1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বিশ্ব

বাংলাদেশের টাকা চুরির অভিযোগ, অস্বীকার

বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংক সোমবার জানিয়েছে, যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভে থাকা অ্যাকাউন্ট হ্যাক করা হয়েছে এবং সেখান থেকে টাকা চুরি হয়েছে৷ ইতোমধ্যে চুরি যাওয়া টাকার সন্ধান পাওয়া গেছে বলেও জানিয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংক৷

বাংলাদেশ ব্যাংকের যুক্তরাষ্ট্রের অ্যাকাউন্ট যাদের নিয়ন্ত্রণে আছে, অর্থাৎ দ্য নিউইয়র্ক ফেড অবশ্য জানিয়েছে যে, তাদের সিস্টেম ‘হ্যাক' হয়নি৷ তবে বাংলাদেশ ব্যাংকের অ্যাকাউন্ট থেকে বড় অংকের অর্থ অন্যত্র সরানো হয়েছে কিনা সে ব্যাপারে কিছুই জানায়নি ফেড৷ সাধারণত গোপনীয়তার স্বার্থে এ ধরনের তথ্য প্রকাশ করে না প্রতিষ্ঠানটি৷ তাই এ ব্যাপারে কোনো তদন্ত করা হচ্ছে কিনা তাও জানায়নি তারা৷

এদিকে বাংলাদেশ ব্যাংক জানিয়েছে যে, ফিলিপাইন্সের অ্যান্টি মানি লন্ডারিং কর্তৃপক্ষের সঙ্গে কাজ করছে তারা৷ তবে ঠিক কী পরিমাণ টাকা রেজার্ভ থেকে চুরি হয়েছে সেটা জানায়নি ব্যাংক কর্তৃপক্ষ৷ ইতিপূর্বে প্রকাশিত তথ্য থেকে জানা যাচ্ছে, বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রা রিজার্ভে ২৮ বিলিয়ন মার্কিন ডলারের মতো রয়েছে৷

অন্যদিকে বাংলাদেশের অর্থমন্ত্রী আবুল মাল আব্দুল মুহিত স্থানীয় গণমাধ্যমকে জানিয়েছেন, রিজার্ভ থেকে টাকা চুরির বিষয়টি এখনো তাঁকে কেউ জানায়নি৷ সাংবাদিকদের তিনি বলেন, ‘‘এ ব্যাপারে বাংলাদেশ ব্যাংক আমাকে কিছু জানায়নি৷''

বাংলাদেশে ডয়চে ভেলের কন্টেন্ট পার্টনার বিডিনিউজ টোয়েন্টিফোর ডটকম ফিলিপাইন্সের সংবাদপত্র ‘দ্য ফিলিপাইন্স ডেইলি ইনকোয়্যারার'-এর বরাতে জানিয়েছে, ‘‘চীনা হ্যাকাররা বাংলাদেশ ব্যাংক অথবা বাংলাদেশের কোনো আর্থিক প্রতিষ্ঠান থেকে ১০ কোটি ডলার হাতিয়ে নিয়ে তা ফিলিপাইন্সে পাচার করে৷ পরে ওই অর্থ সেখান থেকে ক্যাসিনোসহ একাধিক হাত ঘুরে অন্য দেশে নিয়ে যাওয়া হয়েছে৷''

প্রসঙ্গত, নিউ ইয়র্ক ফেডে বিশ্বের ২৫০টি কেন্দ্রীয় ব্যাংক, সরকার এবং অন্যান্য সংস্থার বৈদেশিক অ্যাকাউন্ট রয়েছে৷ ২০১৪ সালে তাদের নেটওয়ার্ক হ্যাক করেছিল ব্রিটেনের এক নাগরিক৷ সেসময় তিনি ফেডের অভ্যন্তরীণ বিভিন্ন তথ্য বাইরে প্রকাশ করেছিলেন৷

এআই/ডিজি (রয়টার্স, বিডিনিউজটোয়েন্টিফোর ডটকম)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়