1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

বাংলাদেশের প্রেক্ষাগৃহে চলবে হিন্দি ছবি

বাংলাদেশের প্রেক্ষাগৃহে ভারতীয় হিন্দি চলচ্চিত্র দেখানো নিয়ে বিতর্ক বহুদিনের৷ সংবাদসংস্থা এএফপি’র তথ্য অনুযায়ী, ১৯৭২ সাল থেকে বাংলাদেশে কার্যত নিষিদ্ধ হিন্দি ছবি৷ আর এর বড় কারণ ছিল, দেশীয় চলচ্চিত্র বাঁচিয়ে রাখা৷

default

ফাইল ফটো

শুধু তাই নয়, বাংলাদেশী শিল্পী-প্রযোজকদের অসম প্রতিযোগিতায় ফেলে না দেয়াও ছিল হিন্দি ছবি না দেখানোর বড় কারণ৷ কিন্তু হঠাৎই শনিবার বদলে গেলো সরকারের নীতি৷ বাংলাদেশের বাণিজ্য মন্ত্রী ফারুক খান জানালেন, আমরা চলচ্চিত্র শিল্পে বড় বাণিজ্যের ছোঁয়া লাগাতে হিন্দি ছবির উপর থেকে নিষেধাজ্ঞা তুলে নিয়েছি৷

একথা ঠিক, হিন্দি ছবি প্রেক্ষাগৃহে চালানোর জন্য বহুদিন ধরেই মুখিয়ে আছেন এই খাতের ব্যবসায়ীরা৷ অপেক্ষা ছিল সরকারি অনুমতির৷ আর সেটি পাওয়ার পর পরই ব্যবসায়ীরা জানালেন, খুব শীঘ্রই হিন্দি ছবি শুরু হবে বাংলাদেশের প্রেক্ষাগৃহে৷

অবশ্য বাংলাদেশের প্রেক্ষাগৃহগুলোকে বাঁচিয়ে রাখতে এর বিকল্প কিছু হয়তো ছিল না৷ কারণ, এই ব্যবসার ধস দেখা যায় পরিসংখ্যানের দিকে একবারটি তাকালেই৷ ২০০০ সালে বাংলাদেশে প্রেক্ষাগৃহের সংখ্যা ছিল ১,৬০০৷ অথচ ২০১০ গিয়ে তা দাঁড়িয়েছে মাত্র ৬০০ তে! যারা এখনো টিঁকে আছে, তাদের কথায়, শুধু বাংলা সিনেমা আর ইংরেজি ভাষার হালকা-পর্ন দেখিয়ে ব্যবসা তেমন একটা হচ্ছে না৷

Filmplakat des neuen Bollywoodfilms Aladin Flash-Galerie

খুব শীঘ্রই হিন্দি ছবি শুরু হবে বাংলাদেশের প্রেক্ষাগৃহে

এদিকে, হিন্দি ছবি প্রদর্শনের সিদ্ধান্তের তীব্র নিন্দা জানিয়েছেন বাংলাদেশের চলচ্চিত্র শিল্পীরা৷ জনপ্রিয় চিত্রনায়ক এবং নব গঠিত ‘হিন্দি ছবি প্রতিরোধ' কমিটির সমন্বয়ক মাসুম পারভেজ রুবেল এই প্রসঙ্গে বলেন, ‘‘ভারতীয় ছবি আমাদের চলচ্চিত্র শিল্প এবং সংস্কৃতিকে সম্পূর্ণ ধ্বংস করে দেবে৷ এই শিল্পের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ২৫ হাজার মানুষ কর্মহীনও হবে৷''

আর তাই হিন্দি ছবি প্রদর্শনের বিরুদ্ধে নায়কোচিত ভূমিকায় রুবেল৷ বললেন, আমরা বাণিজ্যমন্ত্রী এবং সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে এই সিদ্ধান্ত পুর্নবিবেচনার জন্য অনুরোধ করছি৷ নতুবা, শরীরে শেষ রক্তবিন্দু থাকা পর্যন্ত এই সিদ্ধান্তের বিরুদ্ধে আন্দোলন করবো আমরা৷

ও হ্যাঁ, হিন্দি ছবি কিংবা দক্ষিণ এশিয়ার যেকোন চলচ্চিত্র বাংলাদেশে প্রদর্শনের ক্ষেত্রে ছোট একটা নিয়ম কিন্তু করেছে সরকার৷ আর তা হলো, প্রতিটি ছবির সঙ্গে যুক্ত করতে হবে ইংরেজি ‘সাব-টাইটেল'৷

প্রতিবেদক: আরাফাতুল ইসলাম

সম্পাদনা: সুপ্রিয় বন্দোপাধ্যায়

সংশ্লিষ্ট বিষয়