1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

বারাণসী বিস্ফোরণে ইন্ডিয়ান মুজাহিদিনের হাত আছে বলে সন্দেহ

ভারতের পবিত্র শহর বারাণসীতে গতকালের বিস্ফোরণে নিহত এক, আহত ৩১জন৷ ইন্ডিয়ান মুজাহিদিন নামে এক সন্ত্রাসী গোষ্ঠী বিস্ফোরণের দায়িত্ব স্বীকার করেছে৷ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পি.চিদাম্বরম আজ পরিস্থিতি দেখতে বারাণসী যান৷

Hindu, Varanasi

হিন্দুদের পবিত্র শহর বারাণসীর একটি ঘাট

হিন্দুদের পবিত্র শহর বারাণসী বোমা বিস্ফোরণের তদন্তে নেমে প্রাথমিক সাফল্য পেয়েছে পুলিশ৷ এই বিস্ফোরণের পেছনে আসল মাথা যাঁর সেই ড: শাহনাওয়াজ এবং আসাদুল্লাকে চিহ্নিত করতে পেরেছে পুলিশ৷ দুজনেই ২০০৮ সালে দিল্লি বিস্ফোরণ এবং ঐ একই বছরে দিল্লির বাটলা হাউস সংঘর্ষে এরাই জড়িত ছিল বলে পুলিশ মনে করছে৷ নিষিদ্ধ ইন্ডিয়ান মুজাহিদিন গোষ্ঠীর হয়ে হামলার ছক কষতো এরাই৷ তাই বিস্ফোরণের ধরণে অনেক মিল আছে৷ পুলিশ সেই সূত্রে তিনজনকে আটক কোরে জিজ্ঞাসাবাদ করছে৷ ড: শাহনাওয়াজ লক্ষ্ণৌ-এর একটি নার্সিং হোমে কাজ করেন৷ তাঁর ভাই সঈফ অন্য এক বিস্ফোরণ মামলায় এখন গুজরাট পুলিশের হেফাজতে৷

ইন্ডিয়ান মুজাহিদিন ই-মেলে এই বিস্ফোরণের দায়িত্ব স্বীকার করেছে৷ ই-মেলটি পাঠানো হয় মুম্বই থেকে৷ তাতে বলা হয় এই বিস্ফোরণ বাবরি মসজিদ ধ্বংসের বদলা৷ বিস্ফোরণে ব্যবহার করা হয়েছে অ্যামোনিয়াম নাইট্রেট ও অ্যালুমিনিয়াম পেরেক৷ কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পি.চিদাম্বরম আজ বারাণসীতে গঙ্গানদীর শীতলা ঘাটে বিস্ফোরণস্থল পরিদর্শন করে হাসপাতালে আহতদের দেখতে যান৷ পরে সাংবাদিকদের জানান, সরকারের হিসেব অনুযায়ী নিহত এক আহত ৩১জন৷ নিহত হয় একটি শিশু৷ আহতদের মধ্যে একজনের অবস্থা গুরুতর৷ কেন্দ্রীয় গোয়েন্দা এজেন্সি সন্ত্রাসী হামলা সম্পর্কে রাজ্য সরকারকে সতর্ক করে দিয়েছিল কিন্তু রাজ্য সরকার তাতে কান দেয়নি, বলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী পি.চিদাম্বরম৷

Mujahideen

কাশ্মিরে ইন্ডিয়ান মুজাহিদিন গোষ্ঠীর একটি অংশ

এই বিস্ফোরণ নিয়ে রাজনৈতিক দলগুলি দলীয় লাইনে প্রতিক্রিয়া জানায়৷ উত্তরপ্রদেশে বিরোধীদল সমাজবাদী পার্টি বলেছে বারাণসীর গঙ্গাঘাট খুবই স্পর্শকাতর স্থান৷ সন্ত্রাসী হামলার আশঙ্কা সম্পর্কে গোয়েন্দা সূত্রে সতর্ক করা সত্ত্বেও রাজ্যের মায়াবতী সরকার স্পর্শকাতর জায়গায় উপযুক্ত নিরাপত্তার ব্যবস্থা করতে পারেনি৷ বিজেপির অভিযোগ, কেন্দ্র ও রাজ্য সরকারের তোষণ নীতিই এজন্য দায়ী৷ মুখ্যমন্ত্রী মায়াবতী কেন্দ্রের কোর্টে বল ঠেলে দিয়ে বলেছেন, মুম্বই-এর মত বারাণসীর জন্যও অ্যান্টি-টেররিজম বাহিনী দেয়া উচিত ছিল৷ কংগ্রেস বলেছে, ৬ই ডিসেম্বরে বাবরি মসজিদ ধ্বংসের কথা মাথায় রেখে রাজ্য সরকারের আরো সতর্ক হওয়া উচিত ছিল৷

বারাণসী বিস্ফোরণের নিন্দা জানিয়েছে জার্মানি ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র৷ নতুনদিল্লির জার্মান দূতাবাসের উপ-প্রধান খৃস্টিয়ান মাথিয়াস শ্লাগা স্বরাষ্ট্র সচিব জি.কে পিল্লাই-এর সঙ্গে দেখা করে বলেছেন, এই মর্মান্তিক সময়ে জার্মান জনগণ ভারতের পাশে আছে৷ এই বিস্ফোরণের তদন্তে সাহায্য করতে চেয়েছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র৷ জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা শিবশঙ্কর মেননের সঙ্গে দেখা করে একথা জানান ভারতে নিযুক্ত মার্কিন রাষ্ট্রদূত টিমোথি রোমার৷

প্রতিবেদন: অনিল চট্টোপাধ্যায়, নতুনদিল্লি

সম্পদনা: আব্দুল্লাহ আল-ফারূক