1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

ব্লগওয়াচ

বিএনপিকে ‘সন্ত্রাসী সংগঠন’ বলল ক্যানাডার আদালত

হরতাল-অবরোধে সহিংসতা ও সন্ত্রাসের সঙ্গে বিএনপির সংশ্লিষ্টতার কারণে দলটির এক কর্মীর রাজনৈতিক আশ্রয়ের আবেদন ক্যানাডার আদালতে খারিজ হয়ে গেছে৷

রায়ের পর্যবেক্ষণে বলা হয়েছে, বিএনপি সন্ত্রাসে ছিল, আছে বা ভবিষ‌্যতেও থাকতে পারে- এমন ধারণা করার যৌক্তিক কারণ আছে৷

ডয়চে ভেলের কন্টেন্ট পার্টনার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম-এর প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, বাংলাদেশের রাজনীতিতে বড় দুই দলের বৈরিতার ইতিহাস, হরতালের মতো রাজনৈতিক কর্মসূচিতে সহিংসতা, সরকারের লক্ষ‌্য অর্জন কঠিন করে তুলতে অর্থনৈতিক ক্ষতির কৌশল হিসেবে হরতালের ব‌্যবহার এবং তাতে বিএনপির সংশ্লিষ্টতার বিষয়ে বিভিন্ন আন্তর্জাতিক সংবাদ মাধ‌্যমের প্রতিবেদন ও ইন্টারনেটের উন্মুক্ত তথ‌্য তুলে ধরে এই পর্যবেক্ষণ দিয়েছে ক্যানাডার ফেডারেল আদালত৷

দশম জাতীয় সংসদ নির্বাচনের বর্ষপূর্তি ঘিরে ২০১৫ সালের শুরু থেকে বিএনপির ডাকে টানা তিন মাসের হরতাল-অবরোধের সময় গাড়িতে অগ্নিসংযোগসহ ব‌্যাপক সহিংসতার ঘটনায় দেড় শতাধিক মানুষের মৃত‌্যু হয়৷

জানা যায়, মোহাম্মাদ জুয়েল হোসেন গাজী নামে ঢাকার মিরপুরের এক ব‌্যক্তি বিএনপির সহযোগী সংগঠন স্বেচ্ছাসেবক দলের কর্মীর পরিচয় দিয়ে ক্যানাডা সরকারের কাছে রাজনৈতিক আশ্রয়ের আবেদন করেছিলেন৷

তার স্থায়ীভাবে কানাডায় বসবাসের আবেদন ২০১৫ সালে প্রাথমিক অনুমোদন পেলেও গতবছরের ১৬ মে তাকে ‘ক্যানাডায় প্রবেশের অযোগ্য ঘোষণা’ করেন দেশটির অভিবাসন কর্মকর্তা৷ ওই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে ক্যানাডার ফেডারেল আদালতে বিচারিক পর্যালোচনার আবেদন গত ২৫ জানুয়ারি খারিজ করে রায় দেন বিচারক হেনরি এস ব্রাউন৷ অভিবাসন কর্মকর্তা তার সিদ্ধান্তে বলেছিলেন, আবেদনকারী জুয়েল হোসেন গাজী এমন একটি সংগঠনের সদস‌্য, যে দল ‘সন্ত্রাসে যুক্ত বলে মনে করার যৌক্তিক কারণ আছে’৷ সুতরাং ক্যানাডার ইমিগ্রেশন অ‌্যান্ড রিফিউজি প্রোটেকশন অ‌্যাক্ট (আইআরপিএ)-র ৩৪(১)-এর এফ ও সি ধারা অনুযায়ী তিনি সুরক্ষা পাওয়ার জন‌্য ক্যানাডায় বসবাসের স্থায়ী অনুমতি পাওয়ার যোগ‌্য নন৷

