1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

বিকল্প খোঁজ সেবা নিয়ে হাজির ব্ল্যাকো

হ্যাশট্যাগের কথাতো আগেই শুনেছেন আপনারা৷ খোঁজ সেবায় এই চমক নিয়ে হাজির হয় টুইটার৷ যে বিষয় খুঁজতে চান, তার আগে লাগিয়ে দিন হ্যাশ৷ ব্যস, হয়ে গেলো৷ কিন্তু এবার আরেক খোঁজের পদ্ধতি নিয়ে হাজির ব্ল্যাকো৷

default

খোঁজার কাজ আরো সহজ করেছে ব্ল্যাকো (ফাইল ফটো)

নতুন প্রযুক্তির নাম স্ল্যাশট্যাগ৷ এই প্রযুক্তি ব্যবহার করে খোঁজ সেবায় আমূল পরিবর্তন আনছে ব্ল্যাকো৷ নভেম্বরের এক তারিখ থেকে চালু হওয়া এই ওয়েবসাইট ইতিমধ্যেই গুগল, ইয়াহু কিংবা বিং এর বিকল্প হিসেবে নিজের অবস্থান জানান দিচ্ছে৷ সাইটটির মূল বিশেষত্ত্ব হচ্ছে, খোঁজার সময় ব্যবহারকারীকে অনাকাঙ্খিত মানে বিজ্ঞাপনী কিংবা স্প্যাম ফলাফল থেকে দূরে রাখা৷ এই কাজেও সহায়ক স্ল্যাশটেগ৷

কিন্তু কী এই স্ল্যাশটেগ প্রযুক্তি? ব্ল্যাকোর প্রথম পাতায় বর্তমানে পাওয়া যাচ্ছে এক ভিডিও বার্তা৷ সেখানে সংস্থাটির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা রিচ স্ক্রেন্টা জানান, স্ল্যাশট্যাগের মাধ্যমে যে কোন বিষয়কে নির্দিষ্ট সীমার মধ্যে খোঁজা সম্ভব হবে৷

উদাহরণস্বরূপ, আপনি যদি জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক কিছু খোঁজেন তাহলে প্রচলিত সাইটগুলোতে শুধু ‘ক্লাইমেট চেইঞ্জ' লিখলেই হয়৷ কিন্তু এতে করে এক গাদা তথ্য হাজির হবে৷ ফলে একেবারে কাঙ্খিত তথ্য পাওয়া কঠিন৷ ব্ল্যাকোতে সুযোগ রয়েছে এই কাজটি সহজ করার৷ তাই, খোঁজ বক্সে ক্লাইমেট চেইঞ্জ লেখার পর একটি স্পেস দিয়ে লিখুন স্ল্যাশ(/)ডেট এবার আপনি পাবেন জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ক সর্বশেষ সব তথ্য৷ এভাবে যদি চান সর্বশেষ সময়ের জলবায়ু এবং বিজ্ঞান বিষয়ক তথ্য, তাহলে লেখুন ক্লাইমেট চেইঞ্জ স্পেস স্ল্যাশডেট স্পেস স্ল্যাশটেক৷ দেখলেন, কত সহজে খুঁজে পাওয়া যায় সর্বশেষ তথ্য! প্রয়োজনে নিজের মতো করেও তৈরি করা যাবে স্ল্যাশট্যাগ৷

এখানেই শেষ নয়, অধিকাংশ ওয়েবসাইট সম্পর্কে বিস্তারিত অনেক কিছুই আমরা জানিনা৷ যেমন, সাইটটি কতটা জনপ্রিয় কিংবা মানুষের কাছে গ্রহণযোগ্য - এসব তথ্য সবসময়ই গোপন রাখা হয়৷ ব্ল্যাকো এক্ষেত্রে খানিকটা পরিবর্তন এনেছে৷ কোন সাইটের গোপন তথ্য জানতে চাইলে সেটিকে খুঁজুন ব্ল্যাকোতে৷ এরপর ক্লিক করুন লিংকের সঙ্গে থাকা এসইও বাটনে৷ এভাবে যেকোন সাইটের গোপন সব তথ্য হাজির হবে আপনার সামনে৷

একইসঙ্গে সাইটটি আপনাকে স্প্যাম থেকে দূরে রাখতে চায়৷ এই কাজে সহায়তায় যে কোন খোঁজ লিংকের সঙ্গে থাকছে স্প্যাম বাটন৷ শুধু একটু ক্লিক করে দিন৷ সেই সাইট আর কখনো হাজির হবে না আপনার খোঁজ তালিকায়৷

উল্লেখ্য, ২০০৭ সালে যাত্রা শুরু হয় বিকল্প খোঁজ সেবা ব্ল্যাকোর৷ তবে প্রথম তিন বছর ব্যয় হয় এটির ভেতরটা তৈরিতে৷ বর্তমানে সাইটটির পরীক্ষামূলক সংস্করণ জনসম্মুখে প্রকাশ করা হয়েছে৷

প্রতিবেদন: আরাফাতুল ইসলাম

সম্পাদনা: রিয়াজুল ইসলাম

নির্বাচিত প্রতিবেদন