1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

বিএনপির লংমার্চ: জামায়াত থাকবে কি?

তিস্তার পানির ন্যায্য হিস্যার দাবিতে আগামী ২২ ও ২৩ এপ্রিল তিস্তা অভিমুখে লংমার্চ করবে বিএনপি৷ এই কর্মসূচিতে ১৯ দলীয় জোটের অন্য শরিকদের অংশগ্রহণের জন্য আমন্ত্রণ জানিয়েছে বিএনপি৷

default

আগামী ২২ ও ২৩ এপ্রিল তিস্তা অভিমুখে লংমার্চ করবে বিএনপি

জোটের শরিকরা লংমার্চে অংশ নেয়ার সিদ্ধান্ত নিলেও দ্বিধা-দ্বন্দ্বে আছে অন্যতম শরিক জামায়াতে ইসলামী৷ জামায়াতের নীতি নির্ধারণী একটি অংশ মনে করে বিএনপিকে একক আন্দোলন করতে দেয়া উচিত৷

বৃহস্পতিবার রাতে ১৯ দলীয় জোট নেতাদের বৈঠকে বিএনপির চেয়ারপার্সন বেগম খালেদা জিয়া জোটের সব দলকে লংমার্চে অংশ নেয়ার আহ্বান জানান৷ তাঁর আহ্বানে সবাই সম্মত হলেও জামায়াত এখনো সিদ্ধান্ত ঠিক করতে পারেনি৷

এনিয়ে জামায়াতের নীতি-নির্ধারকরা বৈঠক করেছেন শুক্রবার৷ জানা গেছে, বৈঠকে লংমার্চে যোগদানের বিষয়ে জামায়াতের দুটি মতামত আসে৷

একপক্ষ বলছে, উপজেলা নির্বাচনসহ বেশ কিছু বিষয়ে বিএনপির সাথে জামায়াতের দূরত্ব সৃষ্টি হয়েছে৷ এটা কমাতে লংমার্চে যোগ দেওয়া উচিত৷

আরেকটি অংশ বলছে, এই মুহূর্তে সরকার জামায়াতের উপর তেমন ‘দমন-পীড়ণ' করছে না৷ লংমার্চে যোগ দিলে সেটা বেড়ে যেতে পারে৷ তাছাড়া বিএনপিকে একক আন্দোলন করতে দেয়া উচিত৷

জানা গেছে, দুটি পক্ষ ঐকমত্যে পৌঁছতে না পারায় সিদ্ধান্তের ভার ছেড়ে দেয়া হয়েছে জেলা নেতৃবৃন্দের উপর৷ জেলা নেতারা যে মতামত দেবেন, তার ভিত্তিতে সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হবে৷ তবে জামায়াতের কারাগারের বাইরে থাকা কোনো দায়িত্বশীল নেতা ডয়চে ভেলের কাছে এব্যাপারে আনুষ্ঠানিক মন্তব্য করতে রাজি হননি৷

এদিকে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব মাহবুব উদ্দিন খোকন ডয়চে ভেলেকে জানান, ‘‘বিএনপি চেয়ারপার্সন জোটের সব দলকে লংমার্চে অংশ নিতে আমন্ত্রণ জানিয়েছেন৷ সবাই অংশগ্রহণে সম্মত হয়েছেন৷ জামায়াত অংশ নেবে না - এমন কোনো কথা তারা বলেনি৷'' তিনি জানান, ‘‘এটি জোটের কর্মসূচি নয়, বিএনপির কর্মসূচি৷ তাই কেউ যোগ না দিলে সেটা তাদের নিজস্ব ব্যাপার৷''

তিস্তার পানির ন্যায্য হিস্যার দাবিতে আগামী ২২ ও ২৩শে এপ্রিল তিস্তা অভিমুখে লংমার্চের ঘোষণা দিয়েছে বিএনপি৷ ২২ এপ্রিল সকাল ৮টায় বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয় থেকে তিস্তা ব্যারেজ অভিমুখে রওনা হবে লংমার্চটি৷ ২৩ এপ্রিল সকাল ১১টায় তিস্তার ডালিয়া পয়েন্টে প্রতিবাদ সমাবেশ হবে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন