1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

বাংলাদেশের হয়ে ইতিহাস গড়তে চান বাকি

এখনও বাংলাদেশের কেউ অলিম্পিক পদক জিততে পারেনি৷ এবার সেই হতাশা দূর করতে চান শ্যুটার আবদুল্লাহ হেল বাকি৷ ২০১৪ সালের কমনওয়েলথ গেমসে ১০-মিটার এয়ার রাইফেল ইভেন্টে রুপা জিতেছিলেন তিনি৷ এবারের লক্ষ্য অলিম্পিক পদক!

ড্যানিশ কোচ ক্লাভস ক্রিস্টেনসেনের অধীন ঢাকার জাতীয় শ্যুটিং ফেডারেশনে এখন নিয়মিত অনুশীলন করছেন বাকি৷ বার্তা সংস্থা এএফপিকে তিনি বলেন, ‘‘অনুশীলনে আমি যে স্কোর করছি সেটা চূড়ান্ত পর্বে যাওয়ার জন্য যথেষ্ট৷ আমি নিশ্চিত আমি যদি সেখানে যেতে পারি, তাহলে একজন শক্ত প্রতিদ্বন্দ্বী হব৷ তখন আমার একটি পদক জেতারও ভালো সম্ভাবনা থাকবে৷'' অলিম্পিকে তিনি ১০-মিটার এয়ার রাইফেল ইভেন্টে লড়বেন৷

ওয়াইল্ডকার্ড নিয়ে অলিম্পিকে অংশ নেবেন বাকি৷ এখন পর্যন্ত বাংলাদেশের সব প্রতিযোগী ওয়াইল্ডকার্ড নিয়েই অলিম্পিকে গেছেন৷ তবে এবার তার ব্যতিক্রম হতে পারেন গলফার সিদ্দিকুর রহমান৷ প্রথম বাংলাদেশি হিসেবে ‘অটোমেটিক চয়েস' হিসেবে অলিম্পিকে খেলার সুযোগ পেতে পারেন তিনি৷ পুরুষদের অলিম্পিক ব়্যাংকিং-এ ৷ সিদ্দিকুরের অবস্থান এখন ৫৬ নম্বরে৷ যদি এই স্থান ধরে রাখতে পারেন তাহলে ওয়াইল্ডকার্ড ছাড়াই অলিম্পিকে খেলার যোগ্যতা অর্জন করতে পারবেন৷ বাংলাদেশ অলিম্পিক এসোসিয়েশনের মহাসচিব ফখরুদ্দিন হায়দার সিদ্দিকুরের এই সম্ভাবনা নিয়ে বেশ উচ্ছ্বসিত৷

এদিকে, অলিম্পিকে বাংলাদেশের প্রতিযোগীদের উৎসাহ দিতে অর্থ পুরস্কার ঘোষণা করা হয়েছে৷ ‘‘কেউ সোনা জিতলে তাঁকে দেয়া হবে এক কোটি টাকা, রুপার জন্য ৫০ লক্ষ আর ব্রোঞ্জের জন্য দেয়া হবে ২৫ লক্ষ টাকা,'' জানান হায়দার৷ ‘‘অলিম্পিকে যিনি পদক জিতবেন তিনি অবশ্যই দেশের একজন কিংবদন্তি হয়ে যাবেন'' যোগ করেন তিনি৷

ভবিষ্যৎ ভালো

শ্যুটিং কোচ ক্রিস্টেনসেন মনে করেন, বাকি ও বাংলাদেশের শ্যুটিংয়ের ভবিষ্যৎ বেশ উজ্জ্বল, কারণ, ‘‘এখানে অনেক প্রতিভা আছে৷'' চার বছর পর টোকিও অলিম্পিকে বাংলাদেশ একটি শক্ত দল পাঠাতে পারবে বলেও তিনি আশাবাদী৷

জেডএইচ/এসিবি (এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়