1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

বিআরটিসি’র স্কুল বাসে সাধারণ যাত্রী!

ঢাকায় পৌরসভা নির্বাচন, সিএনজি অটোরিক্সার ভাড়া নিয়ে বিড়ম্বনা, চালু হওয়া স্কুল বাস সার্ভিস নিয়ে প্রতিবেদন, এসবই আজকের ঢাকার পত্রপত্রিকার প্রধান খবর৷

default

পাবলিক বাসে যাতায়াতের ভোগান্তি দূর হবে

পৌর নির্বাচন

বেশিরভাগ পত্রিকার অন্যতম প্রধান খবর এটি৷ কারণ এর আগের নির্বাচনগুলোতে ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সমর্থিত প্রার্থীরা খুব একটা ভাল করতে পারেনি৷ তাই সরকারি দল বাকী বিভাগের নির্বাচনে ভাল করতে চাইছে৷ আর এ কারণে বিএনপি নির্বাচনে কারচুপির আশঙ্কা করছে৷ ফলে সব মিলিয়ে নির্বাচনের মাঠ বেশ গরম৷ আর সে কারণে পত্রিকাগুলোও বেশ গুরুত্ব দিচ্ছে পৌর নির্বাচনকে৷

সিএনজি

কাগজে কলমে নতুন ভাড়া কার্যকর হয়েছে ঠিকই, কিন্তু চালকরা আগের মতই নিজের ইচ্ছামত ভাড়া চাচ্ছেন বলে অভিযোগ পাওয়া গেছে৷ ফলে যাত্রী ও চালকের মধ্যে অপ্রীতিকর ঘটনা কালও ঘটেছে৷ সমকালে এমনই একটি ছবি ছাপা হয়েছে, যেখানে দেখা যাচ্ছে বেশি ভাড়া চাওয়ায় যাত্রীরা একটি সিএনজিতে লাথি মারছেন৷ এদিকে এখন থেকে প্রতিটি সিএনজিতে মিটার ঠিক থাকবে, মালিক সমিতির পক্ষ থেকে এমন কথা বলা হলেও, অনেক চালকই বলছেন তাদের মিটার নষ্ট বা মিটার নেই৷ তবে এসব কারণে ৫৫টি সিএনজি আটক ও ২৮৫টি সিএনজি'র বিরুদ্ধে মামলা হয়েছে বলে জানিয়েছে ইত্তেফাক৷ এছাড়া নির্ধারিত ভাড়ায় যেতে না চাওয়ার অভিযোগে চার চালককে গ্রেফতার করা হয়েছে বলে জানাচ্ছে পত্রিকাটি৷

স্কুল বাস

মিশ্র প্রতিক্রিয়ার খবর ছেপেছে পত্রিকাগুলো৷ যেমন সমকাল বলছে এই বাস চালু হওয়ায় শিক্ষার্থীরা বেশ খুশি৷ কারণ এর ফলে পাবলিক বাসে আসা-যাওয়ার যে ভোগান্তি, তা থেকে মুক্তি পেয়েছে তারা৷ তবে অনেকে এই বাসের খবর জানে না বলে গতকাল বাস অনেকটা ফাঁকা চলাচল করেছে বলে জানিয়েছে পত্রিকাটি৷ সমকালে বাসে বসে থাকা উৎফুল্ল শিক্ষার্থীদের একটা ছবিও ছাপা হয়েছে৷ তবে ডেইলি স্টারের ছবিতে দেখা যাচ্ছে, শিক্ষার্থী নয়, বাসে বসে আছে সাধারণ যাত্রী৷ আর বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম বলছে, টিকিট জটিলতা কাটাতে আপাতত স্কুলের পোশাক থাকলেই বাসে চড়তে পারবে শিক্ষার্থী ও অভিভাবকরা৷ পরে বাসে তাদের টিকিট দেয়া হবে৷

প্রতিবেদন: জাহিদুল হক

সম্পাদনা: রিয়াজুল ইসলাম

সংশ্লিষ্ট বিষয়