1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

বায়ার্ন ২২ বারের মতো বুন্ডেসলিগা চ্যাম্পিয়ন

এবং সামনে ‘ত্রিমুকুট’, অর্থাৎ জার্মান কাপ এবং চ্যাম্পিয়নস লীগ জেতার সম্ভাবনা৷ এই কৃতিত্বের অনেকটাই বায়ার্নের কোচ লুই ফ্যান গাল’এর প্রাপ্য৷

default

চ্যাম্পিয়নের শীল্ড হাতে বায়ার্ন

কিন্তু ফ্যান গাল'কে হল্যান্ডের সুদূর আল্কমার থেকে মিউনিখে নিয়ে আসার কৃতিত্ব বায়ার্ন নেতৃত্বের: ফ্রানৎস বেকেনবাউয়ার, উলি হোয়েনেস এবং কার্ল-হাইঞ্জ রুমেনিগে'র মতো বিচক্ষণ ক্লাব কর্মকর্তাদের৷ কাজেই তাঁরা এখন নিজেদের পিঠ চাপড়াতেই পারেন৷ ইয়ুর্গেন ক্লিন্সমান'কে কোচ করার সেই অভিজ্ঞতা, এবং গত মরশুমের ব্যর্থতার পর এই ৫৮ বছর বয়সী ওলন্দাজ যে এ'রকম আশ্চর্য সাফল্য এনে দেবেন, তা মিউনিখে কেউ ভাবতে পারেননি৷

তার উপর আবার ফ্যান গাল'এর আমলের সূচনায় বেশ কয়েকবার হোঁচট খেতে হয়েছে বায়ার্নকে৷ নভেম্বরেও প্রশ্ন উঠেছিল যে, ফ্যান গাল'কেও অকালে বিদায় নিতে হবে কিনা - বায়ার্ন তখন পর পর দু'টি ড্র এবং একটি পরাজয়ের পর ধরাশায়ী৷ কিন্তু বায়ার্ন সেই গ্রীষ্মেই রিয়াল মাদ্রিদ থেকে আরিয়েন রবেন'কে এনেছে ২৫ মিলিয়ন ইউরো খরচ করে৷ এছাড়া আছে আরেক নবাগত, ক্রোয়েশিয়া'র স্ট্রাইকার ইভিৎসা অলিচ৷ আছে প্লে-মেকার ফ্রঙ্ক রিবেরি৷ সম্প্রতি চোখে পড়তে শুরু করেছে থমাস ম্যুলার৷

Flash-Galerie Bundesliga letzter Spieltag

চ্যাম্পিয়ন হবার পর ফ্যান গাল’এর মাথায় বিয়ার ঠালছে বায়ার্ন খেলোয়াড়রা

ডিসেম্বরে চ্যাম্পিয়নস লীগের খেলায় ইউভেন্টুসের বিরুদ্ধে ৪-১ গোলে জেতার পর থেকেই যেন বায়ার্ন'কে আর চেনা যায় না৷ ওদিকে বায়ার্ন'রা তাদের কোচকে চিনতে শুরু করে৷ ফ্যানরা এবং ক্লাব কর্মকর্তারা তো বটেই, সেই সঙ্গে প্লেয়াররাও বুঝতে শুরু করে, কেন ফ্যান গাল প্রতিটি খেলার পর সেই খেলার নির্মম বিশ্লেষণ করেন৷ তাঁর সমালোচনা গঠনমূলক, তিনি চান একটি দল গড়তে৷

কাজেই বায়ার্ন যখন এই শনিবার হের্থা বার্লিন'কে ৩-১ গোলে হারিয়ে চ্যাম্পিয়নের প্লেটটি হাতে নিল, তখন শালকে তাদের পাঁচ পয়েন্ট পিছনে৷ তৃতীয় স্থানে ভের্ডার ব্রেমেন, তারা নয় পয়েন্ট পিছিয়ে৷ শালকে'র তা'তে অখুশী হবার কথা নয়, কেননা তারা একটি আশ্চর্য সীজন খেলেছে৷ ব্রেমেনের কিছু আত্মসমালোচনার প্রয়োজন হতে পারে৷ আর বায়ার্ন? সামনে ‘ত্রিমুকুট' ছাড়াও - যা কিনা সত্তরের দশকে বেকেনবাউয়ারের স্বর্ণযুগেও বায়ার্নের ধরাছোঁয়ার বাইরে ছিল - রয়েছে জুনে বিশ্বকাপ৷ জার্মানির জাতীয় কোচ ইওয়াখিম লোয়েভ বায়ার্ন থেকে সাতজন খেলোয়াড় নিচ্ছেন৷ এর চাইতে বড় স্বীকৃতি আর কি হতে পারে?

প্রতিবেদক: অরুণ শঙ্কর চৌধুরী

সম্পাদনা: সুপ্রিয় বন্দোপাধ্যায়

সংশ্লিষ্ট বিষয়