1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

বাগবোর পতনে আইভরি কোস্টে ধর্মঘট

আইভরি কোস্টের প্রেসিডেন্ট লরাঁ বাগবোর বিমান আটকে দিল বাজেল বিমানবন্দর৷ বাগবোকে ক্ষমতা থেকে সরাতে সোমবার থেকে সারাদেশে ধর্মঘট ডেকেছে আলাসানে ওয়াতারা৷ এদিকে, আন্তর্জাতিক গোষ্ঠীর হুমকিকে চ্যালেঞ্জ হিসেবে নিয়েছেন বাগবো৷

Pro government, supporters, meeting, patriots, leader, president, Laurent, Gbagbo, Abidjan, Ivory Coast, বাগবো, রাজনীতি, নির্বাচন, প্রেসিডেন্ট, সংকট, আইভরি কোস্ট, হরতাল

পথে নামতে যাচ্ছে দু’পক্ষের সমর্থকরাই, পরিস্থিতি উত্তেজনাপূর্ণ

২৮ নভেম্বর বিতর্কিত প্রেসিডেন্ট নির্বাচনের পর জটিল থেকে জটিলতর হচ্ছে আইভরি কোস্টের রাজনৈতিক সংকট৷ নির্বাচন কমিশনের ফল অনুযায়ী আলাসানে ওয়াতারাকে বৈধ প্রেসিডেন্ট হিসেবে স্বীকৃতি দিয়েছে আন্তর্জাতিক গোষ্ঠী৷ ফলে বিশ্ব সম্প্রদায়ের পক্ষ থেকে বাগবো সরকারের দিকে ছোঁড়া হচ্ছে একের পর এক নিষেধাজ্ঞা এবং হুমকি৷ এসব হুমকির তোয়াক্কা না করে উল্টো অনড় বাগবো জাতিসংঘ এবং ফ্রান্সের সেনা সদস্যদের দেশ ছাড়ার নির্দেশ দিয়েছিলেন৷ ফলে অন্যান্য গোষ্ঠীর সাথে ফ্রান্সও বেশ চটে আছে বাগবো সরকারের উপর৷ এবার রবিবার সুইজারল্যান্ড ও ফ্রান্সের মাঝামাঝি বাজেল-মুলহাউজ বিমানবন্দরে অবতরণের পর সেখানে আটকে রাখা হয়েছে বাগবো সরকারের একটি বিমান৷ ফরাসি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র এ ব্যাপারে জানিয়েছেন, আইভরি কোস্টের বৈধ কর্তৃপক্ষের অনুরোধেই এটি করা হয়েছে৷

পশ্চিম আফ্রিকার দেশগুলোর এই জোটের হুমকিকে গুরুত্বের সাথে চ্যালেঞ্জ হিসেবে গ্রহণ করেছেন বাগবো৷ তিনি ফরাসি পত্রিকা ‘লে ফিগারো'কে দেওয়া সাক্ষাৎকারে বলেছেন, তাঁকে সরাতে সামরিক বাহিনী পাঠানোর এই হুমকি গুরুত্বের সাথে নিলেও তিনি তা শান্তভাবে মোকাবিলা করবেন৷ তিনি বলেন, ‘‘আফ্রিকায় এটাই প্রথম ঘটনা যে, আফ্রিকার দেশগুলো ভুল নির্বাচনকে কেন্দ্র করে অপর রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে যুদ্ধ ঘোষণা করল৷'' এছাড়া তাঁকে নির্বাচনে হারানোর জন্য ফ্রান্স ও মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ষড়যন্ত্র করেছিল বলেও অভিযোগ তোলেন বাগবো৷ তাঁর দাবি, নির্বাচনে ওয়াতারাকে জয়ী করতে নির্বাচন কর্মকর্তাদের উপর চাপ সৃষ্টি করেছিল এই দুই দেশের দূতাবাস৷ নির্বাচন পরবর্তী সহিংসতায় সেখানে মানবাধিকার লঙ্ঘনের যে অভিযোগ তুলেছে জাতিসংঘ মানবাধিকার পরিষদ সেটিও নাকচ করে দিয়েছেন বাগবো৷

এদিকে, আন্তর্জাতিক গোষ্ঠীর সমর্থনপুষ্ট আইভরি কোস্টের প্রেসিডেন্ট আলাসানে ওয়াতারা বাগবোকে ক্ষমতা থেকে সরাতে সোমবার থেকে সারাদেশে ধর্মঘটের ডাক দিয়েছেন৷ বাগবো ক্ষমতা থেকে সরে না যাওয়া পর্যন্ত ধর্মঘট অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছেন ওয়াতারা'র মুখপাত্র প্যাট্রিক আচি৷ এতে বাগবো নিয়ন্ত্রিত নিরাপত্তা বাহিনী হস্তক্ষেপ করলে দেশটিতে সংঘাত আরো ছড়িয়ে পড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে৷ ইতিমধ্যে সেখানে সহিংসতায় অন্তত ১৭০ জনের প্রাণহানির কথা জানিয়েছে জাতিসংঘ৷ এছাড়া প্রতিবেশী দেশ লাইবেরিয়া পালিয়ে গেছে প্রায় ১৪ হাজার মানুষ৷

প্রতিবেদন: হোসাইন আব্দুল হাই

সম্পাদনা: রিয়াজুল ইসলাম

নির্বাচিত প্রতিবেদন

ইন্টারনেট লিংক