1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

বাংলাদেশের হারিয়ে যাওয়া মাছ ফিরে আসছে

সুখবর৷ বাংলাদেশে হারিয়ে যাওয়া মাছেরা আবার ফিরে আসছে৷ দেশের হাওর অঞ্চল ঘুরে এসে এমন তথ্যই জানিয়েছেন বিশেষজ্ঞরা৷

default

বাংলাদেশের জাতীয় মাছ ইলিশ

একজন মাসুদ ফকির

পাবনার ছোট নওগাঁ গ্রামের মাসুদের পড়ালেখা খুব এগুয়নি৷ এসএসসি পাশ করার পর তাদের এলাকার অনেকের মতো তাকেও নামতে হয়েছে কাজে৷ কিন্তু কাজ পাওয়া তো এত সহজ নয়৷ বাবার আর্থিক অবস্থাও তেমন ভালো নয়৷ ব্যাবসা করতে হলে টাকার প্রয়োজন৷ কিন্তু কি করবে সে৷ বাড়ির পাশের মজা পুকুরের পাশে চাতালের দেবদারু গাছের গুঁড়িতে গা এলিয়ে দিয়ে ভাবে সে৷ হঠ্যাৎ তার মনে হয়, আচ্ছা এই পুকুরটাতো পড়ে আছে, এখানে যদি মাছ চাষ করা যায়, তাহলে তো বেশ হয়৷ গ্রামের হাটে এখন তো মাছ মেলেই না৷ যা ভাবা তাই কাজ৷ সে নেমে পড়ে মাছ চাষে৷ না, বিদেশি প্রজাতি নয়, দেশি প্রজাতির মাছ চাষ করছে সে৷ এখন বেশ ভালো আয় তার৷ তবে মাসুদের মতো অনেকেই নয়৷ অনেকেই মাছ চাষ করেন, কিন্তু বাড়তি লাভের আশায় বিদেশি প্রজাতির মাছ৷ অনেক সময় সেই মাছগুলো থাকে রাক্ষুসে প্রজাতির৷ মাছে ভাতে বাঙালি বলে আমাদের এক সময় পরিচিত ছিল৷ কিন্তু মনুষ্য সৃষ্ট নানা কারণে মাছেরা হারিয়ে যেতে বসেছে৷ আর দেশি মাছের জায়গা দখল করে নিচ্ছে বিদেশি নানা জাতের মাছ৷

das Fischen in Bengal

চলছে জাল দিয়ে মাছ ধরা

হারিয়ে যাচ্ছে দেশি মাছের প্রজাতি বৈচিত্র্য

বিগত দুই দশকে দেশের মাছ উৎপাদনের পরিমাণ বিশ্লেষণ করে মৎস্য বিজ্ঞানীরা নিশ্চিত হয়েছেন, অভ্যন্তরীণ জলাশয়ে মোট উৎপাদনে দেশীয় মাছের অবদান ক্রমেই নিম্নমুখী হচ্ছে৷ দেশি মাছের প্রজাতি বৈচিত্র্যও দিন দিন কমে যাচ্ছে৷

৫১১ প্রজাতির মাছ

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বর্তমানে বাংলাদেশে যত প্রজাতির মিঠা পানির মাছ আছে, তার অর্ধেক কমে গেছে৷ প্রতিবছর ৯ শতাংশ হারে মিঠা পানির মাছ এখন কমে যাচ্ছে৷ কমার এই হার যদি অব্যাহত থাকে, তবে আগামী ৫০ থেকে ১০০ বছরের মধ্যে মুক্ত জলাশয়ে দেশীয় প্রজাতির মাছ বলতে কিছুই অবশিষ্ট থাকবে না৷ ইতিমধ্যে বিলুপ্ত হয়ে গেছে ১২০ প্রজাতির দেশীয় মাছ৷ বাংলাদেশের অভ্যন্তরীণ জলাশয়ে বর্তমানে ২৯৬ প্রজাতির মাছ রয়েছে৷ এর মধ্যে মুক্ত জলাশয়ে রয়েছে ২৬০ প্রজাতির মাছ, ২৪ প্রজাতির চিংড়ি৷

৫৪ প্রজাতির দেশীয় মাছ বিলুপ্তির পথে

ইন্টারন্যাশনাল ইউনিয়ন ফর কনজারভেশন অফ নেচার বা আইইউসিএন বলছে, বাংলাদেশে মোট ৫৪ প্রজাতির দেশীয় মাছ বিলুপ্ত হয়ে যাচ্ছে৷ এর মধ্যে ১২ প্রজাতির মাছের অস্তিত্ব চরম হুমকিতে বা মহাবিপন্নের তালিকায়, ২৮ প্রজাতির মাছ বিপন্ন তালিকায় আর ১৪ প্রজাতির মাছের অবস্থা সংকটাপন্ন৷

সুখবর জানালেন শাইখ সিরাজ

বাংলাদেশের কৃষি বিষয়ক জনপ্রিয় অনুষ্ঠান ‘মাটি ও মানুষ'এর উপস্থাপক এবং চ্যানেল আই এর বার্তা প্রধান শাইখ সিরাজ৷ তার সঙ্গে বিষয়টি নিয়ে কথা বলার জন্য ফোন করতেই তিনি জানালেন, মোহনগঞ্জে বাংলাদেশের অন্যতম প্রধান মৎস হাট থেকেই ফিরছেন তিনি৷ এবার সেখানে গিয়ে তিনি দারুণ খুশি৷ কেন? কারণ সেখানে গিয়ে তিনি দেখতে পেলেন বিপন্ন এবং হারিয়ে যাওয়া বেশ কয়েক প্রজাতির দেশি মাছের৷ তিনি সেখানে মহাশোল, রানি, নান্দিনা, আড় মাছের হারিয়ে যাওয়া প্রজাতি গুজ্জা, শিলং এরকম বেশ কিছু প্রজাতির মাছ দেখেছেন৷ জেলেরা বলেছে, গত আট দশ বছর আগে তারা এই মাছগুলো পায়নি৷ এবার পেয়েছে৷ তিনি জানালেন, গত বেশ কযেক বছর যাবত প্রজননকালে মাছ না ধরার সরকারি বিভিন্ন ভালো উদ্যোগের কারণেই এই সুফল পাওয়া গেছে৷

যা করা জরুরি

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, প্রাকৃতিক ভারসাম্য রক্ষার স্বার্থে এসব মাছ তথা জলজ পরিবেশ ও জীববৈচিত্র্য সংরক্ষণ খুবই জরুরি৷ সর্বোপরি পুষ্টির উৎস ও গ্রামীণ জনগোষ্ঠীর আর্থ-সামাজিক উন্নয়নের জন্যও দেশীয় মাছের ভূমিকা ও গুরুত্ব অপরিসীম৷

প্রতিবেদন: সাগর সরওয়ার

সম্পাদনা: আব্দুল্লাহ আল-ফারূক