ক্যানাডার আইনের ওই ধারায় বলা হয়েছে, কোনো ব‌্যক্তি যদি এমন কোনো দলের সঙ্গে যুক্ত থাকেন, যে সংগঠন সন্ত্রাসের সঙ্গে জড়িত ছিল, আছে বা ভবিষ‌্যতে থাকতে পারে বলে বিশ্বাস করার যৌক্তিক কারণ আছে, তাহলে তিনি নিরাপত্তাজনিত কারণে ক্যানাডায় প্রবেশের অনুমতি পাবেন না৷ সিদ্ধান্ত পর্যালোচনার আবেদনে জুয়েল গাজী দাবি করেছিলেন, বিএনপি সন্ত্রাসকে ‘প্রশ্রয় দেয় না’ এবং দলের গঠনতন্ত্র লঙ্ঘন করায় কর্মীদের বিরুদ্ধে সাংগঠনিক ব‌্যবস্থা নেওয়ারও নজির রয়েছে৷ কিন্তু অভিবাসন কর্মকর্তার তুলে ধরা লাগাতার হরতাল ও সহিংসতার বিবরণ তুলে ধরে রায়ে বলা হয়েছে, তার সঙ্গে তুলনা করলে আবেদনকারীর যুক্তি ‘হারিয়ে যায়’৷

বিএনপি সন্ত্রাসী সংগঠন নয়- যুক্তরাষ্ট্রের আদালত এমন পর্যবেক্ষণ দিয়েছে বলেও বিচারকের দৃষ্টি আকর্ষণ করেছিলেন আবেদনকারীর আইনজীবী৷ কিন্তু দুই দেশে ‘সন্ত্রাসবাদ’ এর সংজ্ঞার পার্থক‌্যের বিষয়টি তুলে ধরে ফেডারেল আদালত তা নাকচ করে দেয়৷  

বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম, দৈনিক যুগান্তর, দৈনিক সমকাল, ইন্ডিপেন্ডেন্ট টেলিভিশনসহ বাংলাদেশের বেশ কিছু পত্রিকা, অনলাইন পোর্টাল ও টেলিভিশন চ্যানেলে প্রকাশিত এ খবর নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমও সরব৷

সাংবাদিক সুমন মাহবুব লিখেছেন, ‘‘বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দলকে (বিএনপি) সন্ত্রাসী সংগঠন হিসেবে অভিহিত করেছে ক্যানাডার ফেডারেল কোর্ট৷ বিএনপির সদস্য হওয়ার কারণে একজন বাংলাদেশি নাগরিকের রাজনৈতিক আশ্রয়ের আবেদন নাকচ করে দেওয়ার বিরুদ্ধে দায়ের করা জুডিশিয়াল রিভিউর আবেদন নিষ্পত্তি করতে গিয়ে ইমিগ্রেশন কর্মকর্তার সিদ্ধান্তকে বহাল রেখে বিচারক এই মন্তব্য করেছেন৷’’

সাংবাদিক গাজী নাসিরউদ্দীন আহমেদ অবশ্য ফেসবুক পাতায় বাংলাদেশের দুটি প্রধান দৈনিকে এ খবরটি প্রকাশ না করার বিষয়টি তুলে ধরে তাদের নিরপেক্ষতাকে প্রশ্নবিদ্ধ করেছেন এভাবে, ‘‘প্রথম আলো ও ডেইলি স্টার এই নিউজটি করেনি৷ এই রায়ের পুরো বিবরণ ক্যানাডার ফেডারেল কোর্টের ওয়েবসাইটে আছে৷ ডিজিএফআইয়ের সরবরাহ করা চোথা যাচাই বাছাই না করেই উদ্দেশ্যমূলক খবর প্রকাশ ও এ রকমের নিখাদ সংবাদ গোপনকারীরা এই দেশে নিউজ ইন্ডাস্ট্রির মোড়ল৷’’

আজম খান লিখেছেন, ‘‘শাহবাগ আন্দোলনের সময়ে খালেদা জিয়া নাস্তিকদের অনেক গালমন্দ করে হেফাজতিদের সাথে হাত মিলিয়েছিলেন৷ ভেবেছিলেন ইসলামিস্টরা তাকে ক্ষমতায় আনবে৷ সে আশার গুঁড়েবালি৷  আজকে কানাডার আদালত থেকে সন্ত্রাসী সংগঠন ঘোষিত হলো বিএনপি৷ আওয়ামি লীগ, তুমি এই থেকে নাও শিক্ষা৷’’

প্রিয় পাঠক, বিএনপি-কে কি আপনি সন্ত্রাসী সংগঠন মনে করেন? আপনার মতামত জানান নিচের ঘরে৷

সংকলন: অমৃতা পারভেজ

সম্পাদনা: আশীষ চক্রবর্ত্তী

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়