1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

বাংলাদেশের তিনটি ফোন সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান বন্ধ

শুক্রবার বাংলাদেশের আরো একটি বেসরকারি ল্যান্ডফোন সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে অবৈধ ভিওআইপির অভিযোগ আনা হলো৷ সংস্থাটির নাম ব়্যাংকসটেল আর এই ঘটনার পর তাদের সব কার্যক্রম বন্ধ করে দিয়েছে সরকার৷

default

ফাইল ফটো

অবৈধ টেলিফোন তথা ভিওআইপি ব্যবসার অভিযোগে বাংলাদেশের তিনটি বেসরকারি ল্যান্ডফোন সেবাদাতা প্রতিষ্ঠানের কর্মকান্ড বন্ধ করে দেয়া হয়েছে৷ বাংলাদেশের টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রক সংস্থা বিটিআরসি-র এক মুখপাত্র জানিয়েছেন এই তথ্য৷ জার্মান বার্তা সংস্থা ডিপিএ জানায়, যেসব প্রতিষ্ঠানের কর্মকান্ড আপাতত বন্ধ সেগুলো হচ্ছে ব়্যাংকসটেল, ওয়ার্ল্ড টেল এবং ঢাকা ফোন৷

শুক্রবার ভোরে বাংলাদেশের নিরাপত্তা বাহিনী প্রায় ১২ ঘন্টার এক অভিযান চালায় ব়্যাংকসটেলের কার্যালয়ে৷ সেসময় প্রতিষ্ঠানটির সুইচ রুম থেকে উদ্ধার করা হয় ভিওআইপি সংশ্লিষ্ট বেশকিছু যন্ত্রপাতি৷ এই প্রসঙ্গে বিটিআরসির চেয়ারম্যান জিয়া আহমেদ জানান, আমরা শুক্রবার সকাল থেকে ব়্যাংকসটেল এর সব কর্মকান্ড বন্ধ করে দিয়েছি৷ কারণ প্রতিষ্ঠানটির কার্যালয়ে প্রচুর পরিমাণে ভিওআইপি সরঞ্জাম পাওয়া গেছে৷ এ বিষয়ে ব়্যাংকসটেলের তিন কর্মকর্তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে বলেও সংবাদমাধ্যমকে জানান তিনি৷

এদিকে শুক্রবার বিকালে ব়্যাকসটেল কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে প্রতিষ্ঠানটির পরিচালক আমানুল্লাহ চৌধুরী দাবি করেন, সংস্থাটির কার্যালয়ে কোনো ভিওআইপি যন্ত্রপাতি ছিলো না এবং সেখান থেকে কোনো যন্ত্রপাতি উদ্ধারও হয়নি৷

তিনি আরো বলেন, এর আগে অনেক বড় বড় প্রতিষ্ঠানে অভিযান চালিয়ে ভিওআইপি সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়েছে, কিন্তু তাদের সুইচরুম বন্ধ করে দেওয়া হয়নি৷ আমরা কিছু স্বার্থান্বেষী মহলের ষড়যন্ত্রের শিকার হয়েছি৷

এর আগে নিরাপত্তা বাহিনীর অপর এক অভিযানে বেসরকারী ল্যান্ডফোন সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান ওয়ার্ল্ডটেল এর কার্যালয় থেকে উদ্ধার করা হয় অবৈধ টেলিফোনির সরঞ্জাম৷ ফলে সেটির কার্যক্রমও বন্ধ করে দেয় বিটিআরসি৷

গত সোমবার একই ধরণের অভিযোগে আটক হন ঢাকা ফোন নামে একটি প্রতিষ্ঠানের পাঁচ কর্মকর্তা৷ সেইসঙ্গে প্রতিষ্ঠানটির কর্মকান্ডও স্থগিত হয়ে যায়৷

উল্লেখ্য, আপাতত বন্ধ হয়ে যাওয়ায় এই প্রতিষ্ঠান তিনটির কয়েক লাখ গ্রাহক বর্তমানে টেলিফোন সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন৷ অথচ গত তত্ত্বাবধায়ক সরকারের সময় একই ধরণের অভিযোগে মোবাইল সেবাদাতার জরিমানা হলেও সেবা বন্ধ করা হয়নি৷ আর তাই গ্রাহকদের ভোগান্তির বিষয়টি এখন আলোচনায়৷ এজন্য আন্তরিকভাবে দুঃখ প্রকাশ করেছেন বিটিআরসি চেয়ারম্যান৷ কিন্তু কবে নাগাদ এই গ্রাহকরা আবার টেলিফোন সেবা পাবেন তা তিনি জানাননি৷

প্রতিবেদক: আরাফাতুল ইসলাম

সম্পাদনা: আব্দুল্লাহ আল-ফারূক

সংশ্লিষ্ট বিষয়