1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

বার্লিনের পোশাকে বাংলাদেশের রানা প্লাজা

বছরের এই সময়টায় ফ্যাশন বা মডেলিং জগতের সবার নজর থাকে বার্লিনের দিকে৷ এবার উঠতি মডেল আর ডিজাইনারদের মিলনমেলা ‘বার্লিন ফ্যাশন উইক'-এ বাংলাদেশের পোশাক শ্রমিকদের দুর্দশার চিত্রেও যেন একটুখানি আলো পড়েছে৷

গত বছর সাভারের রানা প্লাজা ধসে পড়ায় এক হাজারেরও বেশি পোশাক শ্রমিক প্রাণ হারান৷ বাংলাদেশে পোশাক শিল্প কারখানায় শ্রমিকদের দুরবস্থা আর অসহায়ত্ব ফুটে ওঠে এই ঘটনায়৷ বিরূপ প্রতিক্রিয়া দেখা দেয় আন্তর্জাতিক পর্যায়ে৷ ১৪ জানুয়ারি থেকে শুরু হয়েছে বার্লিন ফ্যাশন সপ্তাহ৷ সেখানে মডেলদের নিজের ডিজাইন করা পোশাক পরিয়ে আবার ডিজাইনার হিসেবে অস্তিত্ব রক্ষার লড়াইয়ে নেমেছেন ববি কোলাডে৷

জার্মান বাবা আার নাইজেরিয়ান মায়ের সন্তান ববি বড় হয়েছেন উগান্ডায়৷ বয়স ২৬৷ উগান্ডা থেকে বার্লিনে এসেছিলেন ফ্যাশন নিয়ে পড়াশোনা করতে৷ পড়াশোনা শেষ৷ এখন চলছে ডিজাইনার হিসেবে প্রতিষ্ঠিত হওয়ার সংগ্রাম৷ এ সংগ্রামে পোশাক শ্রমিকদেরও সতীর্থই ভাবেন৷

Berlin Fashion Week 2014 Bobby Kolade

ববি কোলাডের সোয়েটারে রানা প্লাজার ছবি

তাই রানা প্লাজার হতভাগ্যদের জন্যও ববির ভালোবাসার কমতি নেই৷ বার্লিনের ফ্যাশন নিয়ে সপ্তাহব্যাপী এ আয়োজনে গত বছর অংশ নিয়ে পেয়েছিলেন সেরা তরুণ ডিজাইনারের পুরস্কার৷

পুরস্কারটি অবশ্য ববির ভাগ্যে খুব বেশি পরিবর্তন আনেনি৷ খ্যাতিও দেশের সীমানা ছাড়ায়নি৷ তবে এবার ছাড়ালো৷ এবারের ‘বার্লিন ফ্যাশন উইক'-এ তাঁর ডিজাইন করা পোশাক নজর কেড়েছে সবার৷ যা করেছেন সে সম্পর্কে জানলে বাংলাদেশের প্রতিটি মানুষেরই ববি কোলাডেকে শ্রদ্ধা করার কথা৷ এবারের ফ্যাশন উইকে ববির ডিজাইন করা সোয়েটারে ছিল ধসে পড়া রানা প্লাজার ছবি৷ ববি কোলাডের পোশাক শুধু লজ্জা নিবারণের আবরণ নয়, খ্যাতির শিখরে ওঠার অদম্য বাসনাকে পাশে রেখে অনেকটাই শ্রমিকের পক্ষে সদর্প স্লোগান৷

‘বার্লিন ফ্যাশন উইক' উঠতি এবং উদ্যমী মডেল আর ডিজাইনারদের তুলে আনার নিয়মিত আয়োজন৷ এই আয়োজনকে সামনে রেখে সারা বছর স্বপ্ন দেখেন কয়েক হাজার তরুণ-তরুণী৷ সীমিত সামর্থ্যকে পুঁজি করেই জানুয়ারির এ উৎসবের জন্য প্রস্তুত করেন নিজেদের৷ খ্যাতি, প্রতিষ্ঠা, ব্যাংক ব্যালেন্স – এসব হাতে গোনা কয়েকজনেরই ভাগ্যে জোটে৷ তবু উৎসাহে কমতি নেই৷ উৎসবের জৌলুসও বাড়ছে বৈ কমছে না৷

জার্মানির রাজধানী বার্লিন এখন কমপক্ষে ৮০০ তরুণ ফ্যাশন ডিজাইনারের আবাস৷ তাঁরাই ‘বার্লিন ফ্যাশন উইক'-এর প্রাণ৷ ফ্যাশনের এই বার্ষিক উৎসবকে সফল করতে জার্মান সরকারও বেশ উদ্যোগী৷ প্রতি বছর এই ফ্যাশন সপ্তাহকে কেন্দ্র করে আয় হয় প্রায় ২৫০ কোটি ইউরো৷ এমন আয়োজনকে সরকার পৃষ্ঠপোশকতা না দিয়ে পারে!

ববি কোলাডে, কার্লোটা ভিল্ডেসহ অনেক তরুণ ফ্যাশন ডিজাইনার এবারও উৎসবে এসেছেন নিজেদের ডিজাইন করা পোশাকের অভিনবত্বে দর্শক, ক্রেতাদের মুগ্ধ করতে৷ তাঁদের সামনে দুটি পথ খোলা৷ একদিকে হতাশা, অন্যদিকে আশার আলো৷ একদিকে সিসি ওয়াসাবি, ম্যাকুয়ার মতো ডিজাইনার, স্বপ্ন আপাতত বিফলে যাওয়ায় যাঁরা দেউলিয়া হয়েছেন; অন্যদিকে লালা বার্লিন কিংবা কাভিয়ার গোশের মতো সফল খ্যাতিমান, যাঁদের ডিজাইন করা পোশাক প্রায় নিয়মিতই পরেন রিহানা আর কেটি পেরির মতো তারকারা৷ ববি কালাডে, কার্লোটা ভিল্ডেরা স্বকীয়তা বজায় রেখে লালা বার্লিনদের মতো হবারই স্বপ্ন দেখেন৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়