1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

সমাজ সংস্কৃতি

বাঁচবে যমুনা, বাঁচবে মানুষ

নতুন দিল্লির সাধারণ মানুষ নেমে পড়েছে যমুনা নদীকে বাঁচাতে৷ হাতে গ্লোভস লাগিয়ে, যার কাছে যা আছে তাই দিয়ে সরাতে শুরু করেছে নদীর সব আবর্জনা৷

default

যমুনা নদীতে আবর্জনা

আর এই কাজ করা হচ্ছে আগামী অক্টোবরে কমনওয়েলথ গেমসকে সামনে রেখে৷ পঁচা পুতি দূর্গন্ধময় হয়ে গেছে যমুনার জল৷ এ এক অন্য রকম আন্দোলন৷

যমুনা কাব্য

যমুনা৷ উত্তর ভারতের অন্যতম প্রধান নদী৷ গঙ্গার প্রধান উপনদী৷ যমুনা নদীর উৎস মধ্য হিমালয়ের পর্বতশৃঙ্গের দক্ষিণ-পশ্চিম পাদদেশে অবস্থিত যমুনোত্রী হিমবাহের ৬,৩৮৭ মিটার উচ্চতায়৷ এক হাজার ৩৭৬ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের এই নদীটি প্রায় ৩ লাখ ৬৬ হাজার ২২৩ বর্গ কিলোমিটার এলাকায় পানি সরবরাহ করছে৷

যমুনা নদী প্রবাহিত হয়েছে উত্তরাখণ্ড, হরিয়ানা ও উত্তরপ্রদেশ রাজ্যের মধ্য দিয়ে এবং হিমাচল প্রদেশ ও দিল্লির পাশ দিয়ে৷ ভাবলেও অবাক হতে হয় এই জন্য যে ভারতের প্রায় ১০ কোটি মানুষ সরাসরি এই নদীর পানির উপর নির্ভরশীল৷ ফি বছর এই নদীতে ১০,০০০ কিউবিক মিটার জল প্রবাহিত হয়৷ এর মধ্যে ৪,৪০০ কিউবিক মিটার পানি ব্যবহার করা হয়৷ যমুনার ব্যবহৃত পানির ৯৬ শতাংশই লাগে সেচের কাজে৷ দিল্লির পানিসরবরাহ ব্যবস্থার ৭০ শতাংশই আসে যমুনা নদী থেকে৷ সুন্দর এই নদীটি আজ মারাত্মক দূষনের শিকার৷

বর্জ্য জল নদীতে

হিমালয়ের যমুনোত্রী থেকে দিল্লির ওয়াজিরাবাদ পর্যন্ত যমুনার জলের মান মোটামুটি ভাল হলেও অন্য স্থানগুলোর অবস্থা বেশ শোচনীয়৷ দিল্লির ওয়াজিরাবাদ বাঁধ থেকে ওখলা বাঁধ পর্যন্ত নদীর গতিপথে ১৫টি পয়ঃপ্রণালীর মাধ্যমে বর্জ্য জল

Taj Mahal in Agra

তাজমহল যমুনার পারে অবস্থিত

নদীতে নিক্ষেপ করা হয়৷ এর ফলে দিল্লির ঐ অঞ্চলে যমুনার জল অত্যন্ত দূষিত৷ এক বিশেষজ্ঞ নদীটিকে তাই ১৪ – ২৮ এমজি-১ বায়োকেমিক্যাল অক্সিজেন ডিম্যান্ড (বিওডি) এবং উচ্চহারে কোলিফর্ম উপাদানযুক্ত একটি নিকাশী নালা বলে উল্লেখ করেন৷ যমুনা দূষণের তিনটি প্রধান উৎস হল গার্হস্থ্য ও পৌর বর্জ্যভূমি, কৃষির জন্য বনচ্ছেদনের ফলে ভূমিক্ষয় এবং বিভিন্ন কৃষি ও শিল্পক্ষেত্রের থেকে বিষাক্ত রাসায়নিক পদার্থ৷

বিষাক্ত বাংলাদেশের যমুনাও

যমুনার বাংলাদেশ অংশে কি অবস্থা? জানা যায়, সিরাজগঞ্জের এনায়েতপুরে তাঁত কারখানার বর্জ্যে যমুনা নদী দূষিত হয়ে পড়েছে৷ পানি দুর্গন্ধযুক্ত ও বিষাক্ত হয়ে পড়ায় নদীর ডাঙ্গায় বসবাসরত প্রাণী ও মানুষ পোহাচ্ছে অবর্ণনীয় দুর্ভোগ৷সমস্যা সমাধানে কর্তৃপক্ষের কাছে অভিযোগ দিয়েও কাজ হচ্ছে না৷এক্ষেত্রে যমুনার পানি দূষণরোধে স্থানীয় সংসদ সদস্য, মত্স্য ও প্রাণীসম্পদমন্ত্রী আবদুল লতিফ বিশ্বাসের কাছে জরুরি পদক্ষেপ দাবি করেছে এলাকাবাসী৷

সর্বস্বান্ত হাজারো মানুষ

নদী বিধৌত সিরাজগঞ্জের চৌহালী এবং এনায়েতপুরের মানুষের সঙ্গে যমুনার সম্পর্ক বাঁচা-মরার৷ গত ৫০ বছর ধরে যমুনার দু'তীর ভেঙে হাজার হাজার মানুষকে করেছে সর্বস্বান্ত৷ তাই বসতবাড়ি আর আবাদি জমি হারিয়ে পথে বসেছে অনেকেই৷ এক সময় নদীর স্বচ্ছ পানিতে ছিল নানা ধরনের সুস্বাদু মাছের আবাসস্থল৷ এই অঞ্চলের দুখী-দরিদ্র হাজারও জেলে পরিবার মাছ শিকার পেশার সঙ্গে জড়িত থেকে জীবিকা নির্বাহ করত৷ তারা এখন নিঃস্ব৷স্বচ্ছ যমুনা নদীর পানি বিষাক্ত হয়ে পড়েছে৷ এনায়েতপুর থানার বেতিল হাটখোলা থেকে দক্ষিণে এনায়েতপুর স্পার বাঁধ পযন্ত প্রায় দেড় কিলোমিটার এলাকা তাঁত শিল্পের সুতা রং করার ডাইং ও প্রসেসিং কারখানার বর্জ্যে এখন সম্পূর্ণ দূষিত৷ স্বচ্ছ পানি লালচে কালো হয়ে গেছে৷ দুর্গন্ধময় হয়ে গেছে এলাকা৷এখানে মাছ বসবাস করা তো দূরের কথা মৃত্যুর ভয়ে পাখি পর্যন্ত উড়ে যেতে দেখা যায় না৷ আর ২শ' গজ দূর থেকে মানুষের নাকে দুর্গন্ধ ধেয়ে আসায় আগের মতো কেউ সাঁতরিয়ে এখানে গোসল করে না৷

বাঁচবে যমুনা! বাঁচবে মানুষ!

ভারতের নতুন দিল্লিতে প্রায় আটশ তরুণ নেমেছেন এই নদীকে বাঁচাতে৷ হয়তো বাংলাদেশের তরুণেরাও একই ধরণের কাজে নেমে পড়বেন৷ কিন্তু এভাবে কি এই এত বড় নদীকে বাঁচানো যাবে? উত্তর আন্দোলন শুরু হয়েছে৷ এর শেষও হবে৷ ভালো ফলাফল পাওয়া যাবে৷ বাঁচবে যমুনা৷ বাঁচবে মানুষ৷

প্রতিবেদন: সাগর সরওয়ার

সম্পাদনা: জাহিদুল হক

সংশ্লিষ্ট বিষয়