1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

খেলাধুলা

বর্ষসেরা ক্রীড়া সম্মাননা পেলেন হার্বার্ট, নেলসেন এবং চার্লস

নিউজিল্যান্ডের সর্বোচ্চ সম্মাননা অর্ডার অফ নিউজিল্যান্ড৷ একসাথে দেশটির মাত্র ২০ জন জীবিত ব্যক্তি পেতে পারেন এই সম্মানজনক খেতাব৷ এ বছর এই খেতাব পেলেন গল্ফার বব চার্লস৷ এছাড়া বর্ষসেরার তালিকায় আছেন হার্বার্ট এবং নেলসেন৷

খেলা, ক্রীড়া, বিশ্বকাপ, ফুটবল, নিউজিল্যান্ড, চার্লস, ব্রিটশ, ওপেন, sports, world, cup, football, soccer, new zealand, open, british

ফুটবল বিশ্বকাপে নিউজিল্যান্ড দল

৭৪ বছর বয়সি বব চার্লস সম্মানজনক নাইট উপাধি পেয়েছিলেন ১৯৯৯ সালে৷ প্রথম নিউজিল্যান্ডার হিসেবে ১৯৬৩ সালে ব্রিটিশ ওপেনে শিরোপা ছিনিয়ে এনেছিলেন চার্লস৷ নতুন বছর ২০১১ সালের শুভাগমনে তাই এবার দেশটির সর্বোচ্চ খেতাব জুড়ে দেওয়া হলো চার্লসের শিরে৷

এদিকে, ২০১০ সালের ফুটবল বিশ্বকাপ আসরে অপরাজিত জাতীয় দলের কোচ এবং অধিনায়ক পেলেন ‘নিউজিল্যান্ড অর্ডার অফ মেরিট' খেতাব৷ কোচ রিকি হার্বার্টকে দেওয়া হয়েছে ‘কম্পানিয়ন টু দ্য নিউজিল্যান্ড অর্ডার অফ মেরিট' খেতাব৷ অধিনায়ক রায়ান নেলসেন পেয়েছেন ‘অফিসার অফ দ্য নিউজিল্যান্ড অর্ডার অফ মেরিট' খেতাব৷

তবে দক্ষিণ আফ্রিকায় বিশ্বকাপের আসরে বেশ ভালো ফলাফলের জন্য পুরো দলের কৃতিত্ব থাকায় একক ব্যক্তিকে আলাদা করে সম্মানিত করায় নিজে কিছুটা অস্বস্তি বোধ করেছেন নেলসেন৷ তিনি এক বিবৃতিতে বলেন, ‘‘দলগত ক্রীড়ার আসর থেকে একক ব্যক্তিকে সম্মানিত করার পক্ষপাতি আমি নই৷ দক্ষিণ আফ্রিকায় দলে থাকা ২৪ জনের প্রত্যেকে অসাধারণ ভালো করেছে৷ তাই গোটা দলের চমৎকার পরফর্মেন্সের জন্য একজনকে আলাদা করে সম্মানিত করাটা কিছুটা হাস্যকর মনে হয়৷''

প্রসঙ্গত, নিউজিল্যান্ড দল ফুটবল বিশ্বকাপের আসরে প্রথমবারের মতো খেলেছিল ১৯৮২ সালে স্পেনের মাটিতে৷ এরপর ২০১০ এর দক্ষিণ আফ্রিকার বিশ্বকাপ আসরে তাদের দ্বিতীয়বারের মতো অংশগ্রহণ৷ এই আসরে নিউজিল্যান্ড একমাত্র দল যারা কোন ম্যাচেই পরাজিত হয়নি৷ তবে ইটালি, স্লোভাকিয়া এবং প্যারাগুয়ের সাথে ড্র করে গ্রুপ পর্যায় থেকেই বিদায় নিতে হয়েছিল তাদের৷ তবু জাতীয় দলের এমন ফলাফলেও খুশি দেশের মানুষ৷ তাই রাষ্ট্রীয়ভাবে সম্মানিত করা হলো কোচ এবং অধিনায়ককে৷

প্রতিবেদন: হোসাইন আব্দুল হাই

সম্পাদনা: রিয়াজুল ইসলাম

নির্বাচিত প্রতিবেদন