1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

জার্মানি

বার্লিনে ‘ট্রাক হামলা’, ১২ জন নিহত

সোমবার সন্ধ্যায় জার্মানির রাজধানী বার্লিনের এক ক্রিস্টমাস মার্কেটে একটি ট্রাক তীব্র গতিতে ঢুকে পড়ে৷ এতে এ পর্যন্ত অন্তত ১২ জনের মৃত্যু নিশ্চিত করেছে পুলিশ৷ এ ঘটনায় আরো হতাহতের আশঙ্কা করা হচ্ছে৷

আসন্ন বড় দিন উপলক্ষ্যে জার্মানির অন্য সব শহরের মতো রাজধানী বার্লিনও এখন উৎসবমুখর৷ তবে উৎসবের আনন্দের মাঝেই সোমবার নগরীর ব্রাইটশাইড প্লাৎস স্কয়ারের ক্রিস্টমাস মার্কেটে ঢুকে পড়ে ট্রাক৷ ট্রাক চাপায় অনেকে আহত হন৷ এ পর্যন্ত ১২ জনের মৃত্যু সম্পর্কে নিশ্চিত হওয়া গেছে৷ ট্রাকের চালক প্রথমে পালিয়ে গেলেও পুলিশ তাকে আটক করেছে৷

ঘটনার কিছুক্ষণের মধ্যেই এলাকাটি ঘিরে ফেলে পুলিশ৷ ট্রাক হামলার খবর পুলিশ কর্তৃপক্ষ নিজেদের টুইটার অ্যাকাউন্ট থেকে জানিয়েও দেয় সবাইকে৷


আতঙ্কিত না হয়ে সবাইকে রাস্তায় না বেরোনোর পরামর্শও দেয়া হয়৷ জার্মান সংবাদ মাধ্যম জানাচ্ছে, ট্রাকটি নিয়ে চালক ক্রিস্টমাস মার্কেটের প্রায় আশি মিটার ভিতরে ঢুকে পড়ে৷ 


ফলে ট্রাকের যাত্রাপথে যারা পড়েছেন, তাদের প্রত্যেকেই আহত হয়েছেন৷ আহতদের মধ্যে ইতিমধ্যে ১২ জন মারা গেলেও বাকিদের মধ্যে কয়জন গুরুতর আহত তা এখনো জানা যায়নি৷ 


ঘটনাস্থলের ভিডিও চিত্র ধারণ করে সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে শেয়ার না করার জন্য সবার প্রতি বিশেষ অনুরোধ জানিয়েছে পুলিশ৷


সংবাদ মাধ্যমের খবর অনুযায়ী, ট্রাকে উপস্থিত এক ব্যক্তি নিহত হলেও চালক পালিয়ে গিয়েছিল৷ তবে পরে পুলিশ তাকে আটক করেছে৷ জানা গেছে, উৎসবের আনন্দে মৃত্যুর আতঙ্ক হয়ে ঢুকে পড়া ট্রাকটির লাইসেন্স প্লেট পোল্যান্ডের৷ চালকের পরিচয় এখনো পুলিশ প্রকাশ করেনি৷ 


ঘটনার তদন্ত শুরু হয়েছে৷ স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ইতিমধ্যে চ্যান্সেলর ম্যার্কেলকে ঘটনা সম্পর্কে জানিয়েছে৷ ম্যার্কেল সরকারের মুখপাত্র স্টেফেন সাইবার্ট টুইটারে লিখেছেন, ‘‘নিহতদের জন্য আমরা শোকাহত৷ আশা করছি যাঁরা আহত হয়েছেন, তাঁদের রক্ষা করা যাবে৷’’ 


এদিকে বার্লিনের মেয়র মিশেল ম্যুলার দাবি করেছেন, ‘‘পরিস্থিতি এখন নিয়ন্ত্রণে৷’’
আকস্মিক এ ঘটনার বিস্তারিত জানতে সবাইকে আরো কয়েক ঘণ্টা অপেক্ষা করতে হবে৷ আজ জার্মানির স্থানীয় সময় দুপুর একটায় সংবাদ সম্মেলন করবে পুলিশ৷ তদন্তে প্রাপ্ত তথ্য তখনই জানানো হবে৷
 

এসিবি/ ডিজি (ডিপিএ, রয়টার্স, এপি, এএফপি) 

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়