1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

বার্সাকে নয়, সব ‘কৃতিত্ব’ রেফারিকে দিলেন পেলেগ্রিনি

চ্যাম্পিয়ন্স লিগের নকআউট পর্ব শুরুর প্রথম দুটি ম্যাচের একটিতে ইংল্যান্ড থেকে জয় নিয়ে ফিরেছে বার্সেলোনা৷ অন্যটিতে পিএসজি লেভারকুজেনকে উড়িয়ে দিয়েছে ৪-০ গোলে৷ তবে এবার মেসি নয়, আলোচনার কেন্দ্রে আছেন রেফারি!

default

এই সেই ফাউল

মঙ্গলবার চ্যাম্পিয়ন্স লিগের উত্তেজনাপূর্ণ ম্যাচে ম্যানচেস্টার সিটিকে ২-০ গোলে হারিয়েছে বার্সেলোনা৷ ম্যাচে উত্তেজনা প্রত্যাশিতই ছিল৷ তবে প্রত্যাশাটা ছিল ফুটবল দক্ষতার প্রতিদ্বন্দ্বিতাকেন্দ্রিক৷ ম্যাচে প্রতিদ্বন্দ্বিতা ছিল ঠিকই৷ তবে উত্তেজনাটা চরমে ওঠে ৫৩ মিনিটে সুইডেনের রেফারি ইয়োনাস এরিকসন ম্যানচেস্টার সিটির বিরুদ্ধে পেনাল্টি ঘোষণা করায়৷ ফাউল করায় ম্যানসিটির ডিফেন্ডার মার্টিন ডেমিচেলিসকে লাল কার্ড দেখানো এবং পেনাল্টি – এই দু আঘাত সামলে আর ম্যাচে ফিরতে পারেনি ম্যানসিটি৷ পেনাল্টি থেকে মেসি এবং স্টপেজ টাইমে ব্রাজিলের দানি আলভেস গোল করলে হোম ম্যাচে হার নিয়েই মাঠ ছাড়তে হয়ে ইংল্যান্ডের ক্লাবটিকে৷

ম্যাচ শেষে ম্যানসিটির ম্যানেজার মানুয়েল পেলেগ্রিনি এক হাত নিয়েছেন রেফারি এরিকসনকে৷ সংবাদ সম্মেলনে এ ম্যাচ হারার জন্য তিনি রেফারিকেই দায়ী করেন৷ তাঁর দাবি, ৫৩ মিনিটে মেসির গোলে এগিয়ে যাওয়ার আগ পর্যন্ত একটাও সুযোগ তৈরি করতে পারেনি বার্সেলোনা৷ ওই সময় পেনাল্টি দেয়ার পাশাপাশি ডেমিচেলিসকে রেফারি লাল কার্ড দেখিয়ে মাঠ থেকে বের করে দেয়ায় ১০ জন নিয়ে খেলতে হয় ম্যানসিটিকে – এই দুটো বিষয় তুলে ধরে ইটালীয় ম্যানেজার আরো দাবি করেন, ডেমিচেলিসের ফাউলটা ছিল পেনাল্টি বক্সের বাইরে, তা থেকে কখনো পেনাল্টি হতে পারে না৷

পেনাল্টির আগে নাভাসের ফাউল ধরেননি বলেও সুইডিশ রেফারির সমালোচনা করেছেন পেলেগ্রিনি৷ তিনি জানান, ম্যাচের পর বিষয়টি নিয়ে রেফারির সঙ্গেও কথা বলেছেন এবং তাঁকে বলেছেন, ‘‘এ ম্যাচের ফলাফল আপনিই নির্ধারণ করেছেন, সুতরাং আপনার খুশি হওয়া উচিত৷'' স্বল্পভাষী হিসেবে পরিচিত পেলেগ্রিনি এভাবে প্রকাশ্যে রেফারির সমালোচনা করায় উয়েফার শাস্তির মুখে পড়তে পারেন৷

এসিবি/জেডএইচ (রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন