1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

পাঠক ভাবনা

‘বাবা মায়া’কে বলছি!

শফিকুল ইসলাম জীবন, ঢাকা থেকে তাঁর লম্বা ই-মেলে লিখেছেন ঠিক এভাবে – নারায়ণগঞ্জের ঘটনায় চাপে মন্ত্রী মায়া, বাবা মায়া’কে বলছি! আপনার মতো প্রতাপশালী একজন মন্ত্রীকে বাবা বলার জন্য ক্ষমা চাই!

মাত্র দু'সপ্তাহ আগে আমার বাবা স্ট্রোকে মারা গেলো! আপনি আমার বাবা বয়সি! বাবা বয়সি এখন যাঁকেই দেখি, তাঁকেই আমার বাবা বাবা লাগে! তাই আপনার প্রতি বাবার শ্রদ্ধা জানিয়েই বলছি, বাবা আপনি সরে দাঁড়ান, পদত্যাগ করুন!

দেখুন আপনি এদেশের সন্তান, আপনার বাবা মা, আত্মীয়স্বজন, পরিবার পরিজন সবাই এদেশের মানুষ! হতে পারে কেউ কেউ আপনার কৃপায় বিদেশে গাড়ি বাড়ি করেছে৷ কেউ কেউ হয়তো জন্ম নিয়েও থাকতে পারে বিদেশে৷ কিন্তু তাদের সবার শেকড় কিন্তু আপনাকে ঘিরে এদেশের মাটিতেই!

বাবা আপনি এখন অনেক যাতনায় আছেন৷ হয়তো ঠিক মতো ঘুম হচ্ছে না৷ একজন দায়িত্ববান পিতা কিংবা শ্বশুর হিসেবে আপনার খুব বেশি ভালো থাকার কথা না! যতো বড় মন্ত্রী আর রাজনীতিক হন না কেনো, আপনি একজন মানুষ৷ একজন স্বামী, একজন পিতা, একজন শ্বশুর, একজন ভাই কিংবা জামাতা!

যে যাই বলুক, আপনার মধ্যে মানবতাবোধ, ভালো মন্দ চিন্তা করার সব ক্ষমতাই আপনার আছে! তাই বিবেকের বিরুদ্ধে খুব বেশি খড়গ চালাবেন না৷ এতে যন্ত্রনা আরও বাড়বে বাবা!

নারায়ণনগঞ্জে সাত সাতটি মানুষের প্রাণ কী না নির্দয়ভাবে কেড়ে নেয়া হলো! কোনো সভ্য মানুষের পক্ষে এই বেদনাদায়ক অনুভূতি বয়ে বেড়ানো কি সম্ভব বাবা! ও বাবা! যদি আপন পরিবারের কারও বিরুদ্ধে খুনের অভিযোগ ওঠে, তাহলে কি ওই পরিবারের কারও পক্ষে, বিশেষ করে আপনার মতো একজন বিজ্ঞ বাবা'র পক্ষে সেই বিষাক্ত বেদনা নিয়ে মন্ত্রিসভায় আসীন থাকা সম্ভব?

বাবা বয়স হয়েছে! অনেক হয়েছে নাম, খ্যাতি প্রতিপত্তি কোনো কিছুতে আপনি পিছিয়ে নেই! কোনো মন্ত্রী, এমপি চিরদিন বাঁচে না৷ দুনিয়ার সবচেয়ে ক্ষমতাধর রাষ্ট্র অ্যামেরিকার প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামাও একদিন মারা যাবে৷ একে একে আমরা সবাই মারা যাবো! আমাদের কাজ আমাদের হয়ে সাক্ষ্য দেবে দুনিয়ায় আমরা কে কেমন ছিলাম! আমাকে যদি কেউ থু থু দেয়, তার কিছুটা হলেও আমার একান্ত পরিবার পরিজনের গায়েও লাগবে৷ আপনার, আমার পরিবারে যে আজ ছোট্ট শিশুটা জন্ম নিলো, সে তো নিষ্পাপ! আমার গায়ে ছিঁটানো থু থু'র দায় সে কেনো নেবে?

দেশ ও জাতির জন্য সময়টা খুব খারাপ! আমরা ক্রমেই বিশ্ব থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে যাচ্ছি৷ এ বড়ই লজ্জার, অপমানের৷ বিশ্বের মানুষগুলো আমাদের মানুষ বলতে চায় না৷ একটু বিবেক, একটুখানি মমতার দৃষ্টি দিয়ে দেখুন আমাদের মানুষগুলো কেমন আছে!

তাই বাবা, ক্ষান্ত দিন! আপনার একটু বিশ্রাম দরকার! চলুন ময়লা পরিষ্কার করি! কথা দিলাম, এই দেশের জনগণ ভালোবাসতে জানে৷ তারা মূল্যায়ন করতে জানে! এরা দরিদ্র হতে পারে, মনটা এদের দুনিয়ার যে-কোনো দেশের মানুষের চেয়ে অনেক বড়! এদের তৃপ্ত করতে বেশি কিছু লাগে না!

সংকলন: নুরুননাহার সাত্তার

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

নির্বাচিত প্রতিবেদন