহিলা পর্যটকদের সংখ্যা কমছে৷ গত মার্চ মাসে ভারতীয় বণিক গোষ্ঠী অ্যাসোচ্যাম-এর এক রিপোর্টে ধরা পড়েছে, বিদেশিনী পর্যটকদের এদেশে আসা প্রায় ২৫ শতাংশ কমে গিয়েছে৷ সেটাও কলকাতা বা মানালির ধর্ষণের ঘটনার আগের হিসেব৷ মার্চ মাসেই মধ্যপ্রদেশের দাতিয়া জেলায় এক সুইস মহিলা গণধর্ষণের শিকার হন৷ জানুয়ারিতে মধ্যপ্রদেশেই উমরিয়ায় নিজের হোটেলের ঘরে ধর্ষিতা হন এক কোরীয় মহিলা৷ আর তার আগে, ডিসেম্বরে খাস রাজধানী দিল্লিতে এক বিদেশিনীকে ধর্ষণ করা হয়৷ সমীক্ষা বলছে, যতবার ভারতে এমন ঘটনা ঘটে, তার সরাসরি প্রভাব পড়ে পর্যটনশিল্পে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন