1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

বাংলা ব্লগারদের পাশে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়

বাংলাদেশের মুক্তমনা, মানবতাবাদী ব্লগার, লেখক, প্রকাশকদের পাশে দাঁড়িয়েছে একাধিক আন্তর্জাতিক সংগঠন৷ সম্প্রতি নেদারল্যান্ডসের রাজধানী হেগে তাদের সহায়তায় অনুষ্ঠিত হয় এক সংহতি বইমেলা, যেখানে নির্বাসিত বাংলা ব্লগাররা অংশ নেন৷

গত রবিবার ‘বাংলাদেশ সংহতি বইমেলা' শিরোনামের আয়োজনটি করে নেদারল্যান্ডসভিত্তিক মানবাধিকার সংগঠন দ্য হেগ পিস প্রজেক্ট এবং মুক্তমনা ব্লগ৷ তাদের সহায়তায় ছিল ইন্টারন্যাশনাল হিউম্যানিস্ট অ্যান্ড এথিকাল ইউনিয়ন (আইএইচইইউ)৷ গত বছর ঢাকায় অমর একুশে গ্রন্থমেলা চলাকালে খুন হন মানবতাবাদী লেখক, ব্লগার অভিজিৎ রায়৷ মূলত এই লেখকের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকীর স্মরণে হেগে বইমেলা এবং ব্লগার ও মানবাধিকার কর্মীদের মধ্যকার আলোচনার আয়োজন করা হয়৷

‘দ্য হেগ পিস প্রজেক্টের' পরিচালক জেকব ডে জঞ্জ ডয়চে ভেলেকে জানান, ‘‘হেগের আয়োজনের মাধ্যমে আমরা বোঝাতে চেয়েছি যেসব ব্লগার, লেখক সম্প্রতি বাংলাদেশ ত্যাগে বাধ্য হয়েছেন তারা একা নন৷ পৃথিবীর বিভিন্ন প্রান্তে অনেকেই আছেন, যারা তাদের কর্মকাণ্ডকে সমর্থন জানায়৷ এবং বাংলাদেশে চলমান ঘটনাবলী নিয়ে উদ্বিগ্ন তারা৷''

Niederlande Bangladesch Solidarität Buch Messe

‘দ্য হেগ পিস প্রজেক্টের' পরিচালক জেকব ডে জঞ্জ (বামে)

ডে জঞ্জ বলেন, ‘‘বাংলাদেশে (ব্লগারদের নিয়ে) যা হচ্ছে তা কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়৷ আমরা বর্তমান পরিস্থিতি পরিবর্তনে যা কিছু সম্ভব করবো৷''

নির্বাসনে অন্তত ২৮ ব্লগার

প্রসঙ্গত, গত বছরের ২৬ ফেব্রুয়ারি অভিজিৎ রায় হত্যাকাণ্ডের পর আরো তিন মুক্তমনা ব্লগার এবং এক সেক্যুলার প্রকাশক খুন হয়েছেন৷ তাদের হত্যাকাণ্ডের দায় স্বীকার করেছে উগ্র ইসলামপন্থি একাধিক গোষ্ঠী৷ এ সব হত্যাকাণ্ডের প্রেক্ষিতে বেশ কয়েকজন ব্লগার এবং প্রকাশক গত কয়েক মাসে বাংলাদেশ ত্যাগ করে নির্বাসনে চলে যেতে বাধ্য হন৷ হেগের বিকল্প বইমেলায় আসা ব্লগার আসিফ মহিউদ্দীন জানান, ইতিমধ্যে কমপক্ষে ২৮ জন ব্লগার দেশত্যাগে বাধ্য হয়েছেন৷ কেউ কেউ পরিবারসহ চলে এসেছেন৷ এদের অধিকাংশই অবস্থান করছেন ইউরোপের বিভিন্ন দেশে৷

মহিউদ্দীন বলেন, ‘‘আরো অন্তত ৪০ জন ব্লগার বাংলাদেশে ভয়ে, আতঙ্কে দিন কাটাচ্ছেন৷ তারাও যে কোনো সময় দেশত্যাগে বাধ্য হতে পারেন৷ এছাড়া পরিস্থিতি না বদলালে আরো অনেকে বাংলাদেশ ছাড়ার চিন্তা করতে পারেন৷''

সরকারের উপর ‘চাপ প্রয়োগের' উদ্যোগ

হেগে আলোচনায় অংশ নেয়া আন্তর্জাতিক বিভিন্ন মানবাধিকার সংগঠনের প্রতিনিধিরা মনে করেন, যেসব ব্লগার নিজদেশে প্রাণভয়ে রয়েছেন, তাদের নিরাপদ আশ্রয়ে যাওয়ার সুযোগ করে দেয়া উচিত৷ এ জন্য নির্বাসিত ব্লগার, লেখক এবং প্রবাসীদের নিয়ে সম্মিলতভাবে কাজ করার দিকে মত তাদের৷ পাশাপাশি বিভিন্ন আন্তর্জাতিক ফোরামে ব্লগার, লেখকদের বাকস্বাধীনতা রক্ষা যে বাংলাদেশ সরকারের দায়িত্ব তা নিয়ে আলোচনার পক্ষে তারা৷

Niederlande Bangladesch Solidarität Buch Messe

ইউরোপে নির্বাসিত বাংলা ব্লগার সন্যাসী রতন গত বছর ঢাকায় নিহত ব্লগার অভিজিৎ রায়ের একটি বই দেখছেন

ডয়চে ভেলের সঙ্গে আলাপকালে অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের ক্যাম্পেইনার অওরা ফ্রিম্যান বলেন, ‘‘বাকস্বাধীনতা রক্ষায় বাংলাদেশ সরকারের আন্তর্জাতিক বাধ্যবাধকতা রয়েছে৷ কিন্তু আমরা দেখছি, গতবছর কিংবা আরো লম্বা সময় ধরে যারা বাকস্বাধীনতার চর্চা করছেন, তাদের উপর হামলা চালানো হচ্ছে৷''

লন্ডনে বসবাসরত ফ্রিম্যান মনে করেন, বাংলাদেশের মানুষের বাকস্বাধীনতা রক্ষায় আন্তর্জাতিকভাবে সরকারের উপর চাপ প্রয়োগের সুযোগ রয়েছে৷ তিনি বলেন, ‘‘অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনাল জাতিসংঘের মাধ্যমে চাপ প্রয়োগের চেষ্টা করছে৷ সম্ভব হলে ইউরোপীয় ইউনিয়ন এবং অন্যান্য সরকার প্ল্যাটফর্ম, বিশেষ করে যেসব জায়গা থেকে চাপ প্রয়োগ সম্ভব বলে আমরা মনে করি, ব্যবহারের চেষ্টা করা হবে৷''

ব্লগার এবং মানবাধিকার কর্মীদের আলোচনায় অংশ নেয়া আইএইচইইউ-র পরিচালক বব চার্চিল জানান, বাংলাদেশে ধর্মীয় অনুভূতিতে আঘাতের দায়ে গ্রেপ্তারের আইন রয়েছে যা নিয়ে বিভ্রান্তির সুযোগ রয়েছে৷ আমাদের নিশ্চিত করতে হবে যে, ধর্ম নিয়ে, ধর্মীয় দল এবং সংগঠন নিয়ে আলোচনা মানুষের অধিকার৷

নাস্তিক মানেই ‘মন্দ কিছু নয়'

হেগে বইমেলায় ব্লগার এবং মানবাধিকার কর্মীদের সঙ্গে আলোচনা থেকে জানা যায়, বাংলাদেশে নাস্তিকতা সম্পর্কে একটি তীব্র নেতিবাচক মনোভাব রয়েছে৷ মূলত উগ্র ইসলামপন্থিরা এই মনোভাবে কাজে লাগাচ্ছে, যাতে ইন্ধন যোগাচ্ছে বিভিন্ন রাজনৈতিক দল৷ চার্চিল এই বিষয়ে বলেন, ‘‘নাস্তিক শব্দটিকে নেতিবাচকভাবে সজ্ঞায়িত করা হয়েছে৷ অথচ এটি শুধু একটি প্রশ্নের উত্তরে ব্যক্তির অবস্থান৷ সেটা হচ্ছে সৃষ্টিকর্তা আছে নাকি নেই৷''

Niederlande Bangladesch Solidarität Buch Messe

ডয়চে ভেলের সঙ্গে কথা বলছেন অ্যামনেস্টি ইন্টারন্যাশনালের আওরা ফ্রিম্যান

তিনি বলেন, ‘‘নাস্তিকতা নতুন কিছু নয়৷ অনেক রকমের নাস্তিক রয়েছেন৷ কেউ কেউ মনে করেন, ধর্ম তাদের কাছে কোন গুরুত্ব বহন করে না৷ কেউ কেউ আরেকটু এগিয়ে গিয়ে বলেন, ধর্মের নামে যা কিছু হচ্ছে তা ঠিক নয়৷ সেগুলো প্রতিরোধের প্রয়োজন মনে করেন তারা৷ আর এটা শুধু বাংলাদেশ নয়, সব সমাজে আছে৷''

বাংলাদেশের বুঝতে হবে, ধর্মে অবিশ্বাসীরাও সমাজেরই অংশ এবং অনেক ভালো কাজে তাদের অবদান রয়েছে, বলেন চার্চিল৷

হেগে বইমেলায় বাংলা ভাষায় নতুন একটি ওয়েবসাইট তৈরির ঘোষণা দেন মুক্তমনা ব্লগের মডারেটর রাফিদা আহমেদ বন্যা৷ নতুন সাইটটি বিজ্ঞান, দর্শনসহ বিভিন্ন বিষয়ে বাংলা বিশ্বকোষ হিসেবে কাজ করবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি৷ বর্তমানে সাইটটির কাজ চলছে৷

আপনার কি কিছু বলার আছে? লিখুন নীচের মন্তব্যের ঘরে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন