1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

বাংলাদেশে সমবায়ের নামে প্রতারণা

মানুষের কাছ থেকে স্বর্ণালংকার বন্ধক রেখে ঋণ দেয়ার নামে প্রতারণা করছে একটি চক্র৷ সমবায় সমিতির নামে ঢাকা থেকেই হাতিয়ে নেয়া হয়েছে ৪০০ কোটি টাকা৷ এই প্রতারণা করা হয়েছে সমবায় আইনের আওতায়, যার সঙ্গে জড়িত শাসক দলের দুই নেতা৷

প্রতারক প্রতিষ্ঠানের নাম নারায়ণগঞ্জ কো-অপারেটিভ ক্রেডিট লি.৷ এটি সমবায় অধিদপ্তরের একটি নিবন্ধিত প্রতিষ্ঠান৷ নারায়ণগঞ্জে তাদের নিবন্ধন হলেও ঢাকার জনসন রোডে শাখা খুলেছে তারা৷ স্বর্ণালংকার বন্ধক রেখে গ্রাহকদের ঋণ দেয় এরা শতকরা ১৮ ভাগ সুদে৷ সেই স্বর্ণালংকরা কেন্দ্রীয় সমবায় ব্যাংকে শতকরা ১৪ ভাগ সুদে বন্ধক রেখে তারা ঋণ নেয়৷ দুই প্রতিষ্ঠানের মধ্যে সুদের পার্থক্য শতকরা চার ভাগ৷ এটিই হলো সমবায় সমিতির ব্যবসা৷

কিন্তু নারায়ণগঞ্জ কো-অপারেটিভ ক্রেডিট লি. করছে প্রতারণা৷ তারা গ্রাহকদের স্বর্ণালংকার সমবায় ব্যাংকে জমা না রেখে বেশি টাকার জন্য স্বর্ণ ব্যবসায়ীদের কাছে বন্ধক রেখেছে৷ আর গ্রাহকরা ঋণের টাকা সুদে আসলে ফেরত দেয়ার পরও, তাঁদের স্বর্ণালংকার ফেরত পাচ্ছেন না৷ গ্রাহকদের চাপে পড়ে তারা অফিস বন্ধ করে পালিয়েছে৷ কিন্তু ইতিমধ্যেই তাদের প্রতারণার ফাঁদে পড়েছে অন্তত ১০ হাজার গ্রাহক৷ তাঁদের জমা দেয়া গয়নার বিপরীতে প্রতারকরা বাজার থেকে ৪০০ কোটি টাকা নিয়েছে৷ শুধু তাই নয়, গ্রাহকদের ফেরত দেয়া টাকাও হাতিয়েছে তারা৷

Bangladesch Wahlen 2008

মানুষের কাছ থেকে স্বর্ণালংকার বন্ধক রেখে ঋণ দেয়ার নামে প্রতারণা করছে একটি চক্র (ফাইল ফটো)

পুরনো ঢাকাসহ শহরের বিভিন্ন এলাকার প্রতারিতরা এখন প্রতিদিনই ভিড় করছেন জনসন রোডে৷ কিন্তু প্রতারকদের পাওয়া যাচ্ছে না৷ প্রতারিত নাজমা বেগম জানান, ব্যবসার কাজে তিনি সোনার গয়না বন্ধক রেখেছিলেন৷ ঋণের টাকাও শোধ করেছেন৷ কিন্তু এখনও গয়না ফেরত না পাওয়ায় তাঁর সংসার ভাঙার উপক্রম হয়েছে৷ সুফিয়া বেগম জানান, তিনি তাঁর মেয়ের ১৭ ভরি সোনার গয়না বন্ধক রেখেছিলেন৷ কিন্তু এখন গয়না ফেরত না পওয়ায় তাঁর মেয়েরও সংসার ভাঙার উপক্রম হয়েছে৷

নারায়ণগঞ্জ কো-অপারেটিভ ক্রেডিটের সভাপতি আওয়ামী লীগ নেতা খবির উদ্দিন আহমেদ ডয়চে ভেলের কাছে এই প্রতারণার কথা স্বীকার করেন৷ তবে তাঁর দাবি যে, প্রতারণার সঙ্গে তিনি জড়িত নন৷ জড়িত হলো প্রতিষ্ঠানের পরিচালক আওয়ামী লীগের সহযোগী সংগঠন তাঁতি লীগের আহ্বায়ক এনাজুর রহমান চৌধুরী৷ অথচ এনাজুর রহমান চৌধুরী ডয়চে ভেলের কাছে বলেছেন যে, তিনি নন, সমিতির কিছু কর্মচারিই লুটপাট চালিয়েছে৷ তবে এখান চেষ্টা করা হচ্ছে গ্রাহকদের স্বর্ণালংকার ফেরত দিতে৷

সমবায় অধিদপ্তরের মহাপরিচালক মো. হুমায়ুন খালিদ ডয়চে ভেলেকে জানান, নারায়ণগঞ্জ কো-অপারেটিভ ক্রেডিট বেআইনি কাজ করে গ্রাহকদের টাকা এবং স্বর্ণালংকার হাতিয়ে নিয়েছে৷ এ বিষয়ে তারা তদন্ত করছেন৷ যারা এ জন্য দায়ী, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে৷ আর দায়ীদের সম্পদ বিক্রি করে গ্রাহকদের স্বর্ণালংকার এবং টাকা ফেরত দেয়া হবে৷

ঢাকা সহ সারা দেশে সমবায়ের নামে বেশ কিছু প্রতিষ্ঠান এভাবে স্বর্ণ বন্ধকসহ নানা ধরণের ব্যাংকিং কার্যক্রম চালাচ্ছে৷ এতে প্রতারিত হচ্ছেন দেশের সাধারণ মানুষ৷ কেন্দ্রীয় সমবায় ব্যাংকের জিএম ও প্রধান নির্বাহী ধীরেন্দ্র চন্দ্র দাস ডয়চে ভেলেকে জানান, সমবায় ব্যাংকের বাইরে কোনো সমবায়ী প্রতিষ্ঠান এ ধরণের ব্যাংকিং কার্যক্রম চালাতে পারে না৷ সেটা বেআইনি৷

নির্বাচিত প্রতিবেদন