1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

‘বাল্যবিবাহ কমাতে পারছে না নেপাল'

নেপালে বাল্যবিবাহের হার দেখে উদ্বেগ প্রকাশ করেছে হিউম্যান রাইটস ওয়াচ৷ মানবাধিকার সংস্থাটি মনে করে, বাল্যবিবাহ রোধ করার জন্য সে দেশে কার্যকর পদক্ষেপ নেয়া হচ্ছে না, অনেক ক্ষেত্রে বরং এমন বিয়ে সরকারিভাবে নথিভুক্ত হচ্ছে৷

নেপালে ১৯৬৩ সাল থেকেই বাল্যবিবাহ আইনত দণ্ডনীয়৷ কিন্তু আইন করে গত ৫৩ বছরে বাল্যবিবাহ কমানো তো যায়ইনি, বরং এ ধরনের আইনবহির্ভূত বিয়ে বৃদ্ধির হার মানবাধিকার সংস্থাগুলোকে শঙ্কিত করছে৷ দক্ষিণ এশিয়ার এই দেশটির শতকরা ১৮ ভাগ মেয়েরই বয়স ১৮ হবার আগে বিয়ে হয়ে যায়৷

সম্প্রতি ‘আওয়ার টাইম টু সিং অ্যান্ড প্লে' শিরোনামে ‘হিমালয়ের দেশ' নেপালের শৈশবেই বিয়ে হয়ে যাওয়া শতাধিক মেয়ের সাক্ষাৎকারভিত্তিক এক প্রতিবেদন প্রকাশ করেছে হিউম্যান রাইটস ওয়াচ৷ প্রতিবেদনে বলা হয়, সরকারের যথেষ্ট উদ্যোগের অভাব এবং সাম্প্রতিক ভূমিকম্পের কারণে দেশটিতে বাল্যবিবাহ বাড়ছে৷

নেপাল সরকারের পক্ষ থেকে অবশ্য দাবি করা হচ্ছে, নির্ধারিত বয়সের আগে কেউ যাতে বিয়ে না করে, তা নিশ্চিত করতে যথেষ্ট কড়াকড়ি আরোপ করা হচ্ছে এবং তার সুফলও পাওয়া যাচ্ছে৷ নারী, শিশু ও সমাজকল্যাণ অধিদপ্তরের ড. কিরন রূপাখেতি বলেন, ‘‘এই প্রথমবারের মতো সাংবিধানিকভাবে বাল্যবিবাহ নিষিদ্ধ হয়েছে৷''

সম্প্রতি প্রণয়ন করা এক আইনে বলা হয়েছে, কোনো নারী বা পুরুষ বয়স আঠারো হওয়ার আগে বিয়ে করলে সেই বিয়ে অবৈধ বলে গণ্য হবে৷ এমন বিয়ের শাস্তি তিন বছরের কারাদণ্ড এবং ১০ হাজার নেপালি টাকা জরিমানা৷

ভিডিও দেখুন 01:41

কিন্তু নিউইয়র্কভিত্তিক মানবাধিকার সংস্থা হিউম্যান রাইটস ওয়াচ বলছে, নেপালে বাল্যবিবাহ রোধে কঠোর আইন প্রণয়ন করা হলেও তার চর্চা হয়না, বরং, এমন বিয়েকে ‘সামাজিক বাস্তবতা' মেনে সরকারিভাবে তা নথিভুক্তও করা হয়৷ একই কারণে পুলিশও এমন বিয়ের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়না৷ তাই নেপালে বাল্যবিবাহ কমছে না৷

এসিবি/এসবি (এএফপি, এপি)

আপনার কী মনে হয়? কেন বাল্যবিবাহ কমাতে পারছে না নেপাল? লিখুন নীচের ঘরে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়