1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

‘বাংলামেইল বন্ধে গোটা সংবাদমাধ্যম চাপ অনুভব করবে’

অনলাইন পোর্টাল বাংলামেইল টোয়েন্টিফোর ডটকম-এর সম্পাদকসহ ৩ জনকে গ্রেপ্তার করে অফিসে তালা মেরে দেয়া হয়েছে৷ প্রধানমন্ত্রীর ছেলে ও তথ্য-প্রযুক্তি উপদেষ্টা সজীব ওয়াজেদ জয়কে নিয়ে অসত্য সংবাদ প্রচারের অভিযোগে এ ব্যবস্থা নেয়া হয়৷

সাংবাদিক ইউনিয়ন নেতা এবং অনলাইন-এর নীতি নির্ধারণযোগ্য পদের ব্যক্তিরা বলছেন, অপরাধের শাস্তি পেতই হবে৷ কিন্তু কোনো আইনি প্রক্রিয়া অনুসরণ না করে একটি সংবাদমাধ্যম বন্ধ করা ঠিক হয়নি৷ এতে অন্যান্য সংবাদমাধ্যম চাপ অনুভব করছে৷

নিউজ পোর্টাল বাংলামেইল গত ৭ আগস্ট ‘বিমান দুর্ঘটনায় প্রধানমন্ত্রীর পুত্র জয়ের মৃত্যুর গুজব'-এই শিরোনামে একটি খবর প্রকাশ করে৷ এরপর সেইদিন রাতেই র‌্যাবের একটি টিম বাংলামেইল অফিসে গিয়ে ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক সাহাদাত উল্যা খান, নির্বাহী সম্পাদক মাকসুদুল হায়দার চৌধুরী ও নিউজরুম এডিটর প্রান্ত পলাশকে আটক করে৷

অডিও শুনুন 02:46

‘বাংলামেইল দায়িত্বহীনতার পরিচয় দিয়েছে’

পরদিন র‌্যাব ৩-এর সদস্য শাহ আলম বাদি হয়ে বাংলামেইল-এর প্রকাশক স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য ফজলুল আজিমসহ ঐ চারজনের বিরুদ্ধে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) আইনে মামলা করেন৷ প্রকাশক এখনও গ্রেপ্তার না হলেও, এরইমধ্যে বাংলামেইল-এর ইনার সার্কুলার রোডের স্কাউট ভবনের অফিসে তালা মেরে চাবি নিয়ে গেছে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনী৷ মঙ্গলবার থেকে নিউজ পোর্টলটিওআর অনলাইনে দেখাও যাচ্ছে না৷ তবে পোর্টালটি সরকারি তরফ থেকে আদৌ বন্ধ বা ব্লক করা হয়েছে কিনা, তা নিয়ে বিটিআরসি কোনো কথা বলছে না৷

ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি শাবান মাহমুদ ডয়চে ভেলেকে বলেন, ‘‘বাংলামেইল একটি ভুয়া খবর ছেপেছে, তাও আবার স্পর্শকাতর একটি বিষয় নিয়ে৷ এমনটা করে তারা দায়িত্বহীনতার পরিচয় দিয়েছে৷ তারা ঐ খবরটি ছেপে সাংবাদিকতার নীতিমালা লঙ্ঘন করেছে৷ তাই তাদের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেয়া যেতেই পারে এবং তাই নেয়াও হয়েছে৷ কিন্তু তদন্ত বা আইনি প্রক্রিয়া ছাড়া একটি সংবাদমাধ্যমের অফিসে তালা দেয়া বা বন্ধ করে দেয়া ঠিক হয়নি৷ কোনো ব্যক্তি বা ব্যক্তিবর্গের দায় পুরো প্রতিষ্ঠানের ওপর দেয়া ঠিক না৷''

তিনি অন্য একটি প্রশ্নের জবাবে বলেন, ‘‘এই ঘটনায় সংবাদমাধ্যম চাপ অনুভব করবে৷ তাছাড়া বিষয়টি খুব স্পর্শকাতর৷ আমরা সাংবাদিক নেতাদের সঙ্গে কথা বলে কী করণীয়, তা ঠিক করব৷''

অডিও শুনুন 02:28

‘ব্যক্তির দায় প্রতিষ্ঠানের ওপর দেয়া ঠিক না’

অপরদিকে বাংলানিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম-এর হেড অফ নিউজ মাহমুদ মেমন খান ডয়চে ভেলেকে বলেন, ‘‘বাংলামেইল যা করেছে, এ জন্য তাদের দায় নিতে হবে৷ তবে সেটা কীভাবে হবে – সেই প্রশ্নটাই এখন আসল৷ সেটা কি বাংলামেইলে তালা মেরে বা পোর্টাল বন্ধ করে না দায়ীদের শাস্তি দিয়ে? আমি একজন সাংবাদিক হিসেবে মনে করি, প্রতিষ্ঠানের সবাই এর জন্য দায়ী নয়৷ ব্যক্তির দায় প্রতিষ্ঠানের ওপর দেয়া ঠিক না৷''

আরেক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘‘সাংবাদিকতায় দায়িত্বশীলতার পরিচয় দিতে হবে৷ দায়িত্বহীনতা সাংবাদিক এবং সংবাদমাধ্যমকে ক্ষতিগ্রস্ত করে৷ তবে এর ব্যাখা একেকজনের কাছে একেকরকম৷ তবে আমি মনে করি, এই ঘটনায় সংবাদমাধ্যমের ওপর চাপ পড়বে৷''

প্রসঙ্গত, বাংলাদেশে গত সপ্তাহে ৩৫টি নিউজ ও ব্লগ সাইট বন্ধ করে দিয়েছে বিটিআরসি৷ আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর অনুরোধে পোর্টালগুলো বন্ধ করা হয়েছে বলে জানা গেছে৷ বলা হচ্ছে, ঐ সাইটগুলোর বিরুদ্ধে উগ্রবাদের উসকানি দেয়ার অভিযোগ রয়েছে৷

বন্ধু, আপনি কি জয়কে নিয়ে ভুয়া খবরটি পড়েছিলেন? বাংলামেইলকে যে শাস্তি দেয়া হয়েছে, তা কি আপনি সমর্থন করেন? জানান নীচের ঘরে৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন

এই বিষয়ে অডিও এবং ভিডিও