1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

বাদাউয়ির নামে ফাউন্ডেশন, অথচ তিনিই জানেন না

প্রতি শুক্রবার বেত্রাঘাতের অপেক্ষায় থাকেন বন্দি সৌদি ব্লগার রাইফ বাদাউয়ি৷ এমনই এক শুক্রবার বার্লিনে ডয়চে ভেলের ‘ফ্রিডম ও স্পিচ অ্যাওয়ার্ড' হাতে পেলেন তাঁর স্ত্রী এনসাফ হায়দার৷

মত প্রকাশের অধিকার নিয়ে উত্তাল গোটা বিশ্ব৷ শুধু স্বৈরতান্ত্রিক রাষ্ট্র নয়, বাংলাদেশ বা ভারতের মতো গণতান্ত্রিক রাষ্ট্রেও বাক স্বাধীনতার বিষয়টি বার বার বিতর্কের কেন্দ্রবিন্দুতে চলে আসছে৷ এমন প্রেক্ষাপটে সৌদি ব্লগার রাইফ বাদাউয়ি মুক্ত চিন্তার সংগ্রামের প্রতীক হয়ে উঠেছেন৷ শুক্রবার ডয়চে ভেলের মহাপরিচালক পেটার লিমবুর্গ বার্লিনে রাইফ বাদাউয়ির স্ত্রী এনসাফ হায়দারের হাতে ডিডাব্লিউ-র ‘ফ্রিডম ও স্পিচ অ্যাওয়ার্ড' তুলে দেন৷ বাদাউয়ির নামে একটি ফাউন্ডেশন তৈরির ঘোষণাও করেন হায়দার৷

দিনটা ছিল শুক্রবার৷ প্রতি শুক্রবার রাইফ বাদাউয়ি জানতে পারেন, সেই দিন তাঁকে বেত্রাঘাত সহ্য করতে হবে কিনা৷ এ বিষয়ে এনসাফ হায়দারের একটি সাক্ষাৎকার শেয়ার করেছেন জেসিকা মন্টেল৷

রাইফ বাদাউয়ির মুক্তির জন্য আন্তর্জাতিক চাপের উপর আলোকপাত করেছেন মার্কুস৷

শুক্রবার বার্লিনে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলন ও অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন ডয়চে ভেলের সাংবাদিক বেন নাইট৷ তিনি একাধিক টুইটের মাধ্যমে গুরুত্বপূর্ণ অংশগুলি তুলে ধরেন৷ যেমন এনসাফ হায়দার জানিয়েছেন, নিজের নামে ফাউন্ডেশনের কথা বাদাউই এখনো জানেন না৷

এই ফাউন্ডেশন সৌদি আরব বা অন্য কোনো দেশের সরকারের বিরুদ্ধে নয়, বলেন এনসাফ হায়দার৷

পেটার লিমবুর্গ এনসাফ হায়দারের হাতে ‘ফ্রিডম ও স্পিচ অ্যাওয়ার্ড' তুলে দেন৷

শুধু ডয়চে ভেলের প্রথম ‘ফ্রিডম ও স্পিচ অ্যাওয়ার্ড' নয়, রাইফ বাদাউয়ির নাম আরও অনেক পুরস্কারের জন্য বিবেচনা করা হচ্ছে – যেমন নোবেল শান্তি পুরস্কার৷

ইউরোপীয় পার্লামেন্টের শাখারভ পুরস্কারের জন্যও বাদাউয়ি বিবেচিত হচ্ছেন৷

সংকলন: সঞ্জীব বর্মন

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

নির্বাচিত প্রতিবেদন