1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

বাংলাদেশে বিনিয়োগে আগ্রহী জার্মান বিনিয়োগকারীরা

বিদ্যুৎ সংকট নিরসনে সরকার উদ্যোগ নেয়ায় জার্মানির বিনিয়োগকারীরা বাংলাদেশে বিনিয়োগের আগ্রহ দেখিয়েছে৷ তাদের আগ্রহ প্রাইভেট পাবলিক পার্টনারশীপে৷ আর তৈরি পোষাক শিল্পের বাজার জার্মানিতে আরও বাড়বে৷

default

বাংলাদেশে জার্মানির রাষ্ট্রদূত হলগার মিশাইল

ঢাকায় বাংলাদেশ-জার্মানি চেম্বার অফ কমার্স এন্ড ইন্ডাট্রিজ এর উদ্যোগে বাংলাদেশ ও জার্মানির শীর্ষ ব্যবসায়ী এবং শিল্পপতিদের এক সম্মেলন অনুষ্ঠিত হল বৃহস্পতিবার৷ সম্মেলনে দু'দেশের শতাধিক শীর্ষ ব্যবসায়ী নেতা অংশ নেন৷ বিকেলে সংবাদ সম্মেলনে তারা তুলে ধরেন আলোচনার বিষয় ও ফলাফল৷ ঢাকায় জার্মানির উপ রাষ্ট্রদূত রাইনহার্ড সংবাদ সম্মেলনে বলেন, বাংলাদেশে বিনিয়োগের ক্ষেত্রে প্রধান সমস্যা ছিল বিদ্যুৎ ও গ্যাস৷ বর্তমান সরকার ক্ষমতায় এসে বিদ্যুৎ সংকট নিরসনে উদ্যোগ নিয়েছে৷ উদ্যোগ নিয়েছে সুশাসন প্রতিষ্ঠার৷ এতে জার্মান বিনিয়োগকারীরা আশাবাদী৷ তাই তারা বাংলাদেশের তৈরি পোষাক শিল্প, বিদ্যুৎ, জাহাজ নির্মাণসহ অনেক খাতে বিনিয়োগে আগ্রহী৷ তারা এখানে মান পরীক্ষার টেষ্টিং ল্যাবরেটরীও গড়ে তুলতে চায়৷ রাইনহার্ড জানান, তার সরকার চায় বাংলাদেশে প্রাইভেট পাবলিক পার্টনারশীপে প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠুক৷ আর জার্মানির বিনিয়োগকারীরা এ ধরনের বিনিয়োগে আগ্রহী৷ তিনি জানান, বাংলাদেশের তৈরি পোষাকের রফতানি জার্মানিতে বাড়বে, বাড়বে পুরো ইউরোপে৷ তবে এজন্য বাংলাদেশকে তৈরি পোষাক শিল্পের পরিবেশ ও শ্রমিকদের সুযোগ সুবিধা নিশ্চিত করতে হবে৷ বাস্তবায়ন করতে হবে নতুন মজুরি কাঠামো৷

বাংলাদেশ-জার্মানি চেম্বারের সভাপতি সাইফুল ইসলাম বলেন, তারাও সরকারকে গ্যাস ও বিদ্যুৎ ও সামাজিক পরিবেশ নিশ্চিত করার আহ্বান জানিয়েছেন৷ এ বিষয়গুলো নিশ্চিত হলে জার্মানির বিনিয়োগকারীরা বাংলাদেশে বড় অংকের বিনিয়োগ নিয়ে আসবে৷

সকালের ব্যবসায়ী শিল্পপতিদের ওয়ার্কিং সেশনে গ্রামীণ ব্যাংকের প্রতিষ্ঠাতা নোবেল বিজয়ী অর্থনীতিবিদ ড. মোহাম্মদ ইউনুস সামাজিক ব্যবসার ওপর গুরুত্ব দেন৷ তিনি ব্যবসা বাণিজ্যে তরুণ সমাজকে উৎসাহিত করার কথা বলেন৷

জার্মান রাষ্ট্রদূত হলগার মিশায়েল বলেন, বাংলাদেশ সরকারের উদ্যোগে তারা খুশি৷ এই সরকার বিনিয়োগ বান্ধব৷ আর বাণিজ্য মন্ত্রী ফারুক খান বাংলাদেশের ব্যবসায়ীদের নিজেদের ইতিবাচক ভাবমূর্তি তৈরির ওপর গুরুত্ব দেন৷

প্রতিবেদন; হারুন উর রশীদ স্বপন, ঢাকা

সম্পাদনা: সঞ্জীব বর্মন

সংশ্লিষ্ট বিষয়