1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

বাংলাদেশে সহায়তা অব্যাহত থাকবে: জাপানের রাষ্ট্রদূত

সুনামি বিপর্যয়ের কারণে বাংলাদেশে জাপানের অর্থনৈতিক সহায়তা বন্ধের আশঙ্কা করছেন বাংলাদেশের অর্থনীতিবিদ এবং ব্যবসায়ীরা৷ তবে ঢাকায় জাপানি রাষ্ট্রদূত বলেছেন, জাপান যে অর্থ সহায়তার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে তা পালন করা হবে৷

default

স্বাধীনতার পর থেকে এপর্যন্ত জাপান বাংলাদেশকে ৬০ হাজার কোটি টাকা অর্থ সহায়তা দিয়েছে৷ সর্বশেষ এক বছরে এর পরিমাণ দাঁড়ায় ১০ হাজার কোটি টাকা৷ পদ্মা সেতুসহ ৪টি বড় প্রকল্পে জাপান সাড়ে ৪ হাজার কোটি টাকার অর্থনৈতিক সহায়তার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে৷ বাংলাদেশের সবচেয়ে বড় উন্নয়ন সহযোগী এই দেশটি এখন সুনামিতে বিপর্যস্ত৷ ধকল কাটিয়ে উঠতে জাপানিদের প্রচুর অর্থের প্রয়োজন পড়বে৷ তাই অর্থনীতিবিদরা আশঙ্কা করছেন এজন্য তাদের বাংলাদেশে আর্থিক সহায়তা কাটছাঁট করতে হতে পারে৷ যেমন বললেন সিপিডির অর্থনীতিবিদ ড. খন্দকার গোলাম মোয়াজ্জেম৷

ব্যবসায়ীরা মনে করেন, জাপানের সঙ্গে বাংলাদেশের আমদানি এবং রপ্তানী দুটোতেই নেতিবাচক প্রভাব পড়তে পারে৷ বাংলাদেশ-জাপান চেম্বারের সাবেক সভাপতি আব্দুল হক বলেন, জাপানে বাংলাদেশের তৈরি পোষাকের রফতানি বাড়ছিল৷ গাড়ি এবং গাড়ির যন্ত্রাংশের জন্য বাংলাদেশ অনেকাংশেই জাপানের ওপর নির্ভরশীল৷

তবে ঢাকায় নিযুক্ত জাপানের রাষ্ট্রদূত টমোটসু বলেছেন বাংলাদেশের ব্যাপারে জাপান ইতোমধ্যেই যে আর্থিক সহায়তার প্রতিশ্রুতি দিয়েছে তা থেকে তারা সরে আসবেনা৷ তিনি বলেন, পদ্মা সেতুসহ অন্যান্য উন্নয়ন প্রকল্পে যে আর্থিক সহায়তার প্রতিশ্রুতি দেয়া হয়েছে তা অপরিবর্তিত রয়েছে৷ তার সরকার পদ্মা সেতু নির্মাণে ৪০০ মিলিয়ন মার্কিন ডলার ঋণ সহায়তা দেবে বাংলাদেশকে৷

বিশ্লেষকরা বলেন জাপানের ঘুরে দাঁড়ানো তার জন্য যেমন প্রয়োজন তেমনি বাংলাদেশের অর্থনীতি এবং উন্নয়নের জন্যও প্রয়োজন৷

প্রতিবেদন: হারুন উর রশীদ স্বপন, ঢাকা

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন

নির্বাচিত প্রতিবেদন