1. Inhalt
  2. Navigation
  3. Weitere Inhalte
  4. Metanavigation
  5. Suche
  6. Choose from 30 Languages

বাংলাদেশ

‘বর্ষবরণের রাতে হামলার পরিকল্পনাকারী' পাঁচ ‘জঙ্গি' আটক

বাংলাদেশ পুলিশ পাঁচ সন্দেহভাজন জঙ্গিকে গ্রেপ্তার করেছে যারা বর্ষবরণের রাতে হামলার পরিকল্পনা করছিল বলে সন্দেহ৷ ঢাকার কাউন্টার-টেরোরিজম পুলিশ প্রধান বুধবার এই তথ্য জানিয়েছেন৷

গ্রেপ্তারকৃতরা নিষিদ্ধ ঘোষিত জঙ্গি গোষ্ঠী জামাত-উল-মুজাহিদিন বাংলাদেশ (জেএমবি)-র একটি উপদলের সদস্য বলে ধারণা করা হচ্ছে৷ গত জুলাইয়ে ঢাকায় জঙ্গি হামলার পেছনে এই গোষ্ঠী জড়িত বলে দাবি করেছে পুলিশ৷ সেই হামলায় ২২ ব্যক্তি নিহত হন, যাদের অধিকাংশই ছিল বিদেশি নাগরিক৷

‘‘বর্ষবরণের রাতে হামলার পরিকল্পনা করছিল তারা'', ঢাকায় এক সংবাদ সম্মেলনে একথা বলেন পুলিশের কাউন্টার-টেরিরোজিম ইউনিটের প্রধান মনিরুল ইসলাম৷ তবে জঙ্গিদের হামলার লক্ষ্য কী ছিল এবং কীভাবে হামলার পরিকল্পনা করা হচ্ছিল সেসম্পর্কে বিস্তারিত জানাননি ইসলাম৷ তবে তিনি জানিয়েছেন, সন্দেহভাজনদের গ্রেপ্তারের সময় ষাট কেজি বিস্ফোরকও উদ্ধার করা হয়েছে৷ সংবাদ সম্মেলনের সময় গ্রেপ্তারকৃতদের গণমাধ্যমের সামনে আনা হলেও তাদের সাংবাদিকদের সঙ্গে কথা বলার সুযোগ দেয়া হয়নি৷

এদিকে, ঢাকায় নিরাপত্তার কারণ দেখিয়ে ৩১ ডিসেম্বর সূর্যাস্ত থেকে পহেলা জানুয়ারি সূর্যদয় অবধি সকল রকম জন সমাগম নিষিদ্ধ করা হয়েছে৷ মুসলিমপ্রধান দেশটিতে গত কয়েকবছরে জঙ্গি হামলার হার আশঙ্কাজনকভাবে বেড়ে গেছে৷ ইতোমধ্যে বেশি কয়েকজন বিশিষ্ট লেখকসহ সংখ্যালঘু সম্প্রদায়ের কয়েক সদস্য উগ্রপন্থিদের হামলায় প্রাণ হারিয়েছেন৷

জঙ্গি গোষ্ঠী জেএমবি তথাকথিত ইসলামিক স্টেটের বশ্যতা স্বীকার করেছে, যেটি ঢাকায় সবচেয়ে প্রাণঘাতি জঙ্গি হামলার দায় স্বীকার করেছে৷ পহেলা জুলাইয়ের সে হামলা গোটা বিশ্বকে নাড়িয়ে দিয়েছিল৷

হামলার পর পুলিশের বিভিন্ন অভিযানে ৪০ জনের বেশি সন্দেহভাজন জঙ্গি প্রাণ হারিয়েছে৷ নিহতদের মধ্যে পুলিশের বিবেচনায় জঙ্গি হামলার ‘মাস্টারমাইন্ড' বাংলাদেশে জন্ম নেয়া ক্যানাডার নাগরিক তামিম আহমেদ চৌধুরীও রয়েছে৷

এআই/ডিজি (রয়টার্স)

নির্বাচিত প্রতিবেদন

সংশ্লিষ্ট বিষয়