1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

বাংলাদেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি

জাতিসংঘের মানবাধিকার বিষয়ক সংস্থা ‘ইউএন হিউম্যান রাইটস কাউন্সিল' এর সদস্য নির্বাচিত হয়েছে বাংলাদেশ৷ এতে অনেকে যেমন বাংলাদেশ সরকারের প্রশংসা করেছেন, তেমনি কেউ কেউ দেশের মানবাধিকার পরিস্থিতি নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন৷

মঙ্গলবার নিউ ইয়র্কে ৪৭ সদস্যের এই কাউন্সিলের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়৷ এই জয়ের ফলে ২০১৫-২০১৭ সাল মেয়াদে ইউএনএইচআরসি-র সদস্য হচ্ছে বাংলাদেশ৷ মানবাধিকার নিয়ে প্রায়ই পশ্চিমা দেশগুলোর সমালোচনার মুখে পড়তে হয় বাংলাদেশকে৷ সোমবার হিউম্যান রাইটস ওয়াচের প্রতিবেদনেও সেধরনের সমালোচনা উঠে এসেছে৷

ঐ প্রতিবেদনে ঝালকাঠির রাজাপুরের লিমন হোসেনকে গুলি করে পঙ্গু করার ঘটনায় স্বাধীন তদন্ত ও র‌্যাবের দায়ী সদস্যদের বিচারের আওতায় আনার জন্য সরকারের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে আন্তর্জাতিক মানবাধিকার সংস্থাটি৷ ২০১১ সালের ২৩ মার্চ ঝালকাঠির রাজাপুর ইউনিয়নের সাতুরিয়া গ্রামে নিজ বাড়ির পাশে মাঠ থেকে গরু আনতে গিয়ে ‘র‌্যাবের নিষ্ঠুরতার' শিকার হন দরিদ্র পরিবারের কলেজপড়ুয়া সন্তান লিমন৷

হিউম্যান রাইটস ওয়াচের নির্বাহী পরিচালক কেনেথ রথ টুইটারে ঐ প্রতিবেদনটি নিয়ে লিখেছেন, র‌্যাবের হামলায় আহত ১৬ বছর বয়সি কিশোরের বিরুদ্ধে দায়ের করা সব মামলা প্রত্যাহার করেছে কতৃ‌র্পক্ষ৷ তবে হামলাকারীদের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেওয়া হয়নি৷

সেলিম সামাদ টুইটারে লিখেছেন, বাংলাদেশের বিরোধী দলের নেতাদের গুম ও অপহরণের বিষয়টিতে মানবাধিকার গ্রুপগুলো বাংলাদেশের আইন শৃঙ্খলাবাহিনীকে দায়ী করেছে৷

হিউম্যান রাইটস ওয়াচের দক্ষিণ এশিয়া বিভাগের পরিচালক মিনাক্ষী গাঙ্গুলী লিখেছেন, লিমনের বিরুদ্ধে দায়ের করা সব মামলা প্রত্যাহার হলেও র‌্যাবের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়া হয়নি৷

এছাড়া তিনি বাংলাদেশের ইউএনএইচআরসি-র সদস্য নির্বাচিত হওয়ার বিষয়টি উল্লেখ করে লিখেছেন, এখন বাংলাদেশের উচিত নিজেদের মানবাধিকার পরিস্থিতির দিকে নজর দেয়া৷

পলাশ দত্ত লিখেছেন, মানবাধিকার বিষয়ক জাতিসংঘের প্রধান সংস্থা ইউনাইটেড ন্যাশনস হিউম্যান রাইটস কাউন্সিলের সদস্য নির্বাচিত হয়েছে বাংলাদেশ৷

সংকলন: অমৃতা পারভেজ

সম্পাদনা: জাহিদুল হক

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়