1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

বার্লিনে তাহরির চত্বর আন্দোলনের জয়

মিশরের সাবেক প্রেসিডেন্ট হোসনি মুবারকের পতনে তাহরির চত্বরে জড়ো হওয়া মানুষের যেমন বিজয় হয়েছে, তেমনি সেই আন্দোলন নিয়ে নির্মিত একটি তথ্যচিত্র এবার নেমেছে বিশ্বজয়ে৷

শনিবার বার্লিন চলচ্চিত্র উৎসব বার্লিনালেতে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল ফিল্ম প্রাইজ জিতে নেয় ‘আল মিদান' নামের একটি ডকুমেন্টারি, যার ইংরেজি নাম ‘দ্য স্কয়ার'৷ অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল ২০০৫ সাল থেকে মানবাধিকার বিষয়ে নির্মিত বিভিন্ন ছবির মধ্য থেকে সেরা হিসেবে একটিকে বেছে নেয়৷

Berlinale Fillmstills Al midan

মিশরীয় তরুণদের আন্দোলনে অংশ নেয়ার বাস্তব চিত্র ফুটে উঠেছে তথ্যচিত্রে

এর আগে সানড্যান্স ফিল্ম ফ্যাস্টিভ্যাল, টরোন্টো ফিল্ম ফ্যাস্টিভ্যালসহ আরো কয়েক জায়গায় প্রশংসিত হয়েছে আল মিদান৷ এমনকি চলতি বছর অস্কারের বেস্ট ডকুমেন্টারি ফিচার বিভাগের জন্য মনোনীত হয়েছে তথ্যচিত্রটি৷ এ কারণে পুরস্কার নিতে শনিবার বার্লিনে উপস্থিত থাকতে পারেননি ছবির পরিচালক জেহান নুজাইম৷ তিনি এখন যুক্তরাষ্ট্রে অবস্থান করছেন৷ আগামী মাসের ২ তারিখ অস্কার বিজয়ীর নাম জানা যাবে৷

আহমেদ, খালেদ ও মাগদি নামের তিন মিশরীয় তরুণের আন্দোলনে অংশ নেয়ার বাস্তব চিত্র ফুটে উঠেছে তথ্যচিত্রে৷ ২০১১ সাল থেকে ২০১৩ সাল পর্যন্ত ধর্মীয় ও সামাজিকভাবে ভিন্নভাবে বেড়ে ওঠা এই তরুণের পেছনে ক্যামেরা নিয়ে ছুটেছেন নুজাইম৷ ফলে আন্দোলনের ধরন অনুযায়ী কখনো আনন্দ, কখনোবা দুঃখের এক বাস্তব চিত্র ফুটিয়ে তুলতে পেরেছেন তিনি৷

Filmmacherin Jehane Noujaim

ছবির পরিচালক জেহান নুজাইম

আল মিদানকে নির্বাচন করার পেছনে এটি একটি বড় কারণ বলে উল্লেখ করেছেন জুরিমণ্ডলী৷ তারা বলেন, ছবির ভিজ্যুয়াল ল্যাঙ্গুয়েজের প্রতিই তারা বেশি আকৃষ্ট হয়েছেন৷

শনিবার যে অনুষ্ঠানে আল মিদানকে পুরস্কার দেয়া হয়, সেই একই মঞ্চে এশীয় ছবির প্রতিও সম্মান জানান বার্লিনালের আয়োজকরা৷ ‘এ ড্রিম অফ আয়রন' এবং ‘নন ফিকশন ডায়েরি ' নামের দুটো ছবি এবার বার্লিনালের ন্যাটপ্যাক পুরস্কার জিতেছে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন