1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিজ্ঞান পরিবেশ

বাসায় পার্সেল পৌঁছে দেবে ড্রোন

লেটারবক্সে চিঠি পেয়েছেন, ডাক কর্মী পার্সেল দিয়ে গেছে অথবা ডাকঘরে গিয়ে সই করে রেজিস্ট্রি চিঠি বা পার্সেল নিয়ে এসেছেন৷ এতোদিন এমন হলেও আর কষ্ট করতে হবে না, কারণ এবার পার্সেল পৌঁছে দেবে ড্রোন৷

পরিষেবার নাম রাখা হয়েছে ‘প্রাইম এয়ার'৷ অ্যামাজন কোম্পানি এর মাধ্যমে অর্ডার দেয়ার ৩০ মিনিটের মধ্যে দোরগোড়ায় পার্সেল পৌঁছে দেয়ার পরিকল্পনা করছে৷ তবে সেই পার্সেল বেশি ভারি হলে চলবে না৷ ২ কিলোর সামান্য বেশি ওজন বয়ে আনতে পারবে ‘অক্টোপিটার' নামের মিনি ড্রোন৷ দেখতে অনেকটা কম্পিউটারের ফ্ল্যাটস্ক্রিন মনিটরের মতো৷ ওড়ার জন্য হেলিকপ্টারের মতো মোট ৮টা প্রপেলর রয়েছে৷ আর দাঁড়ানোর জন্য আছে ৪টি পা৷ অ্যামাজনের গুদামে তা প্রস্তুত থাকবে৷

গ্রাহক অর্ডার দিয়ে দাম মেটানোর সঙ্গে সঙ্গে ‘অক্টোপিটার' তা ঘাড়ে নিয়ে আকাশে উড়বে৷ প্রাপকের ঠিকানা নয়, তার বাড়ির অবস্থান জেনে নিয়ে জিপিএস-এর ভিত্তিতে নির্দিষ্ট ঠিকানায় সেটি পৌঁছে দিয়ে আবার তার ঘাঁটিতে ফিরে আসবে৷ তবে বেশি দূরে যাবার ক্ষমতা নেই এই যন্ত্রের৷ তার পরিবেশবান্ধব ইলেকট্রিক ইঞ্জিন বড়জোর ১৬ কিলোমিটার দূর পর্যন্ত যেতে পারে৷ ফেরার জন্যও তো শক্তি রাখতে হবে!

বলা বাহুল্য, আপাতত অ্যামেরিকায় পরীক্ষামূলক ভিত্তিতে এমন প্রচেষ্টা চলছে৷ অ্যামাজন কোম্পানির প্রধান জেফ বেজোস এই প্রযুক্তির সপক্ষে বেশ কিছু কারণ দেখিয়েছেন৷ প্রথমত ট্রাকে করে ডেলিভারির ফলে যে জ্বালানি ব্যয় হয়, তার তুলনায় এই ড্রোনের চাহিদা অনেক কম৷ তাছাড়া ড্রোনের মধ্যে বাড়তি মোটর থাকায় ভেঙে পড়ার আশঙ্কাও নেই বলে তিনি দাবি করেছেন৷

এমন অভিনব পরিষেবা চালু করতে হলে কর্তৃপক্ষের বেশ কিছু অনুমতির প্রয়োজন৷ কোম্পানির আশা, ২০১৫ সালেই বাণিজ্যিক ভিত্তিতে ‘প্রাইম এয়ার' পরিষেবা চালু করা সম্ভব হবে৷ মার্কিন ফেডারেল এভিয়েশন কর্তৃপক্ষের ধারণা, আগামী ৫ বছরেই অ্যামেরিকার আকাশে প্রায় ৭,৫০০ চালকবিহীন বিমান চলাচল শুরু হবে৷

অ্যামাজন সত্যি এমন পথ দেখাতে পারলে ড্রোন পরিষেবা আরও ছড়িয়ে পড়বে বলে মনে করছেন বিশেষজ্ঞরা৷ তখন পাড়ার মুদির দোকান বা পিৎসা-র দোকানও ড্রোনের সাহায্যে ক্রেতার বাড়িতে জিনিসপত্র পাঠাতে শুরু করতে পারে৷

এসবি / জেডএইচ (এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন