1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

বাংলাদেশের জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষতি মোকাবিলায় ইইউ তহবিল

বাংলাদেশের পরিবেশ প্রতিমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, কোপেনহেগেন সম্মেলনে আইনগত বাধ্যবাধকতা সম্বলিত একটি চুক্তি সম্পাদনের বিষয়ে বাংলাদেশের যে প্রত্যাশা ছিল, তা পূরণ হয়নি৷ ডয়চে ভেলেকে দেয়া সাক্ষাৎকারে তিনি একথা বলেন৷

default

ফাইল ফটো

তবে হাছান মাহমুদ জানিয়েছেন, বাংলাদেশের জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষতি মোকাবিলায় ইউরোপীয় ইউনিয়নভুক্ত দেশগুলোর সমন্বয়ে একটি বহুজাতিক তহবিল গঠন চূড়ান্ত পর্যায়ে আছে৷ দুই এক দিনের মধ্যে এই ঘোষণা আসছে৷

জার্মান আন্তর্জাতিক বেতার ডয়চে ভেলেকে দেয়া একান্ত সাক্ষাৎকারে তিনি এই কথা বলছেন৷

ড. হাছান মাহমুদ এক প্রশ্নের জবাবে জানান, কোপেনহেগেন সম্মেলনে যেটা সম্ভব হয়নি, আমাদের লক্ষ্য হচ্ছে, কোপ-১৬ সম্মেলন, যা মেক্সিকোতে অনুষ্ঠিত হবে, সেখানে এ বিষযে একটি ঐকমত্যে পৌঁছানোর৷ সেই লক্ষ্যেই বাংলাদেশ কাজ করে যাচ্ছে৷ বাংলাদেশ সে সমস্ত দেশের সঙ্গে বসে কোপেনহেগেন অ্যাকর্ড রচনার লক্ষ্যে কাজ করছে৷ তিনি বলেন, যেটা করতে আমরা তখন ব্যর্থ হয়েছি, সেটা মেক্সিকো সম্মেলনে যাতে সমর্থ হই সেই লক্ষ্যেই এলডিসি এবং অন্যান্য দেশ বিশেষ করে ২৫টি দেশ এক সঙ্গে কাজ করেছে৷ তিনি বলেন, ইতিমধ্যেই সেই অ্যাকর্ডে সই করতে বাংলাদেশ সম্মতি জ্ঞাপন করেছে৷

তিনি বলেন, কোপেনহেগেনে ২০১০ থেকে ২০১২ সালের মধ্যে ৩০ বিলিয়ন ডলারের একটি বৈশ্বিক তহবিল গঠনের ধারাবাহিকতায় ২০২০ সাল নাগাদ ১০০ বিলিয়ন ডলারের তহবিল গঠনের যে ঐকমত্য হয়েছে এই তহবিল এখন বাস্তবায়ন হবে, তা আমরা আশা করতে পারি৷ বাংলাদেশ যেহেতু সবচেয়ে ক্ষতিগ্রস্ত দেশ, এই তহবিল থেকে আমরা যেন প্রয়োজনীয় অর্থ পেতে পারি, সেভাবেই সরকারের প্রকল্পগুলো প্রনয়ণ করা হচ্ছে৷

পরিবেশ প্রতিমন্ত্রী জানান, জলবায়ু পরিবর্তনের ক্ষতি মোকাবিলায় বাংলাদেশ নিজস্ব সূত্রের অর্থ থেকে সাতশ কোটি টাকা এ বছর বরাদ্দ করেছে৷ আমরা আশা করছি, আগামী দুই একমাসের মধ্যে এই তহবিলের পুরো অর্থটাই ছাড় দেয়া সম্ভব হবে৷ তিনি ইউরোপীয় ইউনিয়নের আওতাভুক্ত কয়েকটি দেশের কথা উল্লেখ করে বলেন, তারা জলবায়ু ইস্যুকে সামনে রেখে আমাদের জন্য বহুজাতিক তহবিল গঠনের একটি প্রস্তাব করেছিল বছরদেড়েক আগে, কিন্তু এটা বাস্তবায়ন হচ্ছিলো না নানা কারণে৷ এই অর্থ ঋণ না সাহায্য তা নিয়ে আমাদের মধ্যে নানা মতদ্বৈধতা ছিল৷ এই সমস্যার সমাধান হয়েছে৷ এটা সাহায্য এবং এটা কোপেনহেগেনে প্রস্তাবিত তহবিলের অতিরিক্ত৷ এটা এখন বাংলাদেশ গ্রহণ করার সিদ্ধান্ত নিয়েছে৷ তিনি জানান, এই বহুজাতিক তহবিলে যুক্তরাজ্য ৭০ মিলিয়ন পাউন্ড, ইউরোপীয় ইউনিয়ন সাড়ে আট মিলিযন ইউরো, ডেনিশ সরকার ১০ মিলিয়ন ক্রোনা এবং সুইডেন অর্থ দেবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছে৷ এই অর্থ দেশ গুলো তাদের বাজেট থেকে আলাদা করে রেখে দিয়েছে৷ সুতরাং এই তহবিল আমরা পাচ্ছি এটা নিশ্চিত৷

প্রতিবেদক: সাগর সরওয়ার

সম্পাদনা: আব্দুল্লাহ আল-ফারূক

সংশ্লিষ্ট বিষয়