1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

মতামত

বিকিনি পরা পর্যটক চাই না...

বাংলাদেশের সমুদ্রতটে পশ্চিমা পর্যটক বিকিনি পরে ঘুরে বেড়াক তা বাংলাদেশের অনেকেই চান না, অন্তত ডয়চে ভেলের ফেসবুক পাতায় তেমনটাই জানিয়েছেন তাঁরা৷

অনেক মুসলিম অধ্যুষিত দেশের সমুদ্র সৈকতে পশ্চিমা পর্যটকরা বিকিনি পরে স্বাভাবিকভাবেই ঘুরতে পারলেও বাংলাদেশে এমনটা হতে দিতে রাজি নন ডয়চে ভেলের ফেসবুকবন্ধু নাদিম৷ তাঁর ধারণা, ৷ শুধু তাই নয়,  তিনি আরো মনে করেন তখন আর শালীন পোশাক পরা কেউ সেই সমুদ্রতটে যেতে পারবেন না৷

মঈনুল হাসান পারভেজ মনে করেন, কক্সবাজারে বিদেশি মেয়েরা বিকিনি পরে ঘুরে বেড়ালে বাংলাদেশের সংস্কৃতির ওপর বিদেশি সংস্কৃতির কু-প্রভাব পড়বে৷ পারভেজের মতে , ‘‘নিজের দেশের ক্ষতি করে বিদেশিদের সুবিধা প্রদান দেশদ্রোহীতার শামিল৷''

বাংলাদেশের সমুদ্রতটে বিদেশি পর্যটকদের পোশাকের স্বাধীনতা নিশ্চিত করতে পারলে পর্যটকের সংখ্যা অনেকটা বাড়তে পারে এবং দেশও আর্থিকভাবে লাভবান হতে পারে৷ কিন্তু পাঠক ইমরান হোসেন এবং কাজি মোহাম্মদ আলীও ইমরান হোসেন তা মনে করেন না৷

জুনায়েদ শাহীন বিদেশিদের জন্য ‘প্রাইভেট সৈকত' করার পরামর্শ দিয়েছেন, যেখানে বাংলাদেশিদের প্রবেশাধিকার থাকবে না৷

‘‘আমাদের দেশকে ফিলিপাইনসের মতো দেশ হতে দেওয়া উচিত নয়,  যেখানে পর্যটকদের দ্বারা অনাথ শিশুদের জন্ম হয়-'' এই মন্তব্য পাঠক ইকবাল হোসেনের৷

সংকলন:  নুরুননাহার সাত্তার

সম্পাদনা: আশীষ চক্রবর্ত্তী

 

নির্বাচিত প্রতিবেদন