1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

পাঠক ভাবনা

‘বাংলাদেশে গণতন্ত্র নামটা আছে তবে তার চর্চা আর নেই'

বাংলাদেশে এক দলীয় শাসন প্রতিষ্ঠিত হচ্ছে বলে মতে করেন অনেক পাঠক৷ কেউ কেউ অবশ্য আওয়ামী লীগকেই সমর্থন করেছেন৷ আবার অনেকে দলটির পক্ষে-বিপক্ষে নয়, ডয়চে ভেলের ফেসবুক পাতায় শুধু গণতন্ত্র প্রতিষ্ঠার দাবি জানিয়েছেন তাঁরা৷

বাংলাদেশে সত্যি কথা বলার অধিকার নেই৷ হ্যাঁ, এ কথাটাই বলছেন মেঘনা আক্তার৷ তিনি লিখেছেন, ‘‘এই দেশে গণতন্ত্র নামটা আছে তবে তার চর্চা এখন আর নাই৷ আর কিছু বললাম না৷ এখন সত্যি বললেও কারাগারে যেতে হয়৷''

বাংলাদেশে একদলীয় শাসনের কথা জানাতে গিয়ে ডয়চে ভেলের ফেসবুক পাতায় শহীদ আহমেদের মন্তব্য, ‘‘বাকশাল সরকার পুনরায় দেশ দখল করেছে!! এখন শুধু শেখ হাসিনার পতন দেখার অপেক্ষায় দেশবাসী৷''

‘‘এদেশে কখনও গণতন্ত্র ছিল না, এখনো নেই, ভবিষ্যতের সম্ভাবনাও সীমিত৷ এখানে আছে শুধু গণতন্ত্রের লেবাসে স্বৈরতন্ত্র৷'' নিজের দেশের রাজনৈতিক অবস্থান সম্পর্কে এভাবেই তাঁর হতাশা প্রকাশ করেছেন বন্ধু কপিল কল্যাণ চৌধুরী৷

‘‘কেন? আপনারা কি অন্ধ? চোখে দেখতে পাচ্ছেন না? গণতন্ত্রহীন রাষ্ট্রে একদলীয় আওয়ামী দুঃশাসন ছাড়া আর কিছু নেই৷'' ডয়চে ভেলেকে লক্ষ্য করে প্রশ্নগুলো ছুড়ে দিয়ে এ কথা লিখেছেন পাঠক বন্ধু খান৷

‘‘আরবরা যখন রাজতন্ত্রের বিরুদ্ধে সংগ্রাম করছে, বাংলাদেশিরা তখন বন্দুকের নলে গণতন্ত্রকে বিসর্জন দিচ্ছে৷'' এই ধারণা সোহেল আহমেদ ঈমনের৷

জুনাইদ চৌধুরীর মতে , ‘‘বাংলাদেশ শুধু একদলীয় শাসনের দিকে যাচ্ছে না, বাংলাদেশ এক ব্যক্তিকেন্দ্রিক শাসনের মধ্যেই আছে, ছিল৷ মূলত এই দেশটা চলে পরিবারকেন্দ্রিক শাসনে৷''

পাঠক লাভলুর মতে, ‘‘আওয়ামী লীগ মানেই তো বাকশাল বা একদলীয় শাসন৷'' আর পাঠক রাজু মল্লিক, রকিলুল হাসান দুর্জয়সহ অনেকেই লাভলুর সাথে একমত৷

মো.আলীর ভাষায়, ‘‘বাকশাল বা একদলীয় কিনা জানি না৷ তবে জনগণের কথার কোনো দাম নেই সরকারের কাছে, এটা জানি৷''

অন্যদিকে ডয়চে ভেলের ফেসবুক পাতায় পাঠক কমল দে বাংলাদেশে বর্তমানে একদলীয় শাসনের কারণ হিসেবে বিরোধী দলকেই অনেকটা দায়ী করছেন৷ তিনি লিখেছেন, ‘‘স‌ত্যিকা‌রের গণতা‌ন্ত্রিক, গঠনমূলক, শ‌ক্তিশালী, দেশ‌প্রে‌মিক বি‌রোধী দল না থাক‌লে কেউ একনায়কত‌ন্ত্রের সু‌যোগ নি‌তেই পা‌রে৷''

কোনো দলেরই সমর্থক নন পাঠক মকসুদুর রহমান৷ তিনি শুধু চান দেশের গণতন্ত্র৷ আর সেটা তিনি পরিষ্কারভাবে প্রকাশ করেছন তাঁর বক্তব্যে৷ লিখেছেন, ‘‘আমি বিএনপি, জামায়াত কোনো দলকেই সমর্থন করি না...৷ তবে বর্তমানের একদলীয় সরকার বা তথাকথিত গণতন্ত্র গ্রহণযোগ্য নয়৷''

ডয়চে ভেলের পাঠকবন্ধু সুজন আহমেদ সাব্বির অবশ্য বর্তমান সরকারের কর্মকাণ্ডে পুরোপুরি সন্তুষ্ট৷ তিনি বলছেন, ‘‘বাংলাদেশ এখন সামনের দিকে এগিয়ে যাচ্ছে, এক দলীয় শাসন ভালো...৷''

‘‘আওয়ামী লীগের শাসনব্যবস্থা অনেক সুন্দর৷'' বন্ধু আবুল বাশারের মন্তব্য কিন্তু এমনটাই৷

পাঠক জহির খান তো শুধু শেখ হাসিনাকেই চান, অন্য কাউকে নয়৷

ওদিকে এনামুল হকের জোর দাবি, ‘‘গণতন্ত্রকে রক্ষা করতেই হবে৷''

সংকলন: নুরুননাহার সাত্তার

সম্পাদনা: দেবারতি গুহ

নির্বাচিত প্রতিবেদন