বার্লিনে শাহরুখ খান ও জার্মান সংবাদ মাধ্যম | সমাজ সংস্কৃতি | DW | 15.02.2010
  1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

বার্লিনে শাহরুখ খান ও জার্মান সংবাদ মাধ্যম

বার্লিন আন্তর্জাতিক চলচ্চিত্র উৎসবে যোগ দিতে আসা ভারতের চলচ্চিত্র তারকা শাহরুখ খান ও তাঁর বিরুদ্ধে হিন্দু জাতীয়তাবাদী আঞ্চলিক দল শিব সেনার রোষ জার্মান সংবাদ মাধ্যমেরও নজর কেড়েছে৷

default

ভারতের চলচ্চিত্র তারকা শাহরুখ খান

বার্লিনের দৈনিক ‘টাগেসসাইটুং' লিখেছে, বলিউডের সবচেয়ে বিখ্যাত তারকা এর আগে কখনো এতটা রাজনৈতিক বিতর্কে জড়িয়ে পড়েন নি৷ একেবারে মোক্ষম সময়ে তিনি বার্লিন চলচ্চিত্র উৎসবে এলেন৷ আরও পরিণত এক শাহরুখকে দেখতে পাচ্ছে বার্লিন৷ বিতর্কের প্রেক্ষাপট সম্পর্কে সংক্ষিপ্ত বিবরণ দিয়ে ‘টাগেসসাইটুং' লিখেছে, শিব সেনার কাছে ক্ষমা না চেয়ে তিনি রাষ্ট্র হিসেবে ভারতের আইন-শৃঙ্খলার কাঠামোকে কঠিন পরীক্ষার সামনে ফেলেছেন৷ এসআরকে মুসলিম হিসেবে আত্মপরিচয় এবং ধর্মীয় সহিষ্ণুতায় পক্ষে অবস্থান নিয়ে এসেছেন৷ তাঁর স্ত্রী হিন্দু ও তাঁর দুই সন্তান উভয় ধর্মের শিক্ষাই গ্রহণ করে৷ ‘মাই নেম ইজ খান' ছবিতে তিনি নিজস্ব অর্থও লগ্নি করেছেন৷ মুম্বই শহরে এই ছবির প্রদর্শনের সময় হিংসাত্মক ঘটনা ঘটলে তিনি চিরকালের জন্য রাজনীতির বেড়াজালে জড়িয়ে পড়বেন৷

‘স্যুডডয়চে সাইটুং' লিখেছে, বলিউড সাধারণত রাজনীতি থেকে নিজেকে দূরে রাখে৷ শাহ রুখ খানের মত তারকা দর্শকদের রঙিন স্বপ্নের জগতে নিয়ে যান৷ গাড়ি থেকে শুরু করে ঘড়ি – বিভিন্ন রকম বিজ্ঞাপনে তাঁর মুখ দেখা যায়৷ কিন্তু কোটি কোটি ক্রিকেট অনুরাগীর মনের কথা বলে ভারত-পাকিস্তানের জটিল সম্পর্কের বেড়াজালে পড়ে গেছেন শাহ রুখ খান৷ এই দুই দেশের সম্পর্কের সব ক্ষেত্রই রাজনীতির ছায়ার মধ্যে পড়ে – এমনকি খেলাধুলাও এর বাইরে নয়৷

‘হান্ডেল্সব্লাট' পত্রিকা সামগ্রিকভাবে বার্লিন চলচ্চিত্র উৎসবে বলিউড সম্পর্কে বেড়ে চলা উৎসাহের দিকে নজর দিয়েছে৷ এমনকি উৎসবের কর্ণধার গত বছর নিজে ভারত ছুঁয়ে এসেছেন৷ জার্মানির টেলিভিশন দর্শকদের কাছে শাহরুখ খান বলিউডেরই নামান্তর৷ গত বছর শাহরুখ যখন বার্লিনে এসেছিলেন, তখন জার্মান অনুরাগীদের ভিড়ের কারণে রাস্তা বন্ধ রাখতে হয়েছিল৷ তিনি নিজেও জার্মান ফ্যানদের এই উৎসাহ দেখে অভিভূত৷ তিনি মন্তব্য করেছিলেন, ‘‘সব কিছুর জন্যই জার্মানদের একটা করে সুইচ আছে, আর আমি হলাম কান্নার সুইচ৷'' ২০০৪ সাল থেকেই জার্মানিতে বলিউডের প্রভাব বেড়ে চলেছে৷ আরটিএল ২-এর মত বাণিজ্যিক টেলিভিশন চ্যানেল জার্মান ভাষায় ডাব করা বলিউড ছবি দেখিয়ে চলেছে৷ এছাড়া বাজারে বলিউড ছবির ডিভিডি-র বিক্রির হিসাবও খারাপ নয়৷ এবার হলিউডের প্রযোজকেরাও বলিউড ছবিতে বাণিজ্যিক লগ্নি করতে শুরু করায় এই বাজার আরও সম্প্রসারিত হবে বলে মন্তব্য করেছে ‘হান্ডেল্সব্লাট'৷

সঙ্কলন ও ভাষান্তর: সঞ্জীব বর্মন, সম্পাদনা: আব্দুল্লাহ আল ফারূক

সংশ্লিষ্ট বিষয়