1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

‘বাজেট মানেই জনগণের আতঙ্ক’

বাংলাদেশে বাজেট মানেই জনগণের আতঙ্ক৷ সাধারণ মানুষ বাজেট বোঝেন না৷ তারা শুধু বোঝেন বাজেটের ফলে কোন কোন পণ্যের দাম বাড়ছে৷

বাংলাদেশ ব্যাংকের সাবেক গভর্নর ড. সালেহউদ্দিন আহমেদ ডয়চে ভেলেকে বলেন, ‘‘নির্বাচনকে সামনে রেখে সরকার এই বাজেট দিয়েছে৷ এটা নির্বাচনী বাজেট, জনতুষ্টির বাজেট৷ বর্তমান সরকারের এই বাজেট আগের বাজেটের ধারাবাহিকতা৷ গুণগত কোন পরিবর্তন নেই বাজেটে৷ বিশাল একটা বাজেট দিয়েছেন অর্থমন্ত্রী৷ বড় বাজেট নিয়ে আমার কোনো আপত্তি নেই৷ তবে বড় কথা হলো এর বাস্তবায়ন কীভাবে হবে৷ কারণ, এই বাজেট বাস্তবায়ন কঠিন৷''

তিনি আরও বলেন, বেসরকারি বিনিয়োগ কমে গেছে, বিদ্যুৎ-গ্যাসের দাম বাড়তি, খাদ্যে মূল্যস্ফীতি বাড়ছে, কৃষিপণ্যের দাম কমবে তাও না৷ রাজস্ব আয় কঠিন হবে৷ ভ্যাট, ট্যাক্স বাড়িয়ে দিলে জনগণের কষ্ট হবে৷ সার্বিকভাবে বলা যায়, এই বাজেট বাস্তবায়ন কঠিন হবে৷ গত বারের মতো এবারের বাজেটেও কালো টাকা সাদা করার সুযোগ দেয়া হয়েছে৷ সরকারতো চাপে আছে৷ চাপে পড়েই কালো টাকা সাদা করার সুযোগ দিয়েছে৷ এতে সত্‍ ব্যবসায়ীরা বিপদে পড়বে৷

Korruption in Bangladesch, Banknoten als Bestechung Datum: 06.12.2011 Eigentumsrecht: AHM Abdul Hai, Bengali Redaktion, DW, Bonn

শেয়ারবাজার চাঙ্গা করতে আগামী অর্থবছরের বাজেটে অর্থমন্ত্রী কিছু প্রণোদনা দেয়ার প্রস্তাব করেছেন (ফাইল ফটো)

বিশিষ্ট অর্থনীতিবিদ প্রফেসর ড. মুহম্মদ মাহবুব আলী ডয়চে ভেলেকে বলেন, ‘‘নির্বাচনী বছর হিসাবে বাজেটে সরকারের বেশ কিছু উন্নয়নমালার ধারাবাহিকতা রক্ষার পাশাপাশি সামাজিক ও জনকল্যাণমূলক কর্মকাণ্ডের উপর গুরুত্ব আরোপ করা হয়েছে৷ অবশ্য রাজস্ব বাজেটের বাস্তবায়নের ক্ষেত্রে বর্তমান সরকার জুলাই থেকে নির্বাচনের আগ পর্যন্ত সময় পাবে৷ বাজেটকে ঘিরে যে প্রত্যাশাটি সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব পায়, তা হচ্ছে তার সঠিক বাস্তবায়ন৷''

ড. মুহম্মদ মাহবুব আলী আরও বলেন, ঘোষিত বাজেটে যে বিশাল পরিমাণ রাজস্ব আদায়ের কথা বলা হয়েছে, তা কতটুকু আদায় হবে সে ব্যাপারে সন্দিহান৷ কেননা আমাদের দেশে কর ঠিকমতো না দেয়ার প্রবণতা বিদ্যমান রাখছে৷ মূল্যস্ফীতির হার আগামী বছরে ৭ শতাংশ হবে বলা হলেও নির্বাচনী বছরে এটা বজায় রাখা কষ্টসাধ্য হবে৷ নতুন বাজেটে সরকার কৃষি খাতের ভরতুকি একটি ভাল উদ্যোগ৷ চলতি অর্থবছরেই দেখা গেছে যে, কৃষি খাতের ভরতুকি এবং ব্যবস্থাপনার গুণগত মান উন্নত হওয়ায় কৃষিজীবীরা অধিকাংশ ক্ষেত্রে লাভবান হয়েছে৷

অবশ্য পচনশীল কৃষিজাত দ্রব্য উত্‍পাদন করে হরতালের কারণে কোনো কোনো খাতে কৃষকরা ক্ষতির সম্মুখীন হচ্ছে৷ কৃষিজাত পণ্যের ক্ষেত্রে রিসার্চ এণ্ড ডেভেলপমেন্টের মাধ্যমে সরেজমিন তদন্ত সাপেক্ষে যেগুলো আমদানি হয় তার বিকল্প পণ্য দেশে উত্‍পাদনের ব্যবস্থা করতে হবে৷ পার্বত্য চট্টগ্রামসহ দেশের যে সমস্ত স্থানে তামাক উত্‍পাদন বেড়ে গেছে সেখানে কৃষি অধিদপ্তরকে শক্তিশালী করে কৃষিজাত পণ্য উত্‍পাদনে সরকারের উদ্যোগ নেয়া দরকার৷

এদিকে অর্থনীতিবিদরা বলছেন, শেয়ারবাজার চাঙ্গা করতে আগামী অর্থবছরের বাজেটে অর্থমন্ত্রী কিছু প্রণোদনা দেয়ার প্রস্তাব করেছেন৷ অর্থমন্ত্রী বলেন, পুঁজিবাজার স্থিতিশীলতায় ও উন্নয়নে সরকার দৃঢ়প্রতিজ্ঞ৷ পুঁজিবাজারের উন্নয়নে নেয়া বিভিন্ন পদক্ষেপের কথা উল্লেখ করে অর্থমন্ত্রী বলেন, ইতিমধ্যে ডিমিউচুয়ালাইজেশন বিল সংশোধনে পাশ হয়েছে এবং সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন রুলস-২০১২-ও প্রণয়ন করা হয়েছে৷ মিউচুয়াল ফান্ড বিধিমালা সংশোধন এবং আন্তর্জাতিক মানের সার্ভেইলেন্স সফটওয়্যার স্থাপন করা হয়েছে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন