1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

বাংলাদেশের সবচেয়ে পুরনো যৌনপল্লি বন্ধ

ধর্মীয় নেতা এবং রাজনীতিবিদদের চাপে বন্ধ হয়ে গেছে বাংলাদেশের সবচেয়ে পুরনো যৌনপল্লিটি৷ স্থানীয় পুলিশ জানিয়েছে এই তথ্য৷ ইসলামপন্থিদের চাপে গত কয়েকবছরে একাধিক যৌনপল্লি বন্ধের ঘটনা ঘটলো৷

Kinderprostitution in Bangladesch

ফাইল ফটো

টাঙ্গাইলের কান্দাপাড়া যৌনপল্লিতে থাকতেন ৭৫০ জনের বেশি যৌনকর্মী৷ দু'শো বছরের পুরনো এই পল্লিটি গত রবিবার বন্ধ হয়ে গেছে৷ পুলিশের এক কর্মকর্তা জানিয়েছেন, কান্দাপাড়ার বাড়িঘরের মালিকরা যৌনকর্মীদের বের করে দেন৷ এরপর সেটি বন্ধ করে দেয়া হয়৷

টাঙ্গাইল জেলার পুলিশ প্রধান সালেহ মোহাম্মদ তানভীর এই বিষয়ে বলেন, ‘‘গত সপ্তাহে স্থানীয় ধর্মীয় নেতা এবং ‘সিভিল অ্যাক্টিভিস্টরা' যৌনপল্লিটি বন্ধের দাবিতে মিছিল করে৷ এরপরই মালিকরা সেটি বন্ধের সিদ্ধান্ত নেয়৷''

যৌনকর্মীরা কোনরকম প্রতিবাদ ছাড়াও পল্লি ত্যাগ করেছে বলে জানান পুলিশ প্রধান৷ তবে যৌনকর্মীদের একটি দলের প্রধান মনোয়ারা বেগম স্থানীয় মেয়রকে দোষারোপ করেছেন৷ তিনি বলেন, ‘‘মেয়র শনিবার বেশ কয়েকজন তরুণকে পল্লিতে পাঠান৷ লাঠিসোঁটা হাতে তারা আমাদের হুমকি দিয়ে বলে, এক ঘণ্টার মধ্যে পল্লি ছাড়তে হবে৷ আর নাহলে গোটা এলাকায় কেরোসিন ঢেলে আগুন দিয়ে দেয়া হবে৷''

এই হুমকির পর পল্লির মালিকরা দ্রুত যৌনকর্মীদের বের করে দেন৷ সে সময় পল্লিতে থাকা ৭৭৩ যৌনকর্মীর মধ্যে আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে৷ এই সুযোগে তাদের টিভি, ফ্রিজসহ বিভিন্ন আসবাবপত্র লুট করে নিয়ে যায় একদল মানুষ৷

যৌনপল্লি উচ্ছেদের বিষয়ে অবশ্য মেয়রের কোন মন্তব্য পাওয়া যায়নি৷ ব্রিটিশ দাতব্য সংস্থা অ্যাকশন এইডের বাংলাদেশ অংশ জানিয়েছে, কান্দাপাড়ার যৌনপল্লিটি গত দু'শো বছর চালু ছিল৷ ব্রিটিশ ঔপনিবেশিক আমলে এটি প্রতিষ্ঠা হয়৷

উল্লেখ্য, বাংলাদেশে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে বেশ কয়েকটি যৌনপল্লি উচ্ছেদ করে দেয়া হয়েছে৷ গত বছর মাদারীপুরের যৌনপল্লিটি উচ্ছেদ করে স্থানীয় জনতা৷ তারও আগে ঢাকার অদূরে নারায়ণগঞ্জের আলোচিত টানবাজার পল্লি বন্ধ করে দেয়া হয়৷

এআই / এসবি (এএফপি)

নির্বাচিত প্রতিবেদন