1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

বিজ্ঞানীদের গবেষণার প্রিয় বিষয় জিনতত্ত্ব

প্রায় ১০ বছর হয়ে গেল মানুষের দেহের নকশা আবিষ্কার হয়েছে৷ তখন বলা হয়েছিল, এবার সহজেই রোগশোক থেকে মুক্তির উপায় বের করা যাবে৷ কিন্তু সেটা হয়নি৷ তাই বলে জেনেটিক্স বা জিনতত্ত্ব নিয়ে মানুষের আগ্রহে ভাটা পড়েনি৷

default

জেনেটিক্স নিয়ে মানুষের আগ্রহ বেড়ে চলেছে

প্রেক্ষাপট

২০০১ সাল৷ আবিস্কৃত হলো মানব দেহের নকশা৷ চারিদিকে রব উঠলো, পাওয়া গেছে জাদুকাঠি৷ এবার সহজেই রোগ থেকে নিরাময়ের উপায় মিলবে৷ কিন্তু না৷ আবিস্কারটা নিয়ে যতটা হৈচৈ হয়েছিল ততটা সুফল এখনো এনে দিতে পারেন নি বিজ্ঞানীরা৷ তাই গবেষণা চলছেই৷ আর এ কারণেই সারা বিশ্বের বিজ্ঞানীদের গবেষণার প্রিয় বিষয় হয়ে উঠেছে জিনতত্ত্ব৷

বার্তা সংস্থা রয়টার্সের মূল প্রতিষ্ঠান ‘থমসন রয়টার্স'এর সাম্প্রতিক এক জরিপে দেখা গেছে, বিশ্বের শীর্ষ ১৩ বিজ্ঞানীর সাতজনেরই গবেষণার বিষয় জিনতত্ত্ব৷ এর মধ্যে এক নম্বরে রয়েছেন এরিক ল্যান্ডার৷ তাঁকে বলা হচ্ছে ‘হটেস্ট রিসার্চার'৷ বিখ্যাত মার্কিন প্রতিষ্ঠান ‘ম্যাসাচুসেস্ট ইনস্টিটিউট অব টেকনোলজি'র অধ্যাপক তিনি৷ তিনি গবেষণা করছেন ফুসফুসের ক্যান্সার নিরাময় নিয়ে৷

Singh Ahuja

দক্ষিণ এশিয়ায় জিনতত্ব নিয়ে গবেষণা চলছে

বাংলাদেশে জিনতত্ত্ব গবেষণা

বিশ্ব থেকে এবার চোখ ফেরাবো বাংলাদেশের দিকে৷ জানতে চেষ্টা করবো সেখানে জিনতত্ত্ব গবেষণার কী অবস্থা? এ প্রসঙ্গে কথা বলেছিলাম ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং ও বায়োটেকনোলজি বিভাগের শিক্ষক সালিম আহমেদের সঙ্গে৷ তিনি বললেন, ‘‘জিনতত্ত্ব নিয়ে গবেষণা বাংলাদেশে নতুন৷ মাত্র ১০-১৫ বছর হলো এ বিষয়ে গবেষণা হচ্ছে৷''

সালিম বলেন, ‘‘যেহেতু বাংলাদেশ একটি কৃষিপ্রধান দেশ৷ তাই জিনতত্ত্বের গবেষণায় এই বিষয়টি প্রাধান্য পেয়েছে৷ এক্ষেত্রে উল্লেখ করা যায় ধান ও পাটের নাম৷ তবে অন্যান্য ফসল নিয়েও গবেষণা হচ্ছে৷ সরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও বিশ্ববিদ্যালয় পর্যায়ে এই গবেষণাগুলো হচ্ছে৷''

আর এসব ক্ষেত্রে গবেষকরা বেশ সফলতা লাভ করছেন বলেও জানান তিনি৷ সালিম বলেন, ‘‘লবণাক্ততা ও খরা সহনশীল ধানের জাত নিয়ে গবেষণা চলছে৷ এবং ইতিমধ্যে বেশ কিছু জাতের উৎপাদনও শুরু হয়ে গেছে৷''

আর পাটের জিন নকশা আবিস্কার করে বাংলাদেশে যে সারা বিশ্বে হৈচৈ ফেলে দিয়েছে সেটাও এই জিনতত্ত্ব গবেষণারই ফসল৷ এখন কাজ চলছে, কীভাবে এই নকশাকে কাজে লাগিয়ে অর্থনৈতিকভাবে অধিকতর লাভজনক পাটের বিভিন্ন জাত উৎপাদন করা যায় সে বিষয় নিয়ে৷

ফসলের মাঠ পেরিয়ে পশুপাখি ও মাছ নিয়েও গবেষণায় নেমে পড়েছেন বাংলাদেশের জিনতত্ত্ব বিজ্ঞানীরা৷ এমনটাই বললেন সালিম আহমেদ৷ আর থ্যালাসামিয়া রোগের জেনেটিক ভিত্তি নিয়ে গবেষণা করছে তাঁর নিজের বিভাগ জেনেটিক ইঞ্জিনিয়ারিং৷

সালিম বলেন, ‘‘উন্নয়নশীল দেশ হওয়ায় বাংলাদেশে গবেষণার ক্ষেত্রে অর্থ একটা সমস্যা৷ কিন্তু এই সীমাবদ্ধতা সত্ত্বেও গবেষকরা তাঁদের কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন৷''

এসব দেখে তরুণ প্রজন্মও জিনতত্ত্ব নিয়ে বেশ আগ্রহ দেখাচ্ছে বলে জানান সালিম৷ প্রতিবছর বিশ্ববিদ্যালয় ভর্তি পরীক্ষার পর শীর্ষ মেধাবীরাই এই বিভাগে ভর্তি হতে চান বলে জানান তিনি৷

প্রতিবেদন: জাহিদুল হক

সম্পাদনা: সুপ্রিয় বন্দ্যোপাধ্যায়

সংশ্লিষ্ট বিষয